বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে মাশরাফিকে নিয়ে কাড়াকাড়ি

অনলাইন ডেস্ক

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে মাশরাফিকে নিয়ে কাড়াকাড়ি

চলমান বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে মাশরাফি বিন মর্তুজাকে দলে নিতে ফরচুন বরিশাল ও জেমকন খুলনার সঙ্গে এবার দৌঁড়ে নেমেছে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীও। করোনা ও ইনজুরি কাটিয়ে এরই মধ্যে প্রস্তুতি শুরু করেছেন মাশরাফী।

রাজশাহীর ম্যানেজার হান্নান সরকার বলেন, ‘মাশরাফিকে পাওয়ার বিষয়ে বিসিবি থেকে এখনো কোনো নির্দেশনা আমরা পাইনি। তবে তাঁকে দলে পেতে আমরা বোর্ডের কাছে আবেদন করেছি। এখন বোর্ডই সিদ্ধান্ত নেবে।’

এদিকে বোর্ড জানিয়েছিল একাধিক দল যদি কোনো খেলোয়াড়কে দলে নিতে চায়, সে ক্ষেত্রে লটারির মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘টুর্নামেন্টে খেলতে হলে আগে মাশরাফিকে ফিটনেস পরীক্ষা দিতে হবে। সে অনুশীলন শুরু করেছে।’

বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফি সর্বশেষ প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলেছেন গত মার্চে। ফিটনেস না থাকায় চলমান বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের প্লেয়ার্স ড্রাফটে ছিলেন না তিনি। তবে সম্প্রতি অনুশীলনে ফিরেছেন তিনি।


আরও পড়ুন: 

চাঁদে পতাকা স্থাপন করল চীন

মাতৃত্বকালীন ছুটি নিয়ে নতুন নিয়ম করলো ফিফা

চীনে কয়লা খনিতে দুর্ঘটনায় নিহত ১৮

বাবর আজমের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

‘বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে কথা বলবেন আমরা কি আপনাদের চুমো দেব?’


মাশরাফিকে দলে নিতে আগ্রহী খুলনার ম্যানেজার নাফিস ইকবাল বলেন, ‘মাশরাফি এমন একটা নাম, এমন একজন প্লেয়ার, তাঁকে যে কেউই দলে নিতে চাইবে। আমরা তাঁকে দলে নিতে আগ্রহী। তবে এখন দেখতে হবে, মাশরাফিকে পাওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু। তাঁর ফিটনেসের কী অবস্থা, সেটাও জানতে হবে আমাদের।’

খুলনার এই কর্মকর্তা আরো বলেন, ‘মাশরাফির নাম ড্রাফটে ছিল না। একাধিক দল যদি আগ্রহ দেখায় তখন বোর্ডের নীতিমালা কী হবে, সেটা বোর্ড সিদ্ধান্ত নেবে। আমরা আমাদের আগ্রহের কথা জানিয়েছি।’

ফরচুন বরিশালের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমরা শুরু থেকে জানতাম যে মাশরাফি ফিট ছিল না। ড্রাফটের দিন বলা হয়েছিল মাশরাফি ফিট হলে পাঁচটি দলই চাইলে তাঁকে দলে নেওয়া যাবে। গত পরশু আমরা আবেদন করেছি তাঁকে দলে চেয়ে। আশা করি, আমরা তাঁকে পাব।’

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

তামিমার পাসপোর্ট ও ডিভোর্স পেপারের ঠিকানা ভুয়া!

অনলাইন ডেস্ক

তামিমার পাসপোর্ট ও ডিভোর্স পেপারের ঠিকানা ভুয়া!

