ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর আত্মহত্যা

কুমিল্লায় নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে জান্নাতুল হাসিন (২৩) নামে এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। মঙ্গলবার বিকালে নগরীর ধর্মসাগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সোমবার তিনি ঢাকা থেকে বাড়ি যান।

জান্নাতুল হাসিন ধর্মসাগর পশ্চিম পাড়ের বাসিন্দা ইদ্রিস মেহেদীর মেয়ে। তিনি বাংলাদেশ ইউনিভারসিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলোজি (বিইউবিটি) বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যবসা প্রশাসনে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন।

আরও পড়ুন: 


বুলেট ট্রেনে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাওয়া যাবে ৫৫ মিনিটেই!

প্রতিশ্রুতি দিয়ে অভিনেত্রীর সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক, কাস্টিং ডিরেক্টর গ্রেপ্তার

'মৃত' ব্যক্তির চিৎকারে ভয়ে পালালেন মর্গের কর্মীরা! 

হিন্দু সেজে পুণ্যস্নানে গিয়ে ৫ যুবক ধরা


নিহত ওই ছাত্রীর পরিবার জানায়, ‘সোমবার ঢাকা থেকে কুমিল্লার বাসায় আসেন হাসিন। কোনো কারণে তার মন খারাপ ছিল। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছে কম। মঙ্গলবার বিকালে শ্যাম্পু কেনার কথা বলে বাসা থেকে বের হয় হাসিন। পরে বাড়ির পাশের গোল্ড সিলভার হোমসের নির্মাণাধীন ৯তলা আবাসিক ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করে।’

নির্মাণাধীন ওই ভবনটির পাশেই ১০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়। কাউন্সিলর মঞ্জুর কাদের মনি বলেন, ‘আমি অফিসে বসে ছিলাম। হঠাৎ জোরালো আওয়াজ শুনতে পাই। বেরিয়ে দেখি একটি মেয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে।’

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল হক বলেন, ‘অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে ধারণা করা হচ্ছে জান্নাতুল হাসিন আত্মহত্যা করেছেন। তবে এ ঘটনার পেছনে অন্য কোনো কারণ আছে কি না তা খতিয়ে দেখছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

news24bd.tv কামরুল

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ঝিনাইদহে তিন কেজি গাঁজাসহ আটক ৩

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহে তিন কেজি গাঁজাসহ আটক ৩

ঝিনাইদহে অভিযান চালিয়ে জোবায়ের ও ইনতাজ আলী নামে দুই গাজা পাচারকারীকে আটক করেছে ডিবি পুলিশের একটি দল। শনিবার ঝিনাইদহ চুয়াডাঙ্গা সড়কের ভেটেরিনারি কলেজ এলাকা থেকে তাদের গাঁজাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। 

তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হয় দুই কেজি গাঁজা। জোবায়ের চুয়াডাঙ্গার আনোয়ারপুর গ্রামের আব্দুল মালেক ও ইনতাজ আলী দর্শনার হঠাৎপাড়ার আব্দুল হামিদের ছেলে।


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বাক্‌স্বাধীনতা সুরক্ষিত রাখতে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বান

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা


এদিকে মহেশপুরের মথুরানগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঝিনাইদহ র‌্যাব কোটচাঁদপুরের লক্ষিকুন্ডু গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে ইকরাইল মণ্ডলকে আটক করে। তার কাছ থেকে এক কেজি গাজা উদ্ধার করা হয়।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

হেলিপ্যাডের জায়গা দখল করে ট্রাকস্ট্যান্ড

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

হেলিপ্যাডের জায়গা দখল করে ট্রাকস্ট্যান্ড

নাটোরের গুরুদাসপুর পৌর সদরের বিলচলন শহীদ সামসুজ্জোহা কলেজের সামনে ১৯৮৮ সালের বন্যার পর ক্ষতিগ্রস্থদের খোঁজখবর নিতে হেলিপ্যাড তৈরি করেছিলেন তৎকালীন এরশাদ সরকার। কিন্তু সঠিক রক্ষণাবেক্ষণ ও অবহেলার কারণে হেলিপ্যাডটি দখল করেছে প্রভাবশালীরা। 

