শুক্রবার, ১০ জুলাই, ২০২০ | আপডেট ০৬ মিনিট আগে

আপনি যদি সাধারণ নাগরিক হতেন, তাহলে আইসিইউ জোগাড় করতে পারতেন?

মঞ্জুরে খোদা টরিক

আপনি যদি সাধারণ নাগরিক হতেন, তাহলে আইসিইউ জোগাড় করতে পারতেন?

সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মাদ নাসিম ভাই আমার সিরাজগঞ্জের বড় ভাই। তার সাথে আমার দেখা হয়েছে মাত্র দুইবার। সেটা ছিল ১৯৯৬ সালে ২১ বছর পর তার দল ক্ষমতায় আসার পর। ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক থাকতে সংগঠনের অফিসে একটি টেলিফোন সংযোগের জন্য গিয়েছিলাম। তিনি সঙ্গে সঙ্গে টিএন্ডটিতে ফোন করে আমাদের অফিসে একটি ফোনের ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন। আরেকবার গিয়েছিলাম আমার বিদায়ী সম্মেলনের আমন্ত্রন জানাতে ও ফোনের জন্য ধন্যবাদ দিতে। অনেকে মনে করতে পারেন একটা ফোন এ আর এমন কি? সে সময় একটা ল্যান্ডফোন ছিল সোনার হরিণ।

পত্রিকায় দেখলাম নাসিম ভাই করোনাক্রান্ত, অসুস্থ। তিনি একজন তুখোড় রাজনীতিক। শুধু তাই না, উনার বাবা এম মনসুর আলীও একজন খ্যাতিমান রাজনীতিক ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম প্রধান সংগঠক ছিলেন। রাজনীতির কারণে জেলের ভিতরে নির্মমভাবে নিহত হন। এমন পোড় খাওয়া রাজনীতিকের অসুস্থতায় মানুষের মধ্যে অনেক উগ্বেগ-উৎকণ্ঠা থাকার কথা কিন্তু এমন কিছু কি হয়েছে?

নাসিম ভাইয়ের অসুস্থতার সংবাদ পড়তে কৌতুহলে পত্রিকার কমেন্টবক্সে অসংখ্য মন্তব্যের কিছু দেখে খুব হতাশ হলাম। সে কারণেই একথাগুলো বলছি। আমি জানি এগুলো তার চোখে পড়বে না। আপনার কোন কর্মী-অনুসারী এগুলো আপনার কাছে তুলে ধরবে না। আপনারা প্রশংসা আর চাটুবাক্য শুনতে এতটাই অভ্যস্ত হয়ে গেছেন যে, আপনাদের ঘিরে অপ্রিয় কোন কথা, সমালোচনা শুনতে পান না। শুনলে হয়তো বলবেন এগুলো নিন্দুকের বা বিরোধীদের কাজ।

আপনি স্বাস্থ্য, স্বরাষ্ট্র, গণপূর্ত ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। এখন আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য এবং একটি সংসদীয় উপকমিটির প্রধান। আপনি নিজে করোনাক্রান্ত হয়ে একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তার মানে আপনিও সরকারি হাসপাতালকে নির্ভরযোগ্য ও নিরাপদ মনে করেন না। আপনার আরও ভাল চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী সিএমএইচএ ফোন করেছেন।

আপনি যদি সাধারণ নাগরিক হতেন এখন কি হাসপাতালের একটি বেড, আইসিইউ জোগাড় করতে পারতেন? এই জোগাড় করতে না পারার দায় কার? বলতে পারেন? আপনারই তো সবার জন্য সমতাভিত্তিক উন্নত স্বাস্থ্যব্যবস্থা করার কথা ছিল, করেছেন কি? কেন সেটা হয়নি? এ ব্যর্থতার দায় কার? টানা ১২ বছর ক্ষমতায় আছেন, এ সময় কি যথেষ্ট না..? আপনি তো পত্রিকায় দেখছেন স্বাস্থ্যখাতের দূরাবস্থা, দুর্নীতির খরব তাই না? আপনি দেখছেন অনেক পরিবার এক হাসপাতাল থেকে আরেক হাসপাতালে ছুটছে? দেখছেন রাস্তাঘাটে চিকিৎসার জন্য মানুষের হাহাকার, আতঙ্ক, উগ্বেগ ও কান্না?

মনে পড়ে ক’দিন আগে আপনি বলেছিলেন, "শেখ হাসিনার মতো নেত্রী পেয়েছি বলেই করোনা প্রতিরোধ করতে পেরেছি"। বলছিলেন, "সরকারের সতর্ক অবস্থানের কারণে দেশে এখনও করোনা ভাইরাস ছড়ায়নি"। আপনি যা বলেছিলেন, তা কি ঠিক?

এমন স্ববিরোধী কথাবার্তা, ফাঁকাবুলির কারণেই রাজনীতিকদের প্রতি মানুষের শ্রদ্ধা, সম্মান, ভালবাসা ও আস্থার ঘাটতি। আপনার ঘনিষ্ট সহকর্মী শহীদ পরিবারের সন্তান সজ্জন রাজনীতিক আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, আশরাফুল ইসলাম যখন অসুস্থ ছিলেন তাকে নিয়ে মানুষের এমন নেতিবাচক মন্তব্য শুনিনি। তার অসুস্থতায় মানুষের মধ্যে স্তব্ধতা, উদ্বেগ দেখেছি।

আপনার অসুস্থতা বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। স্বাস্থ্যখাতে অবহেলায় রেখে বিশেষ সুবিধার চিকিৎসা নেয়া মানুষ ভালভাবে দেখে না। এগুলোর সমালোচনা করে, ধিক্কার জানায়। স্তাবক পরিবেষ্ঠিত অবস্থায় আপনারা তা শুনতে পান না।

দেশের বর্ষীয়ান রাজনীতিক ও এলাকার বড়ভাই হিসেবে আপনার রোগমুক্তি আশা করি। সুস্থ হয়ে বিরাজমান সংকট মোকাবেলায় কাজ করবেন সেই প্রত্যাশা রাখি।

লেখক: সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য