সোমবার, ১ জুন, ২০২০ | আপডেট ৩৪ মিনিট আগে

দরিদ্র মানুষের খাদ্যের চাহিদা গুরুত্বের সাথে দেখা উচিত

ড. নাজনীন আহমেদ

দরিদ্র মানুষের খাদ্যের চাহিদা গুরুত্বের সাথে দেখা উচিত

এই মুহূর্তে দরিদ্র সাধারণ মানুষের খাদ্যের চাহিদাটাই সবচেয়ে গুরুত্বের সাথে দেখা উচিত। সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি অনেক বেসরকারি উদ্যোগে এই মুহূর্তে চোখে পড়ছে, যা প্রশংসনীয়। সত্যিকার অর্থেই এত বড় দুর্যোগে‌ সরকারের একার পক্ষে এত মানুষকে খাওয়ানো কঠিন; যদি না আমরাও সাথে থাকি। স্বাভাবিক অবস্থাতেই বাংলাদেশের সামাজিক নিরাপত্তা খাতে যতোটুকু বরাদ্দ দেওয়া সম্ভব হয় তা চাহিদার তুলনায় কম।

এদেশের প্রায় পৌনে ২ কোটি মানুষ চরম দরিদ্র। স্বাভাবিক অবস্থাতেই তাদের খাদ্যের কষ্ট থাকে। কাজেই এই জরুরি অবস্থায় এত বিপুলসংখ্যক মানুষের খাবারের ব্যবস্থা করতে আপনি আমি সবাই এগিয়ে আসা দরকার। যারা ঠিক বুঝতে পারছেন না কীভাবে কন্ট্রিবিউট করবেন তারা এই উদাহরণটি ফলো করতে পারেন ।

আমার গ্রামে বসবাসকারী চাচাতো ভাই মনিরউদ্দিন আহমেদ আমাদের গ্রামের ৩৫টি পরিবারকে identify করেছে যারা দরিদ্র। ওই পরিবারগুলোর জন্য আগামী দুই সপ্তাহের খাবার ও জরুরি যা দরকার তা আমরা কজন মিলে ব্যবস্থা করে দিচ্ছি। বিকাশের মাধ্যমে সহজেই ঢাকা থেকে টাকা পাঠিয়ে দিয়েছি।

এভাবে আপনাদের মধ্যে যাদের গ্রামে যোগাযোগ আছে তারা গ্রামের আত্মীয়-স্বজনের মাধ্যমে নিজ গ্রামের দরিদ্র লোকদের খাওয়ানোর ব্যবস্থা যদি করেন তাহলে রাষ্ট্রের হাত শক্ত হবে।

লেখক- বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান-বিআইডিএস-এর জ্যেষ্ঠ গবেষক ড. নাজনীন আহমেদ।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য