বর্তমানে উপজেলা স্টেডিয়াম করার জন্য সাইনবোর্ড টানানো হলেও সেখানে গড়ে উঠেছে ট্রাকস্ট্যান্ড। সেই সাথে স্থানীয় একটি অসাধু চক্র প্রকাশ্যে হেলিপ্যাডের মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে। তবুও যেন সরকারি এই গুরুত্বপূর্ণ জায়গাটি দেখার কেউ নেই।

পৌর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মনি বিশ্বাস, শহীদুল ইসলাম, শাইনুল শেখ, মাহাতাব প্রামানিক, বাবু মল্লিক, বিল্টু শেখ, মইনুল ইসলামসহ অনেকে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, দেশে এখন উন্নয়নের জোয়ার বইছে। অথচ গুরুদাসপুরের হেলিপ্যাডের জায়গার কোনো উন্নয়ন হলো না। জায়গাটি রক্ষার্থে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা হ্যালিপ্যাডটিতে স্টেডিয়ামের জন্য নির্ধারিত স্থান হিসেবে সাইনবোর্ড বসালেও জায়গাটি এখন ট্রাকস্ট্যান্ড ও ট্রাক শ্রমিকদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। 

এমনকি হেলিপ্যাডের মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে স্থানীয় লোকজন। নিয়ন্ত্রণহীন এই হেলিপ্যাডে এখন নিয়মিত মাদক সেবনের আড্ডাও চলে। এ বিষয়ে প্রশাসন ব্যবস্থা নিচ্ছি বললেও ব্যবস্থা নেয়না। এভাবে সময়ক্ষেপণ হতে থাকলে হয়ত হেলিপ্যাডের অস্তিত্বই খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাই জায়গাটি দখলমুক্ত করতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানিয়েছে স্থানীয় সচেতন মহল।

এ ব্যাপারে স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর শেখ সবুজ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে হেলিপ্যাডের এই দুর্দশা দেখে আসছি। সঠিক রক্ষানাবেক্ষণের অভাবে জায়গাটি প্রায় বিলীন হওয়ার পথে। এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে সেখানে একটি শিশু পার্ক বা বিনোদন কেন্দ্র স্থাপনের দাবি জানান তিনি।


মশা মারতে গিয়ে পুড়ে গেলেন মা ও দুই মেয়ে

আস্থা ভোটে জিতলেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

চিকিৎসাপত্র ছাড়াই ওষুধ কিনছেন ক্রেতারা, রোগী দেখছেন ফার্মেসি মালিকরা

দেশে বাজারে আবারও কমছে স্বর্ণের দাম


উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তমাল হোসেন বলেন, ঘটনাটি আমাকে জানিয়েছেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে হেলিপ্যাডের সরকারি জায়গাটির ব্যাপারে এসিল্যান্ডকে প্রতিবেদন তৈরির দায়িত্ব দিয়েছি।

সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আবু রাসেল বলেন, হেলিপ্যাডের মাটি কাটা আগে বন্ধ করব। তারপর ট্রাকস্ট্যান্ডের ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালালো রোহিঙ্গা নারী

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালালো রোহিঙ্গা নারী

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল থেকে কর্তব্যরত তিন পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে স্বামীকে রেখে পালিয়েছে জেসমিন বেগম (২২) নামে এক রোহিঙ্গা নারী 

সে ভাসানচরের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রক্লাস্টার নং ২৭, হাউজ-বি-থ্রি এর মো.সাইফুল ইসলামের স্ত্রী। শনিবার ভোর রাতে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটে। 

