দেশে বিভিন্ন জায়গায় জলকামানে জীবাণুনাশক ছিটানো হচ্ছে

অনলাইন ডেস্ক

দেশে বিভিন্ন জায়গায় জলকামানে জীবাণুনাশক ছিটানো হচ্ছে

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে রাস্তাঘাটসহ জনসমাগম হয়- এমন এলাকাগুলোতে জীবাণুনাশক ছিটানো শুরু করা হয়েছে। দেশের ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে জীবাণুনাশক ছিটানো হয়।

রাজশাহী: করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট থেকে নগরীর প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে জীবাণুনাশক ছিটানো হয়েছে। আজ সকালে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এ সময় 

তিনি বলেন, রাস্তা ও বাজার সব ধরনের মোড়ে পানিতে ব্লিচিং পাউডার ও ফিনাইল মিশিয়ে স্প্রে করা হচ্ছে। যাতে সবধরনের জীবাণু মুক্ত থাকে। এই দুর্যোগপূর্ণ মূহুর্তে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে আমরা জিতবো। তিনি আরও বলেন, আমরা উচ্চপর্যায়ের আলোচনা করে আগামীকাল থেকে রাজশাহীকে লকডাউন করবো।
 
রংপুর: মহানগরে রাস্তাঘাটসহ জনসমাগম এলাকাগুলোতে জীবাণুনাশক ছিটানো শুরু করেছে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরপিএমপি)। আজ বুধবার সকালে থেকে নগরীর কাচারী বাজার এলাকা থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ব্লিচিংপাউডার ও স্যাভলন মিশানো এই জীবাণুনাশক ছিটানো হচ্ছে।

কাচারী বাজার এলাকা হয়ে সিটি করপোরেশন, সুপার মার্কেট মোড়, পায়রা চত্বর, জাহাজ কোম্পানি মোড়, রিপোর্টার্স ক্লাব লেন, প্রেসক্লাব, গ্রান্ড হোটেল মোড়, শাপলা চত্বর, খামার মোড়, লালবাগসহ নগরের প্রধান সড়ক সংলগ্ন এলাকায় পুলিশের জলকামান গাড়ি দিয়ে স্যাভলনের সাথে ব্লিচিং পাউডার মিশিয়ে তা স্প্রে করা হয়।

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এবং ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় জনসমাগম হয় এমন এলাকাগুলোতে জীবাণুনাশক ছিটানো হয়েছে। এদিন জীবাণুনাশক দিয়ে রাস্তা ও এর আশপাশের এলাকা ধোয়ার পাশাপাশি পৌর এলাকার ৯টি ওয়ার্ডের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় রাস্তার পাশের ভবন ও আশপাশের এলাকায় ওষুধ ছিটানোর কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

এদিকে, গোপালগঞ্জ জেলার বিভিন্ন বাজারে বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দ সিদ্ধান্ত নিয়ে চাল, ডাল, তরকারী ব্যতিত চা-দোকানসহ সকল প্রকার দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছে। সেসব বাজারে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের মনিটরিং টিম নিয়মিত তদারকি করছেন।

মন্তব্য