মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০ | আপডেট ০৩ ঘণ্টা ০৫ মিনিট আগে

করোনা মোকাবিলায় ঢাবি ভূমিকা রাখেনি: ছাত্রদল

অনলাইন ডেস্ক

করোনা মোকাবিলায় ঢাবি ভূমিকা রাখেনি: ছাত্রদল

করোনা সংকট মোকাবিলায় শিক্ষার্থীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ন্যুনতম কোনো ভূমিকাই পালন করতে পারেনি। বিগত প্রায় আড়াই মাস যাবত করোনা সংকট চলছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আজ অবধি করোনা সংকট মোকাবিলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়  কোনো ভূমিকা পালন করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করে সংবাদ সম্মেলন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল।

আজ শনিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের আহবায়ক রাকিবুল ইসলাম রাকিব সংগঠনের পক্ষ থেকে বলেন, আমরা মনে করি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৪২ হাজার শিক্ষার্থীর অধিকাংশই আমাদের মতো মধ্যবিত্ত পরিবারের। অনেক শিক্ষার্থীই টিউশনি করে সৎ পথে জীবনযাপন করে থাকেন। বিগত প্রায় আড়াই মাস যাবত করোনা সংকট চলছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আজ অবধি করোনা সংকট মোকাবিলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়  কোনো ভূমিকা পালন করতে পারেনি।

উপরন্তু তারা প্রধানমন্ত্রীর যে ত্রাণ ফান্ড রয়েছে সেখানে ১ কোটি ৩৬ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন। এই অনুদান দেওয়া কোনোভাবেই ঠিক কাজ হয়নি। আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা ও  ক্ষোভ প্রকাশ করছি।

একই সঙ্গে গত ৫ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রে চালু হওয়া করোনাভাইরাস সংক্রমণের নমুনা পরীক্ষা কেন্দ্র ৩১ মে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে তা চালুর দাবি জানিয়েছেন রাকিব।  

রাজধানীর নয়া পল্টনে ছাত্রদল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উদ্যোগে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য সচিব মো. আমান উল্লাহ আমান। 

দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে গত ২৯ মার্চ থেকে ৬ জুন পর্যন্ত ক্যাম্পাস ও তার আশপাশে ত্রাণ-বিতরণ ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে আর্থিক সহযোগিতার কাযর্ক্রম তুলে ধরে আমান বলেন, এক হাজার অসহায় ও দুঃস্থ মানুষের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। তিন শতাধিক সাধারণ শিক্ষার্থীদের আমরা আর্থিক সহযোগিতাও করেছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের ভেতর দিয়ে মেট্রো রেলপখ ও স্টেশন স্থাপন বাতিলের দাবি পুনর্বিবেচনা চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের আহবায়ক বলেন,  আমরা ক্যাম্পাসের ভেতর দিয়ে মেট্রো রেলপথ ও স্টেশন নেয়ার বিষয়টি ঘৃণাভরে প্রত্যাখান করি। যেভাবে এই মেট্রোরেল পথ নেয়ার জন্য ইতিমধ্যে টিএসসি থেকে দোয়েল চত্বর পর্যন্ত অনেক পুরনো শতবর্ষের গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। এটা সাধারণ শিক্ষার্থীদের আবেগ-অনুভূতিতে আঘাত করেছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য