প্রবাসী রায়হান ১৪ দিনের রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

প্রবাসী রায়হান ১৪ দিনের রিমান্ডে

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরাকে সাক্ষাৎকার দেওয়া বাংলাদেশি তরুণ মো. রায়হান কবিরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৪ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন বিভাগ।

গতকাল শনিবার দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমির হামজা জয়নুদ্দিন সাংবাদিকদের ১৪ দিনের রিমান্ডের কথা জানিয়ে বলেন, ‘শনিবার থেকে তাঁকে তদন্তে সহায়তা করার জন্য ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে।’

মালয়েশীয় ইমিগ্রেশনের মহাপরিচালক খাইরুল ডিজাইমি দাউদ গতকাল শনিবার এক বিবৃতিতে বলেন, ২৫ বছর বয়সী রায়হান কবিরকে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে, যাতে আর কখনো তিনি মালয়েশিয়ায় ফিরতে না পারেন। বাংলাদেশি প্রবাসীদের সঙ্গে মালয়েশিয়ার পুলিশ দুর্ব্যবহার করছে, এমন অভিযোগ করে আলজাজিরা টেলিভিশনে সাক্ষাৎকার দেওয়ায় রায়হান কবিরের বিরুদ্ধে এসব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

মালয়েশিয়ায় কাগজপত্র না থাকা প্রবাসী কর্মীদের দুর্দশা নিয়ে আলজাজিরায় প্রচারিত এক প্রামাণ্যচিত্রে অংশ নেওয়ার পর এ নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী রায়হান কবিরকে সিটি সেন্টারের এক বাসা থেকে তুলে নিয়ে যায়।

কাতারভিত্তিক টিভি চ্যানেল আলজাজিরা গত ৩ জুলাই “লকড আপ ইন মালয়েশিয়া’স লকডাউন” শীর্ষক একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রচার করে। এতে রায়হান কবিরসহ বেশ কয়েকজন প্রবাসী কর্মীর সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। তারা মালয়েশীয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে কর্মীদের প্রতি খারাপ আচরণ করার অভিযোগ করেন।

এ প্রামাণ্যচিত্র দেশটিতে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি করে এবং কর্তৃপক্ষ দাবি করে যে এটি তাদের দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করেছে।

কর্তৃপক্ষ কয়েক দিন ধরে ২৫ বছর বয়সী বাংলাদেশি তরুণ রায়হানকে খুঁজছিল। তার বিষয়ে তথ্য দিতে মালয়েশিয়ান ইমিগ্রেশন বিভাগ গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল।

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল

পরবর্তী খবর

ঈদ আনন্দে মেতে উঠে কুয়েতে প্রবাসী বাংলাদেশিরা

অনলাইন ডেস্ক

ঈদ আনন্দে মেতে উঠে কুয়েতে প্রবাসী বাংলাদেশিরা

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবের সঙ্গে মিলিয়ে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মী উৎসব ঈদুল ফিতর ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে পালিত হয়েছে। কুয়েত সরকারের নির্ধারিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রবাসী বাংলাদেশিরাসহ বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা ঈদুল ফিরত  উদযাপন করেছে।

স্থানীয় সময় সকাল ৫টা ১২ মিনিটে ১৫০০ মসজিদের পাশাপাশি ঈদগাহেও ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। গত বছর করোনার প্রকট বেশি হওয়াতে ঈদের নামাজ জামায়াতে আদায়ে নিষেধাজ্ঞা ছিল। তাই ঈদের নামাজ স্থানীয়রাসহ সব প্রবাসীদের বাসায় পড়তে হয়েছিল। এই বছর জামায়াতে ঈদের নামাজ আদায়ের অনুমতি দেয় কুয়েত সরকার।


জামায়াতে ঈদের নামাজ আদায় করতে পেরে আনন্দিত প্রবাসী বাংলাদেশিরা। ঈদের কোলাকুলি করেন এবং একে অন্যের সঙ্গে মেতে উঠেন গল্প আড্ডা আর আলাপচারিতায়।

সুখ দুঃখের খোঁজ খবর নেন একে অন্যের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে দেখা যায়। ঈদ উপলক্ষে ৫ দিন সরকারি ছুটি থাকায় ঈদ জামাত শেষে পরিচিত বন্ধু বান্ধব মিলে একে অন্যের বাসায় খাওয়া দাওয়া ও সমুদ্র পাড়ে, পার্ক ও বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে ঘুরতে বের হন অনেকেই।

কুয়েত প্রবাসী বাংলাদেশি ফ্যামেলি আরিফ-আমেনার আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন শওকত-সাথী, আতিক-মিরা, লতিফ-সোনিয়া, এছাড়াও কুয়েত প্রবাসী সংবাদকর্মীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মঈনউদ্দিন সুমন, আ হ জুবেদ, মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন, শরীফ মিজান, সাদেক রিপন প্রমুখ।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

