মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০২০ | আপডেট ০৬ মিনিট আগে

রেলের স্যানেটারি অফিস ভেঙ্গে ব্যক্তিগত রাস্তা

বিএনপি ও যুবলীগ নেতার নামে জায়গা দখলের অভিযোগ

শফিকুল ইসলাম শামীম, রাজবাড়ী

বিএনপি ও যুবলীগ নেতার নামে জায়গা দখলের অভিযোগ

জায়গা সরকারি, অফিস সরকারি। কিন্তু ব্যক্তিগত রাস্তা করার জন্য চলমান অফিস গুঁড়িয়ে দিয়েছেন রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এমএ খালেক, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এমএ খালেদ পাভেল ও জেলা যুবলীগের যুগ্ন-আহবায়ক স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর জলিল।

এদিকে রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানেটারি অফিস ভেঙ্গে ব্যক্তিগত রাস্তা করার অভিযোগে মামলা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

সংশ্লিষ্ট একাধিক ব্যক্তির ও মামলা সূত্রে জানা যায়, ৯ জুন রাত ২টার দিকে রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানেটারি অফিসের ১/৩ অংশ আসামিরা ভেঙ্গে ফেলেছে। পরে রেল কর্তৃপক্ষ ভেঙ্গে ফেলা অংশ মেরামত শুরু করেন। কিন্তু ৪ জুলাই রাত দেড় টার দিকে রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানেটারি ইন্সপেক্টরের কার্যালয়ের পূর্ব পাশে ১/৩ অংশ আসামিরা সহ ২০/২৫ জন পুনরায় ভেঙ্গে ফেলে রাস্তা নির্মাণের জন্য বালু ভরাটের কাজ শুরু করে। ৫ জুলাই পুনরায় রেল কর্তৃপক্ষ কাজ করতে গেলে আসামিরা সরকারি কাজে বাধা দেয় এবং প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। পরে রেলের উপসহকারী প্রকৌশলী
সাইফুল ইসলাম বাদি হয়ে রাজবাড়ী সদর থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে।

মামলায় আসামিরা হলো- অ্যাডভোকেট এমএ খালেক, রাজবাড়ী জেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক স্থানীয় পৌর
কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর জলিল ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এমএ খালেদ পাভেল।

রাজবাড়ী রেলওয়ের সহকারি নির্বাহী প্রকৌশলী গৌতম বিশ্বাস বলেন, আজও রেলের জমি উদ্ধারে আসলে আমাদের একজন কর্মচারীকে মারধর করেছে। আর মামলার বাদিকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে আসামিরা।

জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এমএ খালেদ পাভেল জানান, মিথ্যা অভিযোগে আমাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

রাজবাড়ী সদর থানার উপপরিদর্শক এসআই কামরুজ্জামান মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তাৎক্ষনিকভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। রেল কর্তৃপক্ষ দখল রাস্তাটি বন্ধ করে দিয়েছে। মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য