আলাউদ্দিন আলীর কালজয়ী ২০ গান

অনলাইন ডেস্ক

আলাউদ্দিন আলীর কালজয়ী ২০ গান

দেশের বরেণ্য গীতিকার, সুরকার, সঙ্গীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী । আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী সংগীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী দীর্ঘ মিউজিক ক্যারিয়ারে প্রায় তিন শতাধিক চলচ্চিত্রের গানে সুর দিয়েছেন। তার সুর করা গানের সংখ্যা ৫ হাজারেরও বেশি।

লোকজ ও ধ্রুপদি গানের সংমিশ্রণে গড়ে ওঠা আলাউদ্দিন আলীর সুরের নিজস্ব ধরন বাংলা সংগীতে এক আলাদা ঢং হয়ে উঠেছে প্রায় চার দশক ধরে। বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের বহু স্বনামধন্য শিল্পী তার সুরে গান করে নিজেদের সমৃদ্ধ করেছেন। 

তিনি বাংলা গান, বিশেষ করে বাংলা চলচ্চিত্রে অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান তৈরি করেছেন। গান লিখে তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পেয়েছেন। 

 'একবার যদি কেউ ভালোবাসতো', 'যে ছিল দৃষ্টির সীমানায়', 'প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ', 'ভালোবাসা যতো বড়ো জীবন তত বড় নয়', 'দুঃখ ভালোবেসে প্রেমের খেলা খেলতে হয়', 'আছেন আমার মোক্তার আছেন আমার ব্যারিস্টার', 'সূর্যোদয়ে তুমি', 'সূর্যাস্তেও তুমি ও আমার বাংলাদেশ', 'বন্ধু তিন দিন তোর বাড়ি গেলাম দেখা পাইলাম না', 'যেটুকু সময় তুমি থাকো কাছে', 'এমনও তো প্রেম হয়', 'চোখের জলে কথা কয়', 'কেউ কোনো দিন আমারে তো কথা দিল না', 'জন্ম থেকে জ্বলছি মাগো', ‘পারি না ভুলে যেতে, স্মৃতিরা মালা গেঁথে’, ‘হায়রে কপাল মন্দ চোখ থাকিতে অন্ধ’, ‘আমায় গেঁথে দাওনা মাগো, একটা পলাশ ফুলের মালা’,‘ও আমার বাংলা মা তোর’, ‘ভেঙেছে পিঞ্জর মেলেছে ডানা’, ‘ইস্টিশনের রেলগাড়িটা’সহ কালজয়ী অসংখ্য গানে পেছনের কারিগর আলাউদ্দিন আলী।

তিনি ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’ (১৯৭৯), ‘সুন্দরী’ (১৯৮০), ‘কসাই’ এবং ‘যোগাযোগ’ চলচ্চিত্রের জন্য ১৯৮৮ সালে শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৮৫ সালে তিনি শ্রেষ্ঠ গীতিকার হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। এ ছাড়া তিনি খ্যাতিমান পরিচালক গৌতম ঘোষ পরিচালিত ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ চলচ্চিত্রে সংগীত পরিচালনা করেছেন।

গুণী এই মানুষের জন্ম ১৯৫২ সালের ২৪ ডিসেম্বর মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামে। তার বাবা ওস্তাদ জাদব আলী। মায়ের নাম জোহরা খাতুন।

রোববার ( ৯ আগস্ট) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে রাজধানীর মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সংগীত ও চলচ্চিত্রসহ দেশের শোবিজ অঙ্গনে।

নিউজ টোয়েন্টিফোর/নাজিম

মন্তব্য