মায়ের পরকীয়া জেনে যাওয়ায় খুন হয় পারভেজ

অনলাইন ডেস্ক

মায়ের পরকীয়া জেনে যাওয়ায় খুন হয় পারভেজ

মায়ের পরকীয়া জেনে যাওয়ায় স্কুলছাত্র পারভেজকে গত শুক্রবার (১৫) নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। পরে লাশ ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের উচাখিলা ইউনিয়নের নামাপাড়া এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে ফেলে রেখে যায় খুনীরা।

পরে রোববার সেখান থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ঈশ্বরগঞ্জ পুলিশ।

ক্লুলেজ এই হত্যাকাণ্ডের মামলার রহস্য উদঘাটন করে সংবাদ সম্মেলন করেছে র‌্যাব-১৪। বৃহস্পতিবার বিকেলে র‌্যাব সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে মামলার প্রধান আসামিসহ পাঁজনকে গ্রেপ্তারের কথাও জানানো হয়।

এরা হলো- পারভেজের মা মোছা. রোজিনা আক্তার (৩০), একই গ্রামের মো. গনি (৪৫), সুলতান উদ্দিন (৪০) ও রুহুল আমিন (৫৮)।

র‌্যাব-১৪ এর মিডিয়া অফিসার সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরে জানান, নিহত স্কুলছাত্র পারভেজ মিয়ার মা মোছা. রোজিনা আক্তারের সাথে স্থানীয় প্রতিবেশী এমদাদুল হকের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। বিষয়টি পারভেজ মিয়া জানতে পারলে তার মা ও এমদাদুল হক ভিকটিম পারভেজ মিয়াকে হত্যা করার পরিকল্পনা করে। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী অর্থের বিনিময়ে অন্য আসামিদের ভাড়া করে পারভেজকে হত্যা করে এবং লাশ ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে ফেলে রাখে। এঘটনায় ১২ অক্টোবর ঈশ্বরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা হয়। এরপর র‌্যাব তদন্ত করে মামলার রহস্য উদঘাটন করে আসামিদের গ্রেপ্তার করে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য