বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০ | আপডেট ০২ ঘণ্টা ৩৯ মিনিট আগে

সুন্দরবনে ‌‌‌‘বন্দুকযুদ্ধে’ খান বাহিনীর তিন সদস্য নিহত

শাকিলা ইসলাম জুঁই, সাতক্ষীরা

সুন্দরবনে ‌‌‌‘বন্দুকযুদ্ধে’ খান বাহিনীর তিন সদস্য নিহত

পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে বনদস্যু ‘খান বাহিনী’র তিন সক্রিয় সদস্য নিহত হয়েছে। শনিবার রাতে সুন্দরবনের ফিরিঙ্গি এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে শ্যামনগর উপজেলার কালিঞ্চি গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে ফারুক হোসেনকে (৩৫) শনাক্ত করা গেলেও অপর দুজনের নাম পরিচয় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জানা যায়নি। অভিযানে অংশ নেওয়া র‌্যাব-৬ এর কয়েকজন সদস্যও আহত হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হুদা।

শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ওমর ফারুক চৌধুরী জানান, বেলা দশটার কিছু পরে গুলিবিদ্ধ তিনজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার আগেই তাদের মৃত্যু হয়। অধিক রক্তক্ষরণের কারণে তাদের মৃত্যু হয় বলে হাসপাতারেল জরুরি বিভাগ বিষয়টি নিাশ্চিত করেছে। এ সময় র‌্যাবের আহত সদস্যদেরও চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক।

তবে অভিযানের বিষয়ে কথা বলার জন্য বার বার চেষ্টা করেও র‌্যাব-৬ এর মুন্সিগঞ্জ অফিসের কোনো বক্তব্য পাওযা যায়নি।

র‌্যাব-৬ এর পক্ষ থেকে খুলনায় প্রেস কনফারেন্স করে অভিযানের বিষয়ে বিস্তারিত জানাবেন বলে বিশ্বস্থ একটি সূত্র নিশ্চিত করে।

এদিকে নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানিয়েছে খান বাহিনীর সদস্যরা সুন্দরবনের ভারতীয় সীমান্ত এলাকায় অবস্থান করে বাংলাদেশের অংশের জেলেদের জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায় করতো। অভিযানের আগেই তারা সুন্দরবনের ভেতর দিয়ে ভারতীয় সীমান্ত এলাকা অতিক্রম করে সুন্দরবনের গহীনে ভারতের অংশে অবস্থান করতো।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি পশ্চিম সুন্দরবনে খান ও বুলবুলসহ কয়েকটি ছোট ছোট বনদস্যু বাহিনী সক্রিয় হয়ে উঠেছে। গত ২০ জুন সুন্দরবনে মাছ শিকারে যাওয়া চার জেলেকে মক্তিপণের দাবিতে অপহরণ করে বনদস্যুরা। ওই ঘটনার পর র‌্যাব সদস্যরা গত শুক্রবার  থেকে পশ্চিম সুন্দরবনের বিভিন্ন অংশে অভিযান পরিচালনা করছিল।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য