রবিবার, ৭ জুন, ২০২০ | আপডেট ০২ ঘণ্টা ৩৬ মিনিট আগে

সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু, মানিকগঞ্জে এক গ্রাম লকডাউন

অনলাইন ডেস্ক

সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু, মানিকগঞ্জে এক গ্রাম লকডাউন

করোনাভাইরাসে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে এমন সন্দেহে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার বাইলজুরী গ্রাম লকডাউন ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। আজ বুধবার (২৫ মার্চ) সকাল থেকে ওই গ্রাম লকডাউন করা হয়।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বাইলজুরী গ্রামের আলমগীর হোসেন (৪৮) ঢাকা মেট্রোপলিটন হাসপাতালের কোষাধ্যক্ষ পদে চাকরি করতেন। স্ত্রী ও এক সন্তানকে নিয়ে তিনি ঢাকাতেই থাকতেন। সপ্তাহখানেক আগে তিনি সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হন। এরপর তার কর্মস্থল থেকে তাকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার পরামর্শ দেন। 

সেই পরামর্শ অনুযায়ি তিনি ঢাকার বাসায় কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের পর থেকে তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। পরে রাত সাড়ে নয়টার দিকে তাকে ঢাকা কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে মৃত ঘোষণা করে।

আজ বুধবার ভোরে তাকে ঘিওরের বাইলজুরী গ্রামে আনা হয়। এরপর বাড়ির কাছে নিজস্ব জমিতে দাফন করা হয়। খবর পেয়ে আজ সকাল সাড়ে সাতটার দিকে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ এবং স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন সেই বাড়িতে যান। এরপর মৃত ওই ব্যক্তির স্ত্রী ও স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে, মৃত্যুর আগে  অসুস্থতার লক্ষণ শোনার পর  পুরো গ্রামটি লকডাউন ঘোষণা করে উপজেলা প্রশাসন।

ঘিওর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আইরিন আক্তার জানান, পরিবারের সদস্যরা অনেকটা গোপনীয়তার মধ্যে মরদেহ গ্রামের বাড়িতে এনে দাফন করেছেন। স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হয়নি। এলাকাবাসীর মাধ্যমে খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিস্তারিত শুনেন। তার মৃত্যুর উপসর্গ করোনাভাইরাসের উপসর্গের সঙ্গে মিল রয়েছে। এ কারণে বাড়তি সতর্কতার জন্য ওই পরিবারসহ আশপাশের ৬টি পরিবারকে হোম কোয়ারেন্টিন এবং পুরো বাইলজুরি গ্রামকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

ঘিওর থানার ওসি আশরাফুল আলম বলেন, ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই ব্যক্তির মৃত্যুসনদে মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে কোনও কিছু উল্লেখ করেননি। ওই গ্রামে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। লকডাউন এর শর্ত অমান্য করলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল

মন্তব্য