মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ০৩ মিনিট আগে

তবে কি রহস্যময় কঙ্কালটা অ্যালিয়েনের?

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

তবে কি রহস্যময় কঙ্কালটা অ্যালিয়েনের?

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ চিলির আটাকামা মরুভূমিতে মিলেছিল ৬ ইঞ্চির অদ্ভুত এক কঙ্কাল। যে চেহারার সঙ্গে কল্পবিজ্ঞান কাহিনী বা চলচ্চিত্রে দেখতে পাওয়া ভিনগ্রহের প্রাণীর (অ্যালিয়েনের) আশ্চর্য মিল! স্বাভাবিকভাবেই উঠেছিল গুঞ্জন। 

যদিও ঘটনাটা সাম্প্রতিক নয়, পাঁচ বছর আগের। অবশেষে সেই রহস্যের সমাধান হল। জানা গেল, ওই দেহটি আসলে এই গ্রহেরই কোনো প্রাণীর।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যমের খবর, সান ফ্র্যান্সিসকোর ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া ও স্ট্যান্ডফোর্ড ইউনিভার্সিটির একদল গবেষক ওই কঙ্কালটি নিয়ে দীর্ঘ গবেষণা চালিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত তারা সিদ্ধান্তে এসেছেন, ওই দেহটি আসলে একটি মানব ভ্রুণ। গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে জিনোম রিসার্চের একটি গবেষণাপত্রে।

পাঁচ বছর আগে ওই কঙ্কালটিকে নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছিল। তারপর গত কয়েক বছর ধরে তাকে নিয়ে চলেছে জোর আলোচনা। আটাকামা মরুভূমিতে সন্ধান মেলায় কঙ্কালটির নাম হয়ে দেওয়া হয়েছিল ‘আটা’। 

৬ ইঞ্চির এই মানব সদৃশ শরীরে মেরুদণ্ড, চক্ষুকোটর সবই রয়েছে। ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার গবেষক সঞ্চিতা ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, দেহটি অন্তত ৪০ বছরের পুরনো এবং একটি মেয়ের দেহ।

তবে ডিএনএ রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, ওই কঙ্কালের পুরোটা মানব দেহের নয়! ৮ শতাংশ ডিএনএ’র সঙ্গে মানুষের জিনের মিল খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে সেটা সম্ভবত এই কারণে  যে, এই দেহটি গত ৪০ বছর ধরে মরুভূমিতে পড়ে রয়েছে। এই দীর্ঘ সময়ে জিনের ক্ষয় হওয়ায় মনুষ্য চিহ্নিতকরণ সম্পন্নে বিজ্ঞানীদের বেশ বেগ পেতে হয়েছে।

সূত্র: শিকাগো ট্রিবিউন, নিউইয়র্ক টাইমস    •     অরিন/নিউজ টোয়েন্টিফোর

মন্তব্য