ক্রিকেটার নাসির ও তামিমার বিয়ে বর্তমান সময়ে আলোচিত বিষয় হলেও এর তেমন কিছুই জানেন না তামিমার নিজ গ্রামের মানুষ। তামিমা সুলতানার পাসপোর্ট ও আগের স্বামী রাকিবকে দেওয়া ডিভোর্সের কাগজে লেখা পোস্ট অফিস ও যে গ্রামের নাম লেখা রয়েছে টাঙ্গাইল সদরে ওই ঠিকানার কোনও অস্তিত্ব নেই।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তামিমার বাড়ি টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার লোকেরপাড়া গ্রামে। ঘাটাইল উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার পশ্চিম দক্ষিণে লোকেরপাড়া গ্রামের অবস্থান। সেখানে গিয়ে দেখা মিলে তামিমার চাচা জাহিদুর রহমান বিপ্লবের। কথা হয় তার সঙ্গে। তিনি জানান, তারা চার ভাই। তামিমার বাবা সহিদুর রহমান স্বপন সবার বড়। তিনি ঢাকায় একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করতেন। মা সুমী আক্তার। এলাকাবাসী তামিমাকে চিনেন শবনম নামে। এটা তার ডাক নাম।

চাচা বিপ্লব আরও জানান, গ্রামে তামিমার খুব একটা আসা-যাওয়া নেই। বছর দুয়েক আগে একবার এসেছিল তামিমা। তবে ওর বাবা মাঝে মাঝেই আসেন। বড় হয়েছে টাঙ্গাইল শহরে। লেখাপড়া, টাঙ্গাইল বিন্দুবাসিনী সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও কুমুদিনী সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেছেন। একই কলেজে ভূগোল বিষয়ে অনার্স অধ্যয়নরত আছে। সম্রাট (২৫) ও অভি (১৭) নামে তার ছোট দুই ভাই রয়েছে। রাকিব তামিমার প্রেমের বিয়ের শুরুতে ওর মা বাবা মেনে না নিলেও পরে মেনে নেন।


কারাবন্দি অবস্থায় লেখক মুশতাক মৃত্যুতে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

বগুড়ায় সকাল ও দুপুরের সড়ক দুর্ঘটনায় ঝরল ৬ প্রাণ

যা দেখে নাসিরকে ভালোবেসেছিলেন তামিমা


ডিভোর্সের বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা জানি পারিবারিকভাবেই তামিমা রাকিবকে তালাক দিয়েছে। পরে নাসিরকে বিয়ে করেছে। নাসির তামিমার বিয়ে নিয়ে এতো কিছু হয়ে গেলেও এখনও তেমন কিছুই জানেন না তার নিজ গ্রামের মানুষ।

এদিকে তামিমা তার পাসপোর্টে ঠিকানা দিয়েছেন গ্রাম লোকেরপাড়া, পোস্ট অফিস সিঙ্গুরিয়া টাঙ্গাইল সদর। প্রকৃতপক্ষে এই ঠিকানার কোনো অস্তিত্ব নেই টাঙ্গাইল সদরে। ওই ঠিকানাটি ঘাটাইল উপজেলায়।

পাসপোর্ট ও ডিভোর্স কাগজে ভুল ঠিকানা ব্যবহারের বিষয়ে মোবাইল ফোনে তামিমার বাবা সহিদুর রহমান স্বপন বলেন, যখন তামিমার এয়ারলাইনসে চাকরি হয় তখন জরুরি ভিত্তিতে পাসপোর্ট করতে হয়। সে সময় হয়তো ভুল হয়ে থাকতে পারে।

তামিমার ভাই সম্রাট বলেন, ২০১৬ সালে রাকিবকে তামিমা তালাক দিয়েছেন এবং পাসপোর্টটা রি-ইস্যু করা হয়েছে ২০১৮ সালে। তালাকের প্রমাণপত্রও রয়েছে আমাদের কাছে। তারপরও তাকে হেনস্তা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, তামিমা সুলতানা ঢাকা থেকে পাসপোর্ট গ্রহণ করেছেন। পাসপোর্টটি ইস্যু হয়েছে পাসপোর্ট অধিদপ্তরের ডেপুটি ডিরেক্টর নাদিরা আক্তারের স্বাক্ষরে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ফেসবুকে নাসিরের সতর্ক বার্তা