অস্ট্রিয়ায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উল ফিতর উদযাপন

ভিয়েনা প্রতিনিধি

অস্ট্রিয়ায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উল ফিতর উদযাপন

অস্ট্রিয়ায় সরকার প্রদত্ত কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। অস্ট্রিয়ায় ঈদের প্রধান জামাত ভিয়েনা ইসলামিক সেন্টারে সকাল ৬ ঘটিকায় অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও সেখানে সকাল ৭ ঘটিকায় ঈদের আরেকটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। 

বাংলাদেশি মসজিদেও ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। করোনার বিধিনিষেধ এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল মসজিদেই  ঈদ ফিতরের তিন থেকে চারটি  জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

ভিয়েনার বায়তুল মোকারম জামে মসজিদের ঈদ উল ফিতরের চারটি  জামাত অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম জামাতের ইমাম ছিলেন শাইখ ড. ফারুক আল মাদানি। 

ঈদের জামাত শেষে মুসল্লীরা সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে  একে অপরকে ঈদের শুভেচ্ছা জানান। অস্ট্রিয়াতে লকডাউন কিছুটা শিথিল করা হলেও জনসমাগমের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ অব্যাহত রয়েছে। যার ফলে সকল প্রবাসিদের এক সাথে ঈদ উদযাপন করা সম্ভব হচ্ছে না। গতবারের ন্যায় এবারেও শুধুমাত্র পরিবারের সাথে ঈদ উদযাপন করছেন প্রবাসিরা। 

প্রবাসিদের ঈদে বাংলাদেশ থেকে কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে । ঈদের দিন অনেক প্রবাসি ঈদের জামাতের পর কর্মস্থলে যোগদান করেন। ঈদের পর সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঈদ পূর্নমিলনীর আয়োজন করেন প্রবাসিরা। তবে করোনার কারনে গত দুই বছর কোন ধরনের ঈদ উদযাপন করা সম্ভব হচ্ছে না। তাই সকল প্রবাসি প্রত্যাশা, পৃথিবী থেকে করোনা মহামারি বিদায় নিবে এবং আবার প্রবাসিরা এক সাথে ঈদ উদযাপন করবে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

কাতার বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

অনলাইন ডেস্ক

কাতার বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

কাতার বাংলা প্রেসক্লাবের আয়োজনে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত। সংগঠনের সভাপতি ই এম আকাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দোহা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব হাসান মাবুদ।

শনিবার রাজধানী দোহার লামিজন মিলনায়তনে কাতার বাংলা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক আমিন ব্যাপারীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন কাতার বাংলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আকবর হোসেন বাচ্চু।

বিশেষ অতিথি ছিলেন অধ্যাপক তপন মহাজন, বাংলাদেশ স্যোশাল ক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ হারুন, সাধারণ সম্পাদক দিদারুল ইসলাম, কাতার যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন চৌধুরী, সাংবাদিক গোলাম মাওলা হাজারি।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, প্রচার সম্পাদক আবু হানিফ রানা।আরো উপস্থিত ছিলেন ফখরুল ইসলাম, শেখ ফারুক, আহসান উল্লাহ সজিব, সবুজ মল্লিকসহ অন্যান্যরা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফয়ছল চৌধুরী স্কটিশ পার্লামেন্টে নির্বাচিত

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফয়ছল চৌধুরী স্কটিশ পার্লামেন্টে নির্বাচিত

স্কটল্যান্ডের পার্লামেন্টে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এডিনবরার ফয়ছল চৌধুরী এমবিই। লেবার পার্টি থেকে লোদিয়ান রিজিওন্যাল লিস্ট প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। দেশটির পার্লামেন্টে এই প্রথম কোনো বাংলাদেশি নির্বাচিত হলো। তার বাড়ি হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ থানার বদরদি গ্রামে। তার বাবার নাম গোলাম রব্বানী চৌধুরী।

এবারের নির্বাচনে ১২৯টি আসনের মধ্যে ৬৩ সিট পেয়ে সর্বোচ্চ আসন নিয়েছে এসএনপি। তবে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজন আরো এক আসন। সেক্ষেত্রে স্বতন্ত্র বা অন্য কোনো দলের সাথে কোয়ালিশন করতে হবে স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টির।

ইকুয়ালিটি অ্যান্ড হিউম্যান রাইট অ্যাকটিভিস্ট ফয়ছল চৌধুরী দীর্ঘদিন ধরে লেবার পার্টির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। লেবার পার্টি থেকে ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত ওয়েস্ট মিনস্টার পার্লামেন্ট নির্বাচনে এডিনবরা সাউথওয়েস্ট আসনে লড়াই করেন ফয়ছল চৌধুরী।

