মামুনুল হকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রবিরোধী মামলা করতে আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক

মামুনুল হকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রবিরোধী মামলা করতে আবেদন

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভেঙে ফেলাসহ অপমানজনক, অগ্রহণযোগ্য এবং ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য ও কার্যকলাপের দায়ে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নেতা মাওলানা মামুনুল হক ও জুনায়েদ বাবুনগরী গংদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদোহের মামলার অনুমতি চেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন জানানো হয়েছে।

আজ বিকেলে ৩টার দিকে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. জিশান মাহমুদ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বরাবর এই আবেদন জানান।

আইনজীবী ইশান মাহমুদ বলেন, ফৌজদারী কার্যবিধি আইনের ১৯৬ ধারার বিধান মোতাবেক রোষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগ আমলে নেওয়ার পূর্বশর্ত হিসেবে সরকারের অনুমোদন প্রয়োজন। এজন্যই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাবর আবেদন করা হয়েছে।

আবেদনে বলা হয়েছে, গত ১৩ নভেম্বর খেলাফত মজলিসের নেতা মাওলানা মামুনুল হক ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য তৈরির তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেছিলেন, ভাস্কর্য নির্মাণের পরিকল্পনা থেকে সরে না দাঁড়ালে তিনি আরেকটি শাপলা চত্বরের ঘটনা ঘটাবেন এবং ওই ভাস্কর্য ছুঁড়ে ফেলবেন।


আরও পড়ুন: 

ভাস্কর্য নিয়ে স্ট্যাটাস, ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

দিনের বেলায় আসিস, তোদের ঈমানি শক্তি দেখবো: ছাত্রলীগ সভাপতি

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনায় ৪ জন আটক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কুষ্টিয়ায় বিএনপি অফিসে হামলা সরকারের নীল নকশার অংশ: ফখরুল

সব জেলায় আন্টিজেন টেস্ট চালু করা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু বিরোধী কোনো অপশক্তিকে ছাড় দেওয়া হবে না: কুষ্টিয়ায় হানিফ

লাইনচ্যুত বগি থেকে তেল হরিলুট


অন্যদিকে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী গত ২৭ নভেম্বর সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এক মাহফিলে বলেছেন, কোনও ভাস্কর্য তৈরি হলে তা টেনে হিঁচড়ে ফেলে দেওয়া হবে। তাদের ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য গত কয়েকদিন যাবত বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে ব্যাপকভাবে প্রকাশিত ও প্রচারিত হয়ে আসছে। তাদের ধৃষ্টতাপূর্ণ বক্তব্যের রেশ ধরে তাদের অনুসারীরা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংবিধান স্বীকৃত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কুষ্টিয়ায় নির্মাণাধীন ভাস্কর্য গত ৪ ডিসেম্বর রাতের আঁধারে ভাস্কর্যের ডান হাত ও পুরো মুখমণ্ডলের অংশ বিশেষ ভেঙে ফেলেছে।

আবেদনে আরও বলা হয়েছে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংবিধান স্বীকৃত জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে আঘাত হানা বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের সামিল। মাওলানা মামুনুল হক ও জুনায়েদ বাবুনগরীদের প্রত্যক্ষ মদদে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে আঘাত হেনেছে দুর্বৃত্তরা। যা বাংলাদেশের জনগণের প্রতি অপমানজনক, অগ্রহণযোগ্য এবং তাদের এইরূপ ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য এবং কার্যকলাপ বাংলাদেশ সরকারের প্রতি বিরাগ ও ঘৃণা সৃষ্টির অশুভ অভিপ্রায়ে করা হয়েছে। বিধায় মাওলানা মামুনুল হক গং’রা দণ্ডবিধির ১২৩, ১২৪ক এবং ৫০৫ ধারার আওতায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। যা রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে তথা স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ও আদর্শে উজ্জীবিত দেশ প্রেমিক বাঙালি হিসেবে মাওলানা মামুনুল হক গংদের বিরুদ্ধে উপরোক্ত ধারায় মামলা করতে আগ্রহী।

