মিষ্টি, চিপস আর নুডলসের নামে আমরা কী খাচ্ছি?

ফখরুল ইসলাম

মিষ্টি, চিপস আর নুডলসের নামে আমরা কী খাচ্ছি?

মিষ্টি। আপনার হয়তো ভীষণ প্রিয়। কিন্তু কারখানায় তৈরির অবস্থা দেখে প্রিয় থাকবে তো? রাজধানী ও তার আশপাশে চরম অস্বাস্থ্যকর আর রং সোড়ায় বানাচ্ছে মিষ্টি। সবার পছন্দের নুডলস ও চিপস তৈরি অবস্থাও চমকে দিবে যে কাউকে।

মিষ্টি। স্বাদে অনন্য। কাঁচের ঘরে সাজিয়ে রাখা রসে ভেজা রংবেরংয়ের এই মিষ্টি, খেতে ইচ্ছে করবে যে কারো।

কোনাপাড়ায় এই দোকানের ফিটফাট অবস্থার ভেতরটা পাক্কা সদরঘাট। স্যাঁত-স্যাঁতে পরিবেশ ঘর্মাক্ত খোলা হাতে কারিগর বানাচ্ছে মিষ্টি। পাশেই নোংরা আবর্জনায় ভরপুর।

চমক আছে কামরাঙ্গীর চরের এই মিষ্টি কারখানায়। অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে এই মিষ্টিগুলোই বানানো হয়েছে পাউডার দুধের সাথে সোডা মিশিয়ে। একটু খুঁজতেই বেরিয়ে এলো, বস্তাভর্তি নিম্নমানের গুড়ো দুধ সোডা ও রং। এসব দিয়েই তৈরি স্বাদের, শখের মিষ্টি।

পাশের আরেক কারখানায় তো যাচ্ছে তাই অবস্থা। কিন্তু মালিক বেশ মাস্তান গোছের। স্যাঁতস্যাঁতে,  অন্ধকার,ঘরে তৈরি করছে মিষ্টি। আছে পোকামাকড়ও। এসব নিয়ে কারখানা মালিককে প্রশ্ন করতে চটে যান তিনি।

এবার গন্তব্য চিপসের কারখানায়। মাতুয়াইলের গ্যাস রোডে কারখানার বাহিরে তালা ঝুলিয়ে ভেতরে কাজ চলছে। অনেক চেস্টার পর ভেতরে ঢুকতেই চোখে পড়ে অস্বাস্থ্যকর ছবি।

আটার সঙ্গে রং সোড়া ও হাইড্রোস মিশিয়ে চিপসের কাঁচামাল তৈরি করছে কর্মীরা। পরে তা মেশিনে দিলে বের হচ্ছে,  চিপস। সেই ভেজা চিপস মেশিন থেকে গিয়ে পড়ছে মেঝেতে। এসবই আবার পাশের রুমে ধুলোবালিতে ঠাসা মেঝেতে শুকাচ্ছে। আছে পা এর ব্যবহারও।

অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে এই মিষ্টিগুলোই বানানো হয়েছে পাউডার দুধের সাথে সোডা মিশিয়ে। একটু খুঁজতেই বেরিয়ে এলো, বস্তাভর্তি নিম্নমানের গুড়ো দুধ সোডা ও রং। এসব দিয়েই তৈরি স্বাদের, শখের মিষ্টি।

পাশের আরেক কারখানায় তো যাচ্ছে তাই অবস্থা। কিন্তু মালিক বেশ মাস্তান গোছের। স্যাঁতস্যাঁতে,  অন্ধকার,ঘরে তৈরি করছে মিষ্টি। আছে পোকামাকড়ও। এসব নিয়ে কারখানা মালিককে প্রশ্ন করতে চটে যান তিনি।

এবার গন্তব্য চিপসের কারখানায়। মাতুয়াইলের গ্যাস রোডে কারখানার বাহিরে তালা ঝুলিয়ে ভেতরে কাজ চলছে। অনেক চেষ্টার পর ভেতরে ঢুকতেই চোখে পড়ে অস্বাস্থ্যকর ছবি।


আরও পড়ুন: নবম-দশম শ্রেণিতে বিভাগ থাকছে না: শিক্ষামন্ত্রী


আটার সঙ্গে রং সোড়া ও হাইড্রোস মিশিয়ে চিপসের কাঁচামাল তৈরি করছে কর্মীরা। পরে তা মেশিনে দিলে বের হচ্ছে,  চিপস। সেই ভেজা চিপস মেশিন থেকে গিয়ে পড়ছে মেঝেতে। এসবই আবার পাশের রুমে ধুলোবালিতে ঠাসা মেঝেতে শুকাচ্ছে। আছে পা এর ব্যবহারও।

একই অবস্থায় কামরাঙ্গীরচরে বানাচ্ছেন নুডলস। শুকানো থেকে প্যাকেটজাত সবক্ষেত্রেই অস্বাস্থ্যকর অবস্থা জনপ্রিয় নুডলস। বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. আব্দুল কাইউম সরকার জানান, মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর এমন কেমিক্যাল খাদ্যে ব্যবহার করলে তা শরীরে জন্য ক্ষতির কারণ।

এসব ভেজালকারীদের আরো কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি বিশেষজ্ঞদের।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য