এছাড়া ২০১৪ সালে স্কটিশ রেফারেন্ডাম চলাকালীন ‘বাংলাদেশিজ ফর বেটার টুগেদার ক্যাম্পেইন’-এর সমন্বয়কারী ছিলেন তিনি। ঐতিহাসিক গণভোট এবং অন্যান্য মূলধারায় রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে স্থানীয় বাংলাদেশি কমিউনিটিকে যুক্ত করতে রয়েছে তার উল্লেখযোগ্য ভূমিকা।

ফয়ছল হোসেন চৌধুরী মা-বাবার সঙ্গে তরুণ বয়সে পাড়ি জমান ইংল্যান্ডে। প্রথমে ম্যানচেস্টার এবং পরে এডিনবরায় বসবাস শুরু করেন। বাবা শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে বড় ছেলে হিসেবে সেই তরুণ বয়সেই পরিবারের হাল ধরেন ফয়ছল চৌধুরী। তখন থেকেই যুক্ত রয়েছেন পারিবারিক ক্যাটারিং ব্যবসায়। ব্যবসার পাশাপাশি পারিবারিক ঐতিহ্য অনুযায়ী তরুণ বয়সেই শুরু করেন স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রম।


অবশেষে করোনামুক্ত হলেন খালেদা জিয়া

পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে যাচ্ছে চীনা রকেট, দেখা যাচ্ছে লাইভে

পবিত্র শবে কদর আজ

কাবুলে স্কুলের পাশে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৫৫


মামা ড. ওয়ালী তসর উদ্দিন এমবিইর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে তার কাছেই কমিউনিটি ওয়ার্কের হাতেখড়ি হয় ফয়ছল চৌধুরীর। দীর্ঘদিন ধরে এডিনবরা অ্যান্ড লোদিয়ান রিজিওন্যাল ইকুয়ালিটি কাউন্সিলের (এলরেক) চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। বিভিন্ন সংখ্যালঘু কমিউনিটির মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখার জন্য ২০০৪ সালে ব্রিটেনের রানি কর্তৃক ‘এমবিই’ খেতাবে ভূষিত হন তিনি।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

লন্ডনে টাওয়ার ব্রিজে আজান দিয়ে মুগ্ধতা ছড়ালেন ব্রিটিশ বাংলাদেশি শফিকুর (ভিডিও)

আ স ম মাসুম, যুক্তরাজ্য

লন্ডনে টাওয়ার ব্রিজে আজান দিয়ে মুগ্ধতা ছড়ালেন ব্রিটিশ বাংলাদেশি শফিকুর (ভিডিও)

লন্ডনের ঐতিহ্যবাহী টাওয়ার ব্রিজে আয়োজিত যুক্তরাজ্যে একটি সর্ব ধর্মীয় অনুষ্ঠানে শুক্রবার ইফতারির আগে আজান দিয়ে সবাইকে মুগ্ধ করেন বাংলাদেশি-বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক কাজি শফিকুর রহমান (৩৫)। এ নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম আরব নিউজ।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, মক্কার পবিত্র মসজিদের মুয়াজ্জিন শেখ আলী আহমাদ মোল্লার অবিকল সুরে শফিকুরের আজানের ধ্বনি শোনে সবাই অবাক হয়ে যান।১৯৭৫ সাল থেকেই পবিত্র মক্কা নগরীর মসজিদে আজান দিচ্ছেন মুয়াজ্জিন শেখ আলী আহমাদ মোল্লা। তার কণ্ঠ সারা বিশ্বে প্রশংসিত।

ছোটবেলা থেকেই আজান দেয়ার অভ্যাস কাজি শফিকুর রহমানের।শুক্রবার টাওয়ার হ্যামলেটস হোমস, ইস্ট লন্ডন মস্ক, লন্ডন মুসলিম সেন্টার ও টাওয়ার হ্যামলেটস ইন্টারফেইথ ফোরাম যৌথভাবে ওই ইফতার পার্টির আয়োজন করে।বাংলাদেশি-বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক কাজি শফিকুর রহমান মূলত ব্যবসায়ী।

ইফতারির আগে অনুষ্ঠানে হঠাৎ করেই তাকে আজান দিতে বলা হয়।এ সময় তার আজানের সুর অনুষ্ঠানে মুগ্ধতা ছড়ায়। অনেকেই তা ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও ছড়িয়ে দিয়েছেন।টাওয়ার ব্রিজে আজান দিতে পেরে যারপরনাই খুশি শফিকুর রহমানও।

 ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন 

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর