ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলা; রবিউলের দায় স্বীকার

অনলাইন ডেস্ক

ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলা; রবিউলের দায় স্বীকার

ঘোড়াঘাট উপজেলা ইউএনও ওয়াহিদা খানম এর উপর হামলার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দী দিয়েছে সাময়িক বরখাস্তে থাকা মালি রবিউল ইসলাম। 

২য় দফার ৩দিনের রিমান্ড শেষে তাকে আদালতে হাজির করা হলে এই স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দীতে দায় স্বীকারের কথা বলেছে রবিউল। পুলিশের তদন্তে রবিউল পরিকল্পনা অনুযায়ী একাই এই হামলা চালিয়েছে বলে জানায় ডিবি পুলিশ। জবানবন্দী শেষে রবিউলকে ডিবি’র সহায়তায় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। তাকে দুই দফায় ৯দিনের রিমান্ড নেয়া হয়।

এই মামলার আসামী রবিউল ইসলামকে দ্বিতীয় দফায় ৩ দিনের রিমান্ড শেষে রবিবার সকাল ১০টায় কড়া পুলিশী নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আদালতে নিয়ে আসা হয়। পরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ইসমাইল হোসেনের এর আদালতে কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান এর জন্য ডিবি পুলিশের ওসি ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইমাম জাফর আবেদন জানান। 

আরও পড়ুন:


যে কারণে শ্রীলঙ্কার যুগল ছবি বাংলাদেশে ভাইরাল


ডিবি পুলিশের ওসি ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইমাম জাফর জানান, সরাসরি আসামি রবিউল ইসলামকে ম্যাজিষ্ট্রেটের খাসকামরায় নিয়ে যাওয়া হয়। জবানবন্দী প্রদানের সময় দায় স্বীকারের কথা বলেন রবিউল। 

জবানবন্দী শেষে রবিউলকে ডিবি’র সহায়তায় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

ডিবি পুলিশের কথা অনুযায়ী রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় আদালতে হাজির করার কথা থাকলেও তড়িঘড়ি করে সকাল ১০টায় কড়া নিরাপত্তায় পুলিশী প্রহরায় নিয়ে আসা হয়। পরে চীফ জুডিশিয়াল ভবনের মধ্যে সাংবাদিক এবং ক্যামেরাম্যানদের প্রবেশে বাধা দেওয়া হয়। রবিবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত প্রচুর সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়।

জবানবন্দী শেষে তদন্ত কর্মকতা ওসি ডিবি ইমাম জাফর গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, রবিউল হামলার দায় স্বীকার করেছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী সে একাই এ হামলা চালিয়েছে। 

দিনাজপুর কোর্ট পরিদর্শক ইসরাইল হোসেন জানান, রোববার সকাল ১০টায় এই চাঞ্চল্যকর মামলার গ্রেপ্তারকৃত আসামি ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদের সাময়িক বরখাস্তে থাকা মালি রবিউল ইসলামকে কড়া পুলিশ পাহারায় আদালতে হাজির করা হয়। 

আসামি রবিউলকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ইসমাইল হোসেনের এর আদালতে নিকট সোপর্দ করা হয়। রবিউল ইসলাম জবানবন্দী দিতে সম্মত হলে বিচারক তার খাসকামড়ায় জবানবন্দি গ্রহণ করেন।

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল

মন্তব্য