অনলাইন ডেস্ক

ফেসবুকে নাসিরের সতর্ক বার্তা

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি, বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে কেবিন ক্রু তামিমা তাম্মিকে বিয়ে করেন জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার নাসির হোসেন। এরপর থেকেই শুরু হয় নানা বিতর্ক।

বিষয়টি খোলাসা করতে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করেন নাসির-তামিমা। সংবাদ সম্মেলনে তাদের আইনজীবীও উপস্থিত ছিলেন।

এবার নিজের ও স্ত্রীর ফেসবুক প্রোফাইল নিয়ে ভক্তদের সতর্ক করে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন নাসির।

নিউজ টোয়েন্টিফোর বিডি ডট টিভি-এর পাঠকদের জন্য সেই স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো। 

তিনি লিখেছেন- আমার প্রিয় শুভাকাঙ্ক্ষী, শুভার্থী ও ভক্তবৃন্দ, আপনাদের  সদয় অবগতির জন্য আমি পুনরায় বিশেষভাবে জানাচ্ছি যে, আমার  এই ফেসবুক পেইজ ব্যতীত অন্য কোন ফেসবুক অ্যাকাউন্ট/ প্রোফাইল/ পেইজ নেই।  আমার স্ত্রী তামিমা সুলতানারও কোন  ফেসবুক অ্যাকাউন্ট/ প্রোফাইল/ পেইজ নেই।  অত্র  ফেসবুক পেইজটিই  আমার অফিশিয়াল এবং একমাত্র  ফেসবুক পেইজ।  এই ফেসবুক  পেইজ ব্যতীত অন্য যে সমস্ত  ফেসবুক অ্যাকাউন্ট/ প্রোফাইল/ পেইজ  নকলভাবে/ জালিয়াতির মাধ্যমে আমার অথবা আমার স্ত্রীর নামে তৈরি করা হয়েছে বা বর্তমানে বিদ্যমান আছে সেইগুলি সমস্তই নকল/জাল, যার  প্রকৃত উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রতারণার মাধ্যমে আমাদের লাঞ্ছিত ও অপদস্ত করা।  আমাদের  নামে  সৃজিত  সেই সমস্ত  ফেসবুক অ্যাকাউন্ট/ প্রোফাইল/ পেইজ থেকে যেসমস্ত  বিভ্রান্তিকর  তথ্য/ স্ট্যাটাস  আপনাদের কাছে প্রকাশ/শেয়ার করা হচ্ছে  তার সমস্তই  মিথ্যা, বানোয়াট এবং ভিত্তিহীন। 

এমতাবস্থায় আমি আমার সকল বন্ধু, ভক্ত এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের  অনুরোধ  জানাচ্ছি যে আপনারা  অনুগ্রহপূর্বক  সেই সমস্ত নকল/জাল ফেসবুক অ্যাকাউন্ট/ প্রোফাইল/ পেইজ থেকে প্রদানকৃত  বিভ্রান্তিকর তথ্য/ স্ট্যাটাস  বিশ্বাস করবেন না এবং  উক্ত বিভ্রান্তিকর তথ্য/ স্ট্যাটাস  শেয়ার করবেন না। 


বিএনপির সমাবেশ ঘিরে খুলনায় পরিবহন চলাচল বন্ধ

১৩৮ বছরের পুরনো পরিত্যক্ত আদালত ভবনে চলে বিচার কাজ

নাইজেরিয়ায় হোস্টেল থেকে কয়েকশ ছাত্রীকে অপহরণ

কুয়েটে শর্টপিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু


এই ফেসবুক পেইজ  ব্যতীত আমাদের  নামে সৃজিত সেই সমস্ত নকল/জাল ফেসবুক অ্যাকাউন্ট/ প্রোফাইল/ পেইজ থেকে প্রকাশকৃত/পরিবেশনকৃত কোন বিভ্রান্তিকর, মিথ্যা, বানোয়াট এবং ভিত্তিহীন তথ্যের জন্য আমি অথবা আমার স্ত্রী দায়ী নই। আমি অথবা আমার স্ত্রী যদি কোন তথ্য/সংবাদ আপনাদের নিকট প্রকাশ/পরিবেশন করতে  চাই তবে আমরা এই ফেসবুক পেইজ এর মাধ্যমে অথবা গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার প্রদানের মাধ্যমে তা প্রকাশ করবো। 

এই  সময়ে আমাদের পাশে থাকার জন্য এবং আমাদের সহায়তা করার জন্য আমি আমার সকল ভক্ত, বন্ধু, শুভাকাঙ্ক্ষীদের নিকট আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ। আমি আশা করি আপনারা   সবাই আমাদের পাশে থাকবেন  এবং  আমাদের প্রতি আপনাদের ভালবাসা এবং সমর্থন অব্যাহত রাখবেন।  সবাইকে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন ইউসুফ পাঠান

অনলাইন ডেস্ক

ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন ইউসুফ পাঠান

সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে দিলেন ৩৮ বছর বয়সী অলরাউন্ডার ইউসুফ পাঠান। ২০০৭ টি-টোয়েন্টি এবং ২০১১ সালে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য ছিলেন ইউসুফ। তিনি সম্পর্কে প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার ইরফান পাঠানের দাদা।

শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অবসরের ঘোষণা দেন তিনি।
 
ইউসুফ পাঠান নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে লেখেন, ‘আমি সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিচ্ছি। আমাকে সমর্থন ও ভালোবাসার জন্য আমার পরিবার, বন্ধু, সমর্থক, দল এবং পুরো দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানায়। আামি নিশ্চিত, ভবিষ্যতেও আমাকে চলার পথে আপনারা সাহস যোগাবেন। ’ 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

যা দেখে নাসিরকে ভালোবেসেছিলেন তামিমা

অনলাইন ডেস্ক

যা দেখে নাসিরকে ভালোবেসেছিলেন তামিমা

ভালোবেসে বিয়ে করেছেন বাংলাদেশের জাতীয় দলের ব্যাড বয় খ্যাত ক্রিকেটার নাসির হোসেন। বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে তামিমা তাম্মির সঙ্গে জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছেন ক্রিকেটার নাসির।

অভিযোগ উঠেছে আগের স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরের সঙ্গে বিয়ে করেছেন স্ত্রী তামিমা তাম্মি। এরপর থেকেই নাসির-তামিমা বিতর্ক তুঙ্গে। সব মহলেই কম বেশি আলোচনা হচ্ছে এ বিষয় নিয়ে। এ নিয়ে বুধবার মুখ খুলেছেন নাসির ও তামিমা। রাকিবের সঙ্গে হওয়া ডিভোর্সের কাগজও তামিমা দেখিয়েছেন গণমাধ্যমকে।

সংবাদ সম্মেলনে শেষেও সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন নাসির-তামিমা। যে কারণে নাসিরের প্রেমে পড়েন সেটিও তামিমা জানান। তামিমা বলেন, “নাসিরকে নিয়ে অনেকে অনেক কথাই বলে থাকে। কিন্তু ওকে (নাসিরকে) যদি আবিষ্কার করা হয়, সে খুবই ভালো একজন মানুষ। ওকে যদি আবিষ্কার করা হয়, ও একদম পুরো বাচ্চাদের মতো। তার মাঝে কোনো জঠিলতা নেই। ঘুরিয়ে পেছিয়ে কোনো কিছু নেই।”

আরও পড়ুন:


নিজের ৭ কোটি টাকা বেতন কমিয়ে বৃদ্ধি করলেন কর্মীদের বেতন

‘ফ্রান্সের অস্ত্র বিক্রির কারণে বিপর্যস্ত ইয়েমেন’

বরিশালে ট্রাক চাপায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত

লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া কাল


তামিমা আরো বলেন, “নাসির শো-অফ করেনা। ও রাস্তা দিয়ে হেটে যাওয়ার সময় একটা রিক্সাওয়ালার সাথে বসে কথা বলা শুরু করে দেয় যেটা সাধারণ সেলিব্রেটিরা করে না কখনো। ওই লোকের সাথে কথা বলা যাবেনা, এটা করা  যাবেনা, ওঠা করা যাবেনা- ওর ভেতরে সেগুলো কোনো কিছুই নেই।”

ব্যাট ও বলে বাংলাদেশকে অনেক ম্যাচই জিতিয়েছেন নাসির। তবে বর্তমানে নাসির জাতীয় দলের বাইরে। নাসিরের কাছে তামিমার চাওয়া নাসির যেন বাংলাদেশের হয়ে অন্তত একটা ম্যাচ হলেও খেলেন।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

টেষ্টে দ্বিতীয় দ্রুততম ৪০০ অশ্বিনের!

অনলাইন ডেস্ক

টেষ্টে দ্বিতীয় দ্রুততম ৪০০ অশ্বিনের!

আহমেদাবাদের স্পিন স্বর্গে বল হাতে আলো ছড়ালেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। দুর্দান্ত বোলিংয়ে গড়লেন দারুণ কীর্তি। টেস্ট ইতিহাসে দ্বিতীয় দ্রুততম বোলার হিসেবে স্পর্শ করলেন ৪০০ উইকেটের মাইলফলক। বৃহস্পতিবার মোতেরায় ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে জোফরা আর্চারকে আউট করেই মাইলফলক স্পর্শ করেন অশ্বিন।

মাত্র ৭৭টি টেস্টে ৪০০ উইকেট নিলেন ভারতীয় এই অফ স্পিনার। তার চেয়ে কম টেস্ট খেলে ৪০০ উইকেটের মাইলফলক টপকেছিলেন মুত্তিয়া মুরালিধরন।

কিংবদন্তি এই শ্রীলঙ্কান অফ স্পিনার মাত্র ৭২টি টেস্টে এই রেকর্ড গড়েছিলেন। বিশ্বের দ্বিতীয় দ্রুততম বোলারই নন শুধু, একই সঙ্গে ভারতীয় চতুর্থ বোলার হিসেবে চারশো উইকেটের ল্যান্ডমার্ক ক্রস করেন অশ্বিন।


অভাব দুর হবে, বাড়বে ধন-সম্পদ যে আমলে

সূরা কাহাফ তিলাওয়াতে রয়েছে বিশেষ ফজিলত

করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে বাধা নেই ইসলামে

নামাজে মনোযোগী হওয়ার কৌশল


তামিল এই অফ-স্পিনারের আগে টেস্ট ক্রিকেটে আরও তিন ভারতীয় চারশো উইকেটের গণ্ডি পেরিয়েছেন। তারা হলেন অনিল কুম্বলে (৬১৯), কপিল দেব (৪৩৪) এবং হরভজন সিং (৪১৭)। তবে তারা সবাই অশ্বিনের চেয়ে বেশি টেস্ট খেলেছেন। শুধু তাই নয়, একই সঙ্গে অশ্বিন পঞ্চম ভারতীয় হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৬০০ উইকেটের মাইলফলক টপকালেন। তার আগে এই মালইস্টোন টপকেছেন কুম্বলে (৯৫৬), হরভজন (৭১১), কপিল (৬৮৭), জহির খান (৬১০)।

অশ্বিনের টেস্ট অভিষেক হয়েছিল ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দিল্লিতে। প্রথম টেস্টে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হওয়ার পাশাপাশি সিরিজের সেরা পুরস্কার জিতেছিলেন ভারতীয় এই অফ-স্পিনার। শুধু চারশো উইকেটই নয়, টেস্ট ক্রিকেটে দ্রুততম ২৫০, ৩০০, ৩৫০ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব রয়েছে অশ্বিনের।

গোলাপি বল টেস্টের প্রথম ইনিংসে তিনটি এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেট নেন অশ্বিন। তার ও অক্ষরের স্পিনের সাঁড়াসি আক্রমণে ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসে ১১২ এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ৮১ রানে অলআউট হয়ে যায়।

এই মাইলফলক ছোঁয়া বিশ্বের ষষ্ঠ স্পিনার ও বোলারদের মধ্যে ১৬তম অশ্বিন।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর