পাঁচ মাসে বিমানের লোকসান ৩ হাজার কোটি টাকা

লাকমিনা জেসমিন সোমা

পাঁচ মাসে বিমানের লোকসান ৩ হাজার কোটি টাকা

করোনার ছোবলে গেল পাঁচ মাসে প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা লোকসান গুনেছে বাংলাদেশ বিমান। স্বল্প পরিসরে বাণিজ্যিক ও চাটার্ড ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে অল্পস্বল্প আয় হলেও মাসে নিট খরচ গুনতে হচ্ছে ৬২৮ কোটি টাকা। এমনকি নতুন করে ঋণ নিয়ে পুরাতন ঋণের কিস্তি শোধ করছে সংস্থাটি। এ অবস্থা চলতে থাকলে সামনে আরো ভয়ঙ্কর বিপর্যয় নেমে আসতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বাংলাদেশ বিমানের এমডি ও সিইও মোকাব্বির হোসেন। 

করোনার ছোবলে থমকে গেছে গোটা বিশ্ব। সারা বিশ্বে বিমান চলাচল কমেছে ৮০ শতাংশ। জরুরি প্রয়োজনে স্বল্প পরিসরে বাংলাদেশ বিমান কিছু ফ্লাইট পরিচালনা করলেও আয়ের পরিমাণ খরচের তুলনায় অনেক বেশি।

বিমান কর্তৃপক্ষ জানায়, প্রতিমাসে প্রতিষ্ঠানটির নিট খরচ গুণতে হয় ৬২৮ কোটি টাকা। এরমধ্যে স্থায়ী পরিচালন ব্যয় ২০৩ কোটি টাকা, ঋণের কিস্তি ৬১ কোটি টাকা, উড়োজাহাজ ভাড়া ৯৮ কোটি টাকা এবং রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয় ২৬৬ কোটি টাকা।

সে হিসেবে গেল পাঁচ মাসে আয় হোক বা না হোক খরচ গুনতে হয়েছে অন্তত তিন হাজার কোটি টাকা।
বাংলাদেশে বিমানের এমডি ও সিইও মোকাব্বির হোসেনের আশঙ্কা বিশ্বব্যাপী পর্যটন খাত চালু না হলে এভিয়েশন খাতে আরো ভয়ংকর বিপর্যয় নেমে আসতে পারে।

গেল জুলাই-আগস্টে ২১ টি ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে ২৩৫ কোটি টাকা আয়ের বিপরীতে বিমান কর্তৃপক্ষের অপারেটিং লস গুণতে হয়েছে ২৫৭ কোটি টাকা। পুরাতন ঋণের কিস্তি টানতে সরকারি ব্যাংক থেকে নেওয়া নতুন করে ১ হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়েছে সংস্থাটি।

news24bd.tvতৌহিদ

মন্তব্য