‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ছাত্রলীগ-যুবলীগের কারণে এখন ‘ডেঞ্জার জোন’

অনলাইন ডেস্ক

‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ছাত্রলীগ-যুবলীগের কারণে এখন ‘ডেঞ্জার জোন’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজ ক্যাম্পাসগুলো ছাত্রলীগ-যুবলীগের অপকর্মে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য ‘ডেঞ্জার জোনে’ পরিণত করেছে।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধনে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের ব্যঙ্গ করে মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট কাহিনীনির্ভর কুরুচিপূর্ণ নাটক প্রচারের অভিযোগে এ মানববন্ধন।

রিজভী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ ক্যাম্পাসগুলোতে যেখানে ছাত্রলীগ-যুবলীগের অফিস রয়েছে, সেসব স্থান সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য ‘ডেঞ্জার জোনে’ পরিণত হয়েছে। ছাত্রলীগ-যুবলীগের অফিসের কাছে কোনো কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্তানদের পাঠাতে ভয় পাচ্ছেন অভিভাবকরা। বিশেষ করে মেয়েদের পাঠাতে ভয় পাচ্ছেন। কারণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ছাত্রলীগ-যুবলীগের দৌরাত্ম্যে এখন শিক্ষার্থীদের জন্য ডেঞ্জার জোন।

‌‘আওয়ামী লীগের যত রাগ-ক্ষোভ সব জিয়াউর রহমান ও বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি। আর এ রাগ কী জন্য জানেন আপনারা? উনার (শেখ হাসিনা) বাবা (শেখ মুজিবুর রহমান) যে কাজটি করতে পারেননি, সে কাজটি করেছেন জিয়াউর রহমান। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন, যুদ্ধ করেছেন। তারা এটি অর্জন করতে পারেনি। তাই তাদের ক্ষোভ, ‘কেন জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা করলেন? কেন তিনি যুদ্ধ করলেন?’

আরও পড়ুন: এবার সাভারে গণধর্ষণের আরেক লোমহর্ষক ঘটনা

রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, জিয়াউর রহমান নাকি পাকিস্তানের চর। যে লোক পাকিস্তানের কমান্ডারকে হত্যা করে যুদ্ধের সূচনা করলেন তিনি হলেন ‘চর’। আর যিনি পাকিস্তানের সেনাদের হাতে বন্দি হয়ে থাকলেন নয় মাস তিনি হলেন ‘নন্দিত’। আওয়ামী লীগের কাছে জিয়া ‘নিন্দিত’, কারণ তিনি বাকশাল চালু করেননি। তা করলে আওয়ামী লীগের কোনো অসুবিধা ছিল না। জিয়াউর রহমান সংবাদপত্র বন্ধ না করে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা কেন দিলেন, এজন্য তিনি ‘নিন্দিত’।

আরও পড়ুন: কাজের মেয়েকে ধর্ষণ, ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগ নেতা রিমান্ডে

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য