সুশান্ত ইস্যু ও মাদক মামলায় এবার কি তবে ফেঁসে যাচ্ছেন দীপিকা?

অনলাইন ডেস্ক

সুশান্ত ইস্যু ও মাদক মামলায় এবার কি তবে ফেঁসে যাচ্ছেন দীপিকা?

বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনকে মাদক মামলার জেরে ডেকে পাঠাতে পারে নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। স্থানীয় একটি গণমাধ্যম সোমবার রাতে তেমনই দাবি করেছে।

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যু ও মাদক মামলায় ইতিমধ্যেই এনসিবি'র জিজ্ঞাসাবাদের পর সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী এবং তাঁর ভাই শৌভিককে গ্রেপ্তার করেছে। এ বার সেই সূত্রে অন্যদেরও ডাক পড়ছে। সুশান্তের ঘটনায় ডাক পড়েছে সারা আলি খান এবং শ্রদ্ধা কপুরেরও। অর্থাৎ, দু’জনেই কঙ্গনা রানাউত বর্ণিত ‘স্টার কিড’।

তবে তালিকায় দীপিকার নাম এসে যাওয়া নিঃসন্দেহে গোটা ঘটনায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে। যদিও এ দিন রাত পর্যন্ত দীপিকার পক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। সোশ্যাল মিডিয়াতেও নয়।

দীপিকার নাম এসেছে কারিশ্মা নামের এক জনের সঙ্গে তাঁর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের সূত্রে। তার নাম মিলেছে সুশান্তের ঘনিষ্ঠ জয়া সাহার সূত্রে। যাকে সোমবার জেরা করেছে এনসিবি। আজও জেরা করার কথা রয়েছে।


আরও পড়ুন: মাধুরীর ‘সাজন’ ছবির গানে ঝড় তুললেন নুসরাত জাহান


সম্প্রতি কয়েক জন বলি-তারকার হোয়াটস্‌অ্যাপ চ্যাট এনসিবি-র হাতে আসে। সেখানে ‘ডি’ এবং ‘কে’ আদ্যাক্ষরের দু’টি নামের কথা জানা যায়। মাদক প্রসঙ্গে তাঁদের মধ্যে একাধিক বার কথা চালাচালি হয়েছে বলে দাবি করে এনসিবি। এর পরেই শোরগোল পড়ে। কে এই ‘ডি’? ‘কে’ই বা কে?

বলিউডের একাংশের দাবি, ‘ডি’ আসলে দীপিকা পাড়ুকোন। আর ‘কে’ হচ্ছেন কারিশ্মা। ‘কে’কে বুধবার ডেকে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি ‘ডি’ অর্থাৎ দীপিকাকেও সমন পাঠানো হবে বলে খবর।

করিশ্মা কাজ করেন ‘কওয়ান ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট এজেন্সি’তে। সেই সূত্রেই তাঁর দীপিকার সঙ্গে কথা হত। কারণ, মন্টেনার ওই সংস্থায় দীপিকার ম্যানেজার ছিলেন কারিশ্মা।

news24bd.tv সুরুজ আহমেদ

মন্তব্য