‘পম্পেওর ইসরাইল সফরের সঙ্গে পরমাণু বিজ্ঞানীর হত্যাকাণ্ডের যোগসূত্র রয়েছে’

অনলাইন ডেস্ক

প্রিন্ট করুন printer
‘পম্পেওর ইসরাইল সফরের সঙ্গে পরমাণু বিজ্ঞানীর হত্যাকাণ্ডের যোগসূত্র রয়েছে’

ইসরাইলের সেনা গোয়েন্দা সংস্থার সাবেক পরিচালক আমোস ইয়াদলিন বলেছেন, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সাম্প্রতিক তেল আবিব সফরের সঙ্গে ইরানি পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদে হত্যাকাণ্ডের যোগসূত্র রয়েছে।

ফাখরিজাদে গত শুক্রবার ইরানের রাজধানী তেহরানের অদূরে দামাভান্দ কাউন্টির অবসার্দ এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় শহীদ হন। ইয়াদলিন দুই সপ্তাহ আগে মাইক পম্পেওর ইসরাইল সফরকে ‘অর্থবোধক’ আখ্যায়িত করে বলেন, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিছক বিনোদনের জন্য তেল আবিব সফরে আসেননি।

ইসরাইলের স্বার্থ রক্ষার জন্য আমেরিকার ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়েছে উল্লেখ করে ইয়দালিন বলেন, যে ব্যক্তি ফাখরিজাদেকে হত্যা করার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছে সে একথা জানে যে, ৫৫ দিন পরে হোয়াইট হাউজে এমন এক ব্যক্তি আসবেন ইরানের কথিত হুমকির ব্যাপারে ট্রাম্পের দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে যার মতের মিল রয়েছে।


আরও পড়ুন: ইরানকে উসকানি দিতেই পরমাণু বিজ্ঞানীকে হত্যা: রাশিয়া


এর আগে একটি অজ্ঞাত পশ্চিমা সূত্রের বরাত দিয়ে ইসরাইলের ১২ নম্বর টিভি চ্যানেল খবর দিয়েছিল, শহীদ ফাখরিজাদেকে হত্যা করার জন্য বহুদিন ধরে তেল আবিব চেষ্টা করে আসছিল। ইসরাইলি জ্বালানীমন্ত্রী ইউয়াল ষ্টাইনিতয রোববার বলেছেন, ইরানে  ফাখরিজাদের হত্যাকাণ্ড ইসরাইলের স্বার্থ রক্ষা করেছে।

কয়েক বছর আগে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ইরানকে পরমাণু অস্ত্র তৈরির প্রচেষ্টার দায়ে অভিযুক্ত করতে গিয়ে দাবি করেছিলেন, মোহসেন ফাখরিজাদে তার ভাষায় ইরানের ‘পরমাণু অস্ত্র তৈরির জনক।’ তিনি বলেন, “নামটি মনে রাখবেন। মোহসেন ফাখরিজাদে।”

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য