ঘুষ ছাড়া কাজ হয় না শিবচর ভূমি অফিসে

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

প্রিন্ট করুন printer
ঘুষ ছাড়া কাজ হয় না শিবচর ভূমি অফিসে

ভূমি অফিসের পেশকার লিটন বিশ্বাস

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলা ভূমি অফিসে প্রত্যয়নপত্রসহ বিভিন্ন কাজে গেলে ঘুষ ছাড়া কাজ হয় না, উল্টো হয়রানির শিকার হতে হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

এদিকে মাদারীপুরের শিবচরে ভূমি অফিসের এক পেশকারের ঘুষ লেনদেনের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভিডিওতে দেখা যায়, ভূমি অফিসের পেশকার লিটন বিশ্বাস একজন ভুক্তভোগীর কাছ থেকে অফিস কক্ষেই টাকা নিচ্ছেন। 

এদিকে ভোগান্তি থেকে রক্ষা পেতে এক ভুক্তভোগী লিখিত অভিযোগও দিয়েছে।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, খবির মোল্লা নামে এক ব্যক্তি বনবিভাগের একটি লাইসেন্স পাওয়ার জন্য ভূমি অফিসের প্রত্যয়ন দরকার হয়। দীর্ঘদিন ৩ মাস যাবত প্রত্যয়ন পত্রের জন্য ভূমি অফিসের এ টেবিল থেকে ও টেবিলে ধরনা ধরেও পায়নি প্রত্যয়নপত্র।

প্রত্যয়নের জন্য ভূমি অফিসের সার্টিফিকেট পেশকার লিটন বিশ্বাসের কাছে গেলে তিনি বিভিন্ন অজুহাতে হয়রানি করে ভুক্তভোগী মো. খবির মোল্লাকে। ১০ হাজার টাকা দিলে প্রত্যয়ন পাওয়া যাবে বলে জানায় সার্টিফিকেট পেশকার লিটন বিশ্বাস। কুলকিনার না পেয়ে ভুক্তভোগী এক পর্যায়ে তাকে ৫ হাজার টাকা দেন। 


আরও পড়ুন: পরীমণিকে এবার দেখা যাবে বীরকন্যা প্রীতিলতার চরিত্রে


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভুক্তভোগী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী মুজিববর্ষ উপলক্ষে সকল অফিসে সর্বোচ্চ ভালো সেবা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শিবচর উপজেলার ভূমি অফিসের একজন সার্টিফিকেট পেশকারের দ্বারা হয়রানির শেষ নেই। কোন কাগজপত্র আনতে গেলেই ১০ হাজার ২০ হাজার টাকা করে দিতে হয়। 

অথচ এইসকল সেবা বিনামূল্যে দেওয়ার কথা থাকলেও ভূমি অফিসের কর্মচারীরা গ্রাহকদের নানাভাবে হয়রানি করে যাচ্ছে।

এব্যপারে অভিযুক্ত লিটন বিশ্বাস ঘুষ লেনদেনর বিষয়টি অস্বীকার করেন।

শিবচর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো: রকিবুল হাসান বলেন, ভূমি অফিসে প্রত্যয়নের জন্য কোন টাকা লাগে না।

তিনি আরো বলেন, এ বিষয়ে একজন অভিযোগ দিয়েছিল। পরে তিনি তার অভিযোগ প্রত্যাহর করে নেন। 

শিবচরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো.আসাদুজ্জামান বলেন, এব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য