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম বলেন একজন রোহিঙ্গা নারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে পালিয়ে গেছে বলে শুনেছি। তবে এ বিষয়ে এখন আমি বিস্তারিত কিছু বলতে পারবোনা।


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

গান দিয়ে করোনা ঠেকানোর ব্যাতিক্রম উদ্যোগ

দেশে বাজারে আবারও কমছে স্বর্ণের দাম


অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) দীপক জ্যোতি খীসা গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, গত ২ ফেব্রুয়ারি রাত ৩টা ৩০ মিনিটের দিকে গলায় টিউমার অপারেশন করতে স্বামী এবং শিশু সুমাইয়া আক্তারকে (৬) সাথে নিয়ে রোহিঙ্গা নারী জেসমিন নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে ভর্তি হয়। 

পরে শনিবার ভোর রাতে শিশু বাচ্চাকে প্রসাব করানোর কথা বলে বাথরুমে নিয়ে যায়। এক পর্যায়ে বাথরুমে গিয়ে কর্তব্যরত পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে তার স্বামীকে রেখে শিশু বাচ্চাকে নিয়ে পালিয়ে যায় রোহিঙ্গা নারী।  

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করটিয়া সরকারি সা’দত কলেজে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

টাঙ্গাইলের করটিয়া সরকারি সা’দত কলেজের ছয়টি বিভাগের শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকালে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের শুরুতেই একটি র‌্যালি বের করা হয়। দুপুরের খাবার শেষে আয়োজন করা হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও র‌্যাফেল ড্র এর। 

১৯৯৫ সালে টাঙ্গাইলের করটিয়া সরকারি সা’দত কলেজের ছয়টি বিভাগ থেকে ১৮২জন সহপাঠী ছাত্র-ছাত্রী পরিষদের উদ্যোগে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 


মশা মারতে গিয়ে পুড়ে গেলেন মা ও দুই মেয়ে

আস্থা ভোটে জিতলেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

চিকিৎসাপত্র ছাড়াই ওষুধ কিনছেন ক্রেতারা, রোগী দেখছেন ফার্মেসি মালিকরা

দেশে বাজারে আবারও কমছে স্বর্ণের দাম


এতে অংশ নিয়েছেন ৯৫’ ব্যাচের রাষ্ট্রবিজ্ঞান, হিসাব বিজ্ঞান, ইতিহাস, অর্থনীতি, বাংলা ও প্রাণী বিদ্যা বিভাগের ১৮২জন শিক্ষার্থীসহ তাদের পরিবারের সদস্যরা।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে কৃষকের রহস্যজনক মৃত্যু

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে কৃষকের রহস্যজনক মৃত্যু

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চরএলাহী ইউনিয়ন থেকে মুকবুল আহমেদ (৪৩) নামে কৃষকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। সে দক্ষিণ চরএলাহী গ্রামের ৫নং ওয়ার্ডের হাজী ফকির আহমদের ছেলে। পরিবারের দাবি এটি হত্যাকাণ্ড। তবে পুলিশ তাৎক্ষণিক মৃত্যুর কোন কারণ জানাতে পারেনি।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

জানা যায়, মুকবুল আহমেদ তার খামার ঘরে একা ছেলেন। তার স্ত্রীসহ পরিবারের সদস্যরা ৩দিন আগে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বিয়েতে যায়। শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পাশ্ববর্তী এক নারী মুকবুল আহমেদকে ডাকতে গেলে ঘর থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে লোকজন ডেকে জড়ো করেন।


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বাক্‌স্বাধীনতা সুরক্ষিত রাখতে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বান

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা


এ সময় স্থানীয়রা ঘরে ঢুকে চৌকির উপর মুকবুলের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। স্থানীয়দের ধারণা একদিন আগে তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। পরিবারের দাবি এটি হত্যাকাণ্ড। তবে পুলিশ তাৎক্ষণিক মৃত্যুর কোন কারণ জানাতে পারেনি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর