মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০ | আপডেট ০৩ ঘণ্টা ২৩ মিনিট আগে

ভবনের ছাদে হাত-পা বাঁধা নারীর লাশ, পাশে কনডম

অনলাইন ডেস্ক

ভবনের ছাদে হাত-পা বাঁধা নারীর লাশ, পাশে কনডম

রাজধানীর পল্লবীতে নির্মাণাধীন একটি ভবনে ত্রিশোর্ধ্ব এক নারীর মরদেহ মিলেছে যার পাশে বেশ কিছু কনডম ও ভিজিটিং কার্ড পাওয়া গেছে।

ধারণা করা হচ্ছে, তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

আজ শনিবার দুপুরে পল্লবীর সেকশন ১২, ই-ব্লকের ৩ নম্বর রোডের ৪ নম্বর নির্মাণাধীন ভবনের ৬তলার ছাদ থেকে হাত, পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ভবন মালিক তুহিনসহ চারজনকে আটক করা হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ফরেনসিক টিম আলামত সংগ্রহ করছে। ধর্ষণের পর ওই নারীকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, ‘স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে শনিবার দুপর ১২টার দিকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ সময় রশি দিয়ে তার হাত, পা বাঁধা ছিল। এ ছাড়া মুখে ওড়না ঢুকানো ছিলো। ওই ভবনটি পাঁচ তলা পর্যন্ত সম্পন্ন। উপরের এক তলায় নির্মাণ কাজ চলছে। চারতলা থেকে নিচতলা পর্যন্ত ভাড়া দেওয়া। ধারণা করা হচ্ছে, শুক্রবার রাতের কোনো এক সময়ে এই ভবনেই শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে তাকে।’

পুলিশের এ কর্মকর্তা বলেন, ‘ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিচয় শনাক্তের চেষ্টার পাশাপাশি থানায় একটি হত্যা মামলা প্রক্রিয়াধীন।’

তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনায় জড়িতদের শনাক্তে কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি ওই নির্মাণাধীন ভবনের আশপাশ এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে হত্যাকাণ্ডের আগে ওই নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন কি না তা জানা যাবে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য