রবিবার, ৩১ মে, ২০২০ | আপডেট ১৬ মিনিট আগে

বিষ প্রয়োগে বানর হত্যার ঘটনায় মামলা

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

বিষ প্রয়োগে বানর হত্যার ঘটনায় মামলা

মাদারীপুরে খাবারের সাথে বিষ খাইয়ে ১৬টি বানর হত্যার ঘটনায় মাদারীপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

জানা গেছে, মাদারীপুর পৌরসভার চরমুগরিয়ার ঐতিহ্যবাহী বানর এমনিতেই আগের মতো আর চোখে পড়ে না। যা আছে তাও বিলুপ্ত প্রায়। এমন অবস্থায় মঙ্গলবার বিকেলে কৌশলে দুস্কৃতিকারীরা পরিকল্পিতভাবে বানরগুলো হত্যা করে। এতে দোষীদের বিচারের দাবিতে ফুঁসে উঠেছে স্থানীয়রা। আর বনবিভাগ থেকেও একটি মামলা দায়ের হয়েছে। এর আগে জেলা প্রশাসন জঘন্য এই হত্যাকাণ্ডের বিচারের আশ্বাস দেন।

আড়িয়াল খাঁ নদীবেষ্টিত মাদারীপুরের চরমুগরিয়া অঞ্চল বনজ ও ফলদ গাছে পূর্ণ ছিল। মুক্তিযুদ্ধের আগে এ বনে ১০ হাজারের মতো বানর ছিল। তখন জঙ্গল ও শত শত গাছ থাকায় বানরগুলোর বিচারণ ছিল চরমুগরিয়ার এলাকাজুড়ে।

জেলা বন বিভাগের তথ্য মতে, চরমুগরিয়ায় এখনও আড়াই হাজারের মতো বানর আছে। এমতাবস্থায় মঙ্গলবার বিকেলে বেশ কয়েকটি বানরের মুখ দিয়ে বিষাক্ত লালা পড়তে দেখে। তখন কয়েকটি বানর বানর মারা গেছে, কয়েকটি বিষে কাতরাচ্ছিল। মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে ১২টি ও বুধবার সকালে আরো ৪টি বানর মারা যায়। পরে বানরগুলো সংগ্রহ করে মাটি দেয় স্থানীয়রা। বিষয়টি এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

একটি নির্ভরযোগ্য তথ্য মতে, খাদ্য সংকটের কারণে বানরগুলো বাসা বাড়িতে বিভিন্ন সময় হানা দিতো। তবে এ কারণে কেউ বানরগুলো মেরেছে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে মাদারীপুর উন্নয়ন সংগ্রম পরিষদের আহবায়ক মাসুদ পারভেজ বলেন, এটা অমানবিক। বানরগুলো মাদারীপুরের ঐতিহ্য। শত বছর ধরে এই বানরগুলো মানুষের প্রতিবেশীর মতোই বসবাস করে আসছে। কেউ কখন বানর মারেনি। কিছু অমানুষ এই বানরগুলোকে মেরে ফেলেছে। আমরা এর বিচার চাই।

এব্যাপারে মাদারীপুরের ভারপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা তাপস কুমার গুপ্ত বলেন, এই ঘটনায় মাদারীপুর বনবিভাগ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এরই মধ্যে মাদারীপুর সদর থানায় বানর হত্যার অভিযোগ এনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও
বিভাগীয় তদন্তও চলছে।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, বানর হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়ের করার জন্য বনবিভাগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি এই ঘৃণ্য ও নিষ্ঠুর ঘটনায় তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, বানরের জন্য মাদারীপুর সদর উপজেলার কুমার নদের তীরে নয়াচর এলাকায় ১৮ একর জায়গাজুড়ে ইকোপার্ক।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য