উলফা গেরিলাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছিল পাকিস্তান!

অনলাইন ডেস্ক

প্রিন্ট করুন printer
উলফা গেরিলাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছিল পাকিস্তান!

ভারতের আসাম রাজ্যের বিচ্ছিন্নতাবাদী গেরিলা সংগঠন ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্টের (উলফা) গেরিলা যোদ্ধাদের পাকিস্তানের মদদে প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো, ভারতের নিরাপত্তাবহিনী সূত্রে এমন তথ্য জানা গেছে। 

উলফার গেরিলারা পাকিস্তানের কাছ থেকে সামরিক প্রশিক্ষণ পেয়েছিল বলে দাবি ওই সূত্রের। উলফা আসামকে ভারতে থেকে বিচ্ছিন্ন করতে গেরিলা যুদ্ধে লিপ্ত ছিল যা বর্তমানে স্তিমিত হয়ে গেছে। 

আরও পড়ুন:


‘ইসরাইলের সঙ্গে চুক্তি করেও নিরাপত্তা আসবে না’


সম্প্রতি উলফার সশস্ত্র গোষ্ঠীর উপ-প্রধান দৃষ্টি রাজখোয়া ভারতের কেন্দ্রীয় নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করে। এর পর পরই ভারতের নিরাপত্তাবাহিনীর সূত্র হতে জানা গেল, উলফার গেরিলা বাহিনীর সাত সদস্যের একটি দলকে প্রশিক্ষণ দিয়েছিল পাকিস্তান। জানা গেছে, ২০০৫ সালে পাকিস্তান এই দলটিকে সামরিক প্রশিক্ষণ প্রদান করেছিল। 

ভারতের নিরাপত্তা বাহিনীর ওই সূত্রের তথ্য থেকে জানা গেছে, উলফার সাত সদস্যের এ গোষ্ঠীর গেরিলাদের জাল পাসপোর্টের ব্যবস্থা করা হয়। দৃষ্টি রাজখোয়ার পাসপোর্টের তথ্যে তাকে শিলংয়ের একজন খাসিয়া বলে উল্লেখ করা হয়। দুই মাসব্যাপী এ প্রশিক্ষণ চলেছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর মিলেছে। প্রশিক্ষণ কার্যক্রমটি হয়েছে আফগানিস্তান সীমন্ত সংলগ্ন পেশোয়ার অঞ্চলে। 

উলফার শক্তি এখন আর নেই। ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের এ বিদ্রোহী সংগঠনটি আসামকে ভারত থেকে বিচ্ছিন্ন করার জন্য বিভিন্ন সহিংস তৎপরতায় লিপ্ত ছিল। কিন্তু ২০১১ সালে সংগঠনটি শান্তি চুক্তি করার মধ্য দিয়ে গেরিলাযুদ্ধের ইতি টানে। যদিও উলফার কিছু নেতা এ চুক্তিকে মেনে নেয়নি। তবে অনেক নেতাই আত্মসমর্পণ করে নিরাপত্তাবাহিনীর কাছে ধরা দিয়েছে। 

সূত্র: জাস্টআর্থ, জিফাইভ, ইকোনমিক টাইমস।

news24bd.tv কামরুল

মন্তব্য