নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর

হাজী সেলিমের ছেলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর এরফানের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

হাজী সেলিমের ছেলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর এরফানের বিরুদ্ধে মামলা

নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তাকে বেধড়ক মারধর ও হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগে ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ এরফান সেলিমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘‌‌আজ সোমবার (২৬ অক্টোবর) ভোরে মামলাটি এন্ট্রি করা হয়েছে।’

এরফান সেলিমসহ ৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। এরমধ্যে গাড়িচালক মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অন্যদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে বলেও জানায় পুলিশ।

গতকাল রোববার সন্ধ্যার পর ধানমন্ডির কলাবাগান ক্রসিংয়ের কাছে সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের গাড়ি থেকে কয়েকজন নেমে এসে নৌবাহিনীর এক কর্মকতাকে মারধর করেন। ওই ঘটনায় ধানমন্ডি থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন নৌবাহিনীর ভুক্তভোগী কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম।

প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি জানান, সংসদ সদস্য লেখা একটি গাড়ি থেকে কয়েকজন নেমে মোটর সাইকেলে থাকা একজনকে বেধড়ক মারধর করে।

প্রত্যক্ষদর্শী ওই ব্যক্তি মুঠোফোনে এই ঘটনার ভিডিও ধারণ করেন। ভিডিওতে দেখা যায়, আহত ব্যক্তি নিজেকে নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম বলে পরিচয় দেন। তিনি বলেন, বই কিনে স্ত্রীসহ মোটরবাইকে ফিরছিলেন। ওই গাড়িটি তাঁর মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। তিনি তখনই মোটরসাইকেল থামান এবং নিজের পরিচয় দেন। গাড়ি থেকে নেমে দুই ব্যক্তি তাঁকে মারধর শুরু করেন। মারধরের কারণে তাঁর দাঁত ভেঙে গেছে। তাঁর স্ত্রীর গায়েও হাত দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।


আরও পড়ুন: হাজী সেলিম এমপির গাড়ি থেকে বেরিয়ে নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর


ভিডিওতে আরও দেখা যায়, লেফটেন্যান্ট ওয়াসিমের মুখে রক্ত ও আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়। ভিডিওটিতে দেখা ও ধানমন্ডি থানার সামনে থাকা জব্দ হাজী সেলিমের গাড়ির নম্বর ছিল ঢাকা মেট্টো– ঘ ১১-৫৭৩৬। গাড়িটির  চালককেও থানা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

নৌবাহিনীর মিডিয়া সেল থেকে নিউজ টোয়েন্টিফোরকে জানানো হয়েছে, ঘটনা সত্য, তাদের একজন কর্মকর্তাকে লাঞ্চিত ও মারধর করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে কাজ চলছে। পরে বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য