বড় বোন বাহির থেকে এসে দেখেন ছোট বোন ‌‘আপত্তিকর অবস্থায়’
বড় বোন বাহির থেকে এসে দেখেন ছোট বোন ‌‘আপত্তিকর অবস্থায়’

বড় বোন বাহির থেকে এসে দেখেন ছোট বোন ‌‘আপত্তিকর অবস্থায়’

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের প্রলোভনে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) এক কর্মচারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার রাতে ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর বড় বোনের দায়ের করা মামলায় তাজ মুরাদ লিটন (৩০) নামের ওই রাসিক কর্মচারীকে গ্রেফতার করে নগরীর মতিহার থানা পুলিশ।

তাজ মুরাদ লিটন (৩০) সিটি করপোরেশনের প্রকৌশল বিভাগে কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে কর্মরত। তিনি নগরীর তালাইমারী বাদুড়তলা এলাকার মোশারফ হোসেনের ছেলে।

আরও পড়ুন: কাজের মেয়ে নিয়োগে এখন থেকে মানতে হবে ৬ নির্দেশনা

তাকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন নগরীর মতিহার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিদ্দিকুর রহমান। তিনি জানান, ধর্ষণের শিকার কলেজছাত্রী এক বছর আগে সিটি করপোরেশনে বিশেষ কাজের জন্য যায়। সেখানে লিটনের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। সেই থেকে লিটনের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

আরও পড়ুন: টাকা-পয়সা লুটের পর মা-মেয়েকে ধর্ষণ করল ডাকাতের দল

এরপর থেকে বিভিন্ন সময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে লিটন একাধিকবার তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন।

সর্বশেষ শনিবার ওই শিক্ষার্থীর বড় বোনের বাসায় বিয়ের কথাবার্তা বলার জন্য যান লিটন। এসময় ওই শিক্ষার্থীর বোন আপ্যায়নের খাবার কিনতে দোকানে যান। ফিরে এসে দেখেন ঘরের দরজা ভেতর থেকে লাগানো।

ওই সময় তিনি প্রতিবেশীদের ডেকে তাদের আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলেন। খবর পেয়ে তাকে হেফাজতে নেয় পুলিশ।

আরও পড়ুন: পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর ধরা

ওসি আরও জানান, প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। ওই ছাত্রীর বোনের মামলায় গ্রেফতার লিটনকে রোববার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ওই ছাত্রীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘‌‌করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা আসছে’, কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা

news24bd.tv তৌহিদ

সম্পর্কিত খবর