করোনায় ৮ মাস শুয়ে বসে পার করছেন দুবাই প্রবাসী কার্গো ব্যবসায়ীরা

কামরুল হাসান জনি সংযুক্ত আরব আমিরাত

করোনায় ৮ মাস শুয়ে বসে পার করছেন দুবাই প্রবাসী কার্গো ব্যবসায়ীরা

বৈশ্বিক মহামারি করোনায় দীর্ঘ আট মাস শুয়ে-বসে দিন পার করেন দুবাইয়ের কার্গো ব্যবসায়ীরা। আকাশ ও নৌ পথে নিয়মিত যোগাযোগ বন্ধ থাকায় অচলাবস্থা বিরাজ করছে এই সেক্টরে। অনেকেরই ব্যবসা বন্ধ হয়ে করে দেয়ার উপক্রম হয়েছে। তবে কাস্টমসে আটকে থাকা মালামাল দ্রুত খালাসের মাধ্যমে আবারও এই ব্যবসায় নিয়মিত হতে চান প্রবাসী ব্যবসায়ীরা।

দুবাইয়ের পুরাতন বাজার দেরায় প্রায় তিনশতাধিক কার্গো প্রতিষ্ঠান রয়েছে বাংলাদেশিদের। প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে নূন্যতম ৫ জন করে কর্মচারী কাজ করে। এ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিভিন্ন প্রদেশে বসবাসরত কয়েক হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি। করোনার প্রভাবে ফেব্রুয়ারি থেকেই কার্গো ব্যবসা বন্ধ থাকায় এই সেক্টরের হাজারো প্রবাসীর আয়ের পথও বন্ধ হয়ে গেছে।

ব্যবসায়ীদের দাবি, আকাশ ও নৌ পথে কার্গো পরিবহনের যাতায়াত এখন শূন্যের কোটায়। দেশে পাঠানোর উদ্দেশ্যে বিভিন্ন কার্গো প্রতিষ্ঠানে প্রবাসীদের মালামাল পড়ে আছে লম্বা সময় ধরে। জমে থাকা লাখ লাখ টাকা মূল্যের এসব মালামাল নষ্ট হয়ে যেতে পারে বলেও আশংকা করছে কার্গো ব্যবসায়ীরা। ব্যবসা বন্ধ থাকায় মাসের পর মাস বেতনও বকেয়া পড়ে যাচ্ছে শ্রমিকের।

একদিকে চালান বন্ধ অন্যদিক ঠিক সময়ে পণ্য পৌঁছাতে না পারায় নানামুখী জটিলতায় পড়ছেন ব্যবসায়ীরা। কখনো কখনো মামলা ও পুলিশি হয়রানীর মুখোমুখিও পড়তে হচ্ছে তাদের।

দ্রুত মাল খালাস সহ কার্গো প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম আবারো আগের অবস্থায় ফেরাতে সরকারের উচ্চ মহলের সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এই সেক্টরে থাকা প্রবাসী ব্যবসায়ীরা।

নিউজ টোয়েন্টিফোর / সুরুজ আহমেদ

মন্তব্য