সোমবার, ২৫ মে, ২০২০ | আপডেট ০৩ ঘণ্টা ১১ মিনিট আগে

১০৫০০ দরিদ্র পরিবারে বসুন্ধরা চেয়ারম্যানের ঈদ উপহার

নিজস্ব প্রতিবেদক

১০৫০০ দরিদ্র পরিবারে বসুন্ধরা চেয়ারম্যানের ঈদ উপহার

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা দুর্যোগে চলমান সহায়তা কর্মসূচির পাশাপাশি এবার ঈদকে সামনে রেখে ১০ হাজার ৫০০ দরিদ্র পরিবারকে ঈদ উপহার পাঠালেন দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান। রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার আশপাশের বিভিন্ন ওয়ার্ড, পার্শ্ববর্তী নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ও  মানিকগঞ্জের দরিদ্র মানুষের মাঝে বিতরণের জন্য আজ শুক্রবার এসব ঈদ উপহার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

জনপ্রতিনিধিরা জানান, তারা তালিকা ধরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এসব ঈদ উপহার দ্রুত দরিদ্র পরিবারগুলোতে পৌঁছে দেবেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রতিটি ঈদ উপহার প্যাকেটে রয়েছে তেল ১ লিটার, চিনি গুড়া চাল ২ কেজি, মিনিকেট চাল ৩ কেজি, আটা ২ কেজি, সেমাই ১ প্যাকেট এবং চিনি ১ কেজি।

ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা (আইসিসিবি) থেকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) আওতাধীন আশেপাশের ছয়টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও তাদের প্রতিনিধিরা এসব উপহার সামগ্রী বুঝে নেন। এলাকার আয়তন ও দরিদ্র মানুষের বিবেচনায় কোনো ওয়ার্ডে ৫০০ প্যাকেট, কোননো ওয়ার্ডে একহাজার প্যাকেট ঈদ উপহার দেওয়া হয়। পূর্ব পরিকল্পিত তালিকা অনুযায়ী সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে জনপ্রতিনিধিরা এগুলো বিতরণ করবেন বলে জানা গেছে।

এছাড়া ঈদ উপহারের একটি অংশ পার্শ্ববর্তী রূপগঞ্জ ও মানিকগঞ্জের দরিদ্র মানুষদের মাঝে বিতরণের জন্য সেখানকার জনপ্রতিনিধিদের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে বসুন্ধরার কর্মকর্তারা জানান।

আহমেদ আকবর সোবহানের পক্ষে আইসিসিবি'র প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা এম এম জসীম উদ্দিন কাউন্সিলরদের হাতে ঈদ উপহার সামগ্রীগুলো তুলে দেন।

এসময় জসীম উদ্দিন বলেন, এগুলো আমাদের মাননীয় চেয়ারম্যান স্যারের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার। করোনা পরিস্থিতির শুরু থেকে চেয়ারম্যান স্যারের নির্দেশে বসুন্ধরা গ্রুপের পক্ষ থেকে সারা দেশে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। আজকের ঈদ উপহার সেই সহায়তার বাইরে। আমাদের আইসিসিবির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিকে খাবারগুলো প্যাকেজিং করে। এবার ঈদকে সামনে রেখে ১০ হাজার ৫০০ প্যাকেটের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বিতরণের জন্য ঈদ উপহার নিতে এসে ডিএনসিসি ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আইয়ুব আনছার মিণ্টু বলেন, আমি বসুন্ধরার কাছে কৃতজ্ঞ যে, শিল্পগ্রুপটিকে সবসময় আমরা পাশে পেয়েছি। যে কোনো খারাপ পরিস্থিতিতে বসুন্ধরা গ্রুপ ঢাল হয়ে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। এর আগেও করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় বসুন্ধরা চেয়ারম্যান আমার এলাকার অসহায় মানুষের জন্য খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন। আমি তালিকা ধরে বাড়ি বাড়ি তা পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি। আজ একহাজার প্যাকেট ঈদ উপহার পেলাম। সর্বোচ্চ নিরাপত্তার সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এগুলো বিতরণ করা হবে।

এদিকে ৪০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের পক্ষে ঈদ উপহার সামগ্রী বুঝে নিতে আসেন তার ভাগ্নে আতাউর রহমান ঢালী ও হাজী মোশারফ হোসেন খন্দকার।

তারা বলেন, এর আগেও বসুন্ধরার দেওয়া খাদ্য সহায়তা দরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করেছি। তালিকা আগেই করা আছে। তারপরও এর আগে কারা পেয়েছেন আর কারা পাননি সেটা দেখে নতুন তালিকা করা হবে। কেউ একাধিকবার পেল আর কেউ একেবারে পেল না এমন যেন না হয় সেটা বিবেচনা করা হবে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য