বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০ | আপডেট ০১ ঘণ্টা ২৩ মিনিট আগে

নতুন সংক্রমণের পর চীনে ৭০ লাখের বেশি মানুষের করোনা পরীক্ষা

অনলাইন ডেস্ক

নতুন সংক্রমণের পর চীনে ৭০ লাখের বেশি মানুষের করোনা পরীক্ষা

সংগৃহীত

চীনের রাজধানী বেইজিংয়ের একটি মার্কেট থেকে নতুন করে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটার পর কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে সেখানকার কর্তৃপক্ষ। রোববার স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বেইজিংয়ে কাছে প্রায় ৫ লাখ বাসিন্দার একটি কাউন্টিতে কঠোর লকডাউন দেয়া হয়েছে।

চীনে করোনা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এসেছিল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু বেইজিং ও প্রতিবেশী হেবেই প্রদেশে শত শত মানুষ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর আবারও সতর্ক অবস্থানে গেছে কর্তৃপক্ষ।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছে, বেইজিং থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে আনশিন কাউন্টি ‘পুরোপুরি বন্ধ ও নিয়ন্ত্রিত’ থাকবে। চলতি বছরের শুরুর দিকে উহান শহরেও করোনার সর্বোচ্চ পর্যায় চলা অবস্থায় এমন কঠোর লকডাউন দেয়া হয়েছিল।

চীনের মহামারি প্রতিরোধ টাস্ক ফোর্স এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এখন থেকে প্রতিটি পরিবার থেকে একজন দিনে একবার কেবল খাদ্য ও মেডিসিনের মতো প্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনতে বের হতে পারবে।

বেইজিংয়ের শিনফাদি পাইকারি ফুড মার্কেট থেকে নতুন করে করোনার সংক্রমণ দেখা দেয়। এই বাজার থেকেই বেইজিংয়ে প্রায় পুরো অংশে খাদ্য সরবরাহ করা হয়। এমন পরিস্থিতিতে ফুড সাপ্লাই চেইন নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

বার্তা সংস্থা শিনহুয়া জানিয়েছে, আনশিন কাউন্টি থেকে শিনফাদি মার্কেটে মাছ সরবরাহ করা হয়েছিল। রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন দৈনিক গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, ওই এলাকায় ১২ জনের শরীরে করোনা ধরা পড়েছে। যাদের মধ্যে ১১ জনেরই শিনফাদি মার্কেটের সঙ্গে সম্পৃক্ততা রয়েছে।

এদিকে সোমবার বেইজিংয়ের মিউনিসিপ্যাল হেলথ কমিশন জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও সাতজনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। তারা সবাই স্থানীয়ভাবে আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা। তারা জানিয়েছে এই সাতজনের মধ্যে একজনের কোনও উপসর্গ ছিল না।

অন্যদিকে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, জুনের শুরুর দিকে করোনার গুচ্ছ কেসের আবির্ভাব ঘটার পর থেকে এ পর্যন্ত ৭০ লাখের বেশি মানুষকে পরীক্ষা করা হয়েছে। শিনফাদি মার্কেটের আশেপাশে যারা থাকেন তাদের টেস্ট করা হয়েছে। এছাড়া পার্শ্ববর্তী এলাকার পাবলিক ডোমেইন যেমন ব্যাংক, পরিবহন, রেস্টুরেন্ট, বিউটি পার্লার, ডেলিভারি সার্ভিস ও কমিউনিটি কর্মী- সবাইকে টেস্টের আওতায় আনা হয়েছে।

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল

মন্তব্য