তাই উক্ত আবেদনে ফৌজদারি কার্যবিধি আইনের ১৯৬ ধারা বিধান মোতাবেক রাষ্ট্রদোহিতার অভিযোগ আমলে নেওয়ার পূর্বশর্ত হিসেবে সরকার কর্তৃক অনুমোদনের প্রয়োজন থাকায় মাওলানা মামুনুল হক গংদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করার জন্য আইনজীবী মো. জিশান মাহমুদের অনুকূলে অনুমোদন প্রদানের অনুরোধ জানানো হয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

৩ বছর পর রহস্য উদঘাটন

১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

অনলাইন ডেস্ক

১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

দীর্ঘ অনুসন্ধান শেষে দায়ী মেরাজুল ইসলাম নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। যার সঙ্গে দুই খালাতো বোনের প্রেম ও শারীরিক সম্পর্ক ছিল। 

এদিকে নিজের দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দিও দিয়েছে মেরাজুল।

১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দি থেকে উঠে আসে ত্রি-ভূজ প্রেমের করুণ পরিণতির ঘটনা।
  
শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) আদালতে দেয়া জবানবন্দি থেকে পিবিআই-এর রংপুরস্থ পুলিশ সুপার জাকির হোসেন জানান, স্কুল-পড়ুয়া দুই খালাতো বোন লাতুল ও অন্নির সঙ্গে গোপনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে প্রতিবেশী যুবক মেরাজুল। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে দুইজনের সঙ্গেই শারীরিক মেলামেশা করেন তিনি।


এক নারী দিয়ে হতো না, প্রতিদিন নতুন নারী লাগত তার

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


কিন্তু এক সময় প্রেমিক মেরাজুলের এই প্রতারণার কথা জানতে পেরে অপমান-লজ্জায় ভুগতে থাকে তারা। তারপর একই দিনে বিষপান করে আত্মহত্যা করে দুই বোন।
      
২০১৮ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি রংপুর নগরীর শেখপাড়ায় চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় তৎকালীন রংপুর জেলা পুলিশের কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। প্রায় দুই বছর ৬ মাস তদন্ত করার পরও ঘটনার রহস্যভেদ হয়নি। পরে পিবিআইকে মামলাটির তদন্তভার প্রদান করলে পিবিআই-এর রংপুরস্থ পরিদর্শক যোতিন শর্মাকে তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়। 

পিবিআই-এর পুলিশ সুপার জাকির হোসেন জানান, মাত্র ১৩-১৪ বছর বয়সী দুই খালাতো বোনের মরদেহের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন মূলত মামলার রহস্যের জট খুলে দেয়। কারণ তারা দুজনই মৃত্যুর আগে ধর্ষিত হওয়ার বিষয়টি জানা যায় ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনই। তারপর তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার ও অনুসন্ধানেই পুরো বিষয়টি খোলসা হয়ে আসে। মামলাটির পুরো তদন্ত এখনও শেষ হয়নি বলে জানান জাকির হোসেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সুনামগঞ্জের ঘুঙ্গিয়ারগাঁওয়ে তিন দিনের জন্য ১৪৪ ধারা

অনলাইন ডেস্ক

সুনামগঞ্জের ঘুঙ্গিয়ারগাঁওয়ে  তিন দিনের জন্য ১৪৪ ধারা

একই জায়গায় এক সময়ে কীর্তন ডাকায় সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার বাহারা ইউনিয়নের ঘুঙ্গিয়ারগাঁও গ্রামে তিন দিনের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করা।

এ তথ্য নিশ্চিত করেন শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে শাল্লা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আল মোক্তাদির হোসেন।

উপজেলা প্রশাসনের সূত্র জানায়, শাল্লা উপজেলার ঘুঙ্গিয়ারগাঁও গ্রামে স্থানীয় মহাদেব গাছতলা কীর্তনকে কেন্দ্র করে এক গ্রাম দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে একই জায়গায় এক সময়ে কীর্তন করতে চাচ্ছে গ্রামবাসী। এ নিয়ে গত কয়েকদিন যাবত গ্রামে উত্তেজনা চলছে।


অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


এতে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ রোধে ঘুঙ্গিয়ারগাঁও গ্রামে স্থানীয় মহাদেব গাছতলা ৪০০ শত গজের মধ্যে শুক্রবার বিকাল ৩ টা থেকে আগামী (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১ টা পর্যন্ত কোনো ধরনের ব্যক্তির চলাফেরা, সমাবেশ, কীর্তনসহ কোন কিছু করা যাবে না।

শাল্লা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আল মোক্তাদির হোসেন জানান, এক গ্রাম দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে একই স্থানে কীর্তন করতে চাচ্ছে সেই জন্য গত কয়েক দিন যাবত ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নবম শ্রেণির কিশোরী ধর্ষণের মামলায় কনস্টেবল গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

নবম শ্রেণির কিশোরী ধর্ষণের মামলায় কনস্টেবল গ্রেপ্তার

ফেনীতে কিশোরীকে ধর্ষণের মামলায় তৌহিদুল ইসলাম শাওন নামে এক পুলিশ কনস্টেবলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তার বর্তমান কর্মস্থল রাঙ্গামাটি থেকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) আদালতের মাধ্যমে ফেনী কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে তিনি ফেনীর ফুলগাজী থানায় কর্মরত ছিলেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, পুলিশ কনস্টেবল তৌহিদুল ইসলাম বছরখানেক আগে ফেনীর ফুলগাজী থানায় কর্মরত ছিলেন। তখন তিনি স্থানীয় নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। একদিন ঘুরে বেড়ানোর কথা বলে ফেনী শহরের একটি বাসায় নিয়ে ফলের জুসের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে মেয়েটিকে পান করান শাওন। এতে ওই কিশোরী অচেতন হয়ে পড়লে তাকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করেন তিনি।

জ্ঞান ফেরার পর ওই কিশোরী ধর্ষণের বিষয়টি বুঝতে পেরে এর প্রতিবাদ করে। তখন তার অশ্লীল ভিডিও ধারণ করা হয়েছে জানিয়ে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন শাওন। ওই ভিডিওর জেরে বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে একাধিকবার ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য। এতে ওই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।


অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ

মেয়েকে তুলে নিয়ে মাকে রাত কাটানোর প্রস্তাব অপহরণকারীর

নাসির বিয়ে করেছেন আপনার খারাপ লাগে কেন?

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী


পরে কিশোরীর পরিবার তাদের মেয়ের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার বিষয়টি জানতে পেরে বিষয়টি সমাধানের জন্য শাওনকে বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকে। এক পর্যায়ে শাওন ধারণ করা সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার দেয়ার ভয় দেখিয়ে সেই বিয়ে আটকান। তবে গত ১২ ফেব্রুয়ারি ওই কিশোরী একটি সন্তান জন্ম দিলে বিষয়টি জনসম্মুখে চলে আসে।

এর জেরে বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ফেনীর আদালতে কিশোরীর মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর ফেনীর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান কিশোরীর ২০ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। পরে এ ঘটনায় তৌহিদুল ইসলাম শাওনকে তার বর্তমান কর্মস্থল রাঙ্গামাটি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কুতুব উদ্দিন পুলিশ সদস্য শাওনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচন স্থগিতের আদেশ

তানভীর আজাদ মামুন, জামালপুর

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচন স্থগিতের আদেশ

পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন। শুক্রবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন সচিবালয় এই নির্বাচন স্থগিতের আদেশ জারি করে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের নির্বাচন পরিচালনা ২ অধিশাখার উপ সচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে জানানো হয়েছে, আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।


গণধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীর গায়ে আগুন

বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে রাতধর ধর্ষণের শিকার মেয়ে

৩০-৩২ গার্লফ্রেন্ড থাকার পরও আমাকে ভালোবাসত নাসির: তামিমা

আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি: কানাডিয়ান নারী


জামালপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা নির্বাচন স্থগিতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় দেওয়ানগঞ্জ ব্যতিত আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি জামালপুর, ইসলামপুর ও মাদারগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত

তানভীর আজাদ মামুন, জামালপুর

দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত

২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর