বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০ | আপডেট ১৩ মিনিট আগে

যুক্তরাজ্যে শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় বেশি মৃত্যু ঝুঁকিতে বাংলাদেশিরা

যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি :

যুক্তরাজ্যে শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় বেশি মৃত্যু ঝুঁকিতে বাংলাদেশিরা

যুক্তরাজ্যে মহামারি করোনা ভাইরাসে (কভিড-১৯) শ্বেতাঙ্গ পুরুষদের তুলনায় তিনগুণের বেশি মৃত্যুর ঝুঁকিতে রয়েছেন বাংলাদেশিরা। দেশটির জাতীয় পরিসংখ্যান অধিদপ্তরের (ওএনএস) এক জরিপের বিশ্লেষণে এ তথ্য উঠে এসেছে। এ খবর দিয়েছে সিএনএন ও স্কাই নিউজ।

বাংলাদেশিদের পাশাপাশি শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় কৃষ্ণাঙ্গ বৃটিশদের মৃত্যুর ঝুঁকি চারগুণের বেশি বলে জানিয়েছে অধিদপ্তরটি। গত ২ মার্চ থেকে ১০ এপ্রিলের মধ্যে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের উপর এই জরিপ চালিয়েছে ওএনএস। বৃটেনে শ্বেতাঙ্গ পুরুষদের তুলনায় বাংলাদেশি ও পাকিস্তানি পুরুষরা ৩.৫৫ শতাংশ বেশি মৃত্যুর ঝুঁকিতে আছেন।

অন্যদিকে, বাংলাদেশি নারীরা শ্বেতাঙ্গ নারীদের চেয়ে ৩.৩৫ শতাংশ বেশি ঝুঁকিতে আছেন। অন্যদিকে কৃষ্ণাঙ্গ নারী ও পুরুষদের ক্ষেত্রে এ হার যথাক্রমে ৪.২ ও ৪.২৮ শতাংশ বেশি। একইভাবে ভারতীয় নারী ও পুরুষদের ক্ষেত্রে এ হার যথাক্রমে ২.৭ ও ২.৪ শতাংশ বেশি।

ওএনএস তাদের জরিপে, ২০১১ সালে করা আদমশুমারি থেকে পাওয়া তথ্য ব্যবহার করেছে। অধিদপ্তরটি জানিয়েছে, গোষ্ঠীভেদে করোনার প্রভাবে এ হেরফেরের পেছনে আংশিকভাবে দায়ী আর্থ-সামাজিক প্রতিকূলতা ও অন্যান্য নানা বিষয়।

কিন্তু সকল কারণ এখনো অজানা রয়ে গেছে। বয়স, জনতাত্ত্বিক তথ্য, ব্যক্তিগতভাবে জানানো স্বাস্থ্যজনিত সমস্যা বিবেচনায় নেয়ার পরও বৃটেনে শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় বাংলাদেশিদের করোনায় মৃত্যুঝুঁকি বেশি। বাংলাদেশি ও পাকিস্তানি পুরুষদের মৃত্যুর ঝুঁকি শ্বেতাঙ্গ পুরুষদের তুলনায় ১.৮ শতাংশ বেশি। নারীদের ক্ষেত্রে এ হার ১.৬ শতাংশ। কৃষ্ণাঙ্গদের ক্ষেত্রে উভয় লিঙ্গের জন্য এই হার প্রায় দ্বিগুণ। তবে চীনা ও অন্যান্য মিশ্র জাতিগোষ্ঠীদের মৃত্যুর ঝুঁকি প্রায় শ্বেতাঙ্গদের সমানই।

ওএনএস অনুসারে, যুক্তরাজ্যের অপেক্ষাকৃত দরিদ্র অঞ্চলগুলোয় করোনায় মৃত্যুহার অন্যান্য অংশের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। ওই অঞ্চলগুলোয় বিদ্যমান স্বাস্থ্য ব্যবস্থার দুর্দশা এক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করে। সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীর সদস্যরা সাধারণত ওইসব অঞ্চলেই বাস করে বেশি।

সিএনএন জানিয়েছে, সম্প্রদায়ভেদে করোনার প্রভাবে ভিন্নতার পুরো কারণ জানা না গেলেও এটা নিশ্চিত যে, করোনার ‘বৈষম্যহীন’ আচরণের ভ্রম ভেঙে দিয়েছে এ জরিপ।

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল 

মন্তব্য