সিংড়ায় শেখ রাসেল শিশু পার্ক এবং মিনি স্টেডিয়াম হবে: পলক

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

সিংড়ায় শেখ রাসেল শিশু পার্ক এবং মিনি স্টেডিয়াম হবে: পলক

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, সিংড়ায় শেখ রাসেল শিশু পার্ক এবং মিনি স্টেডিয়াম হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার তরুণ যুবকদের আইটি সেক্টরে কাজ করার সুবিধার্তে হাইটেক পার্ক নির্মাণ করে দিচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী রবিবার বিকেলে সিংড়া উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ আয়োজিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে সিংড়া পৌর এলাকার ২১ টি সিসিটিভি স্থাপন এবং ১০ টি পয়েন্টে ফ্রি ওয়াইফাই উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে এসব কথা বলেন।  

বর্তমানে অনলাইনে ক্লাস চলছে। করোনার সময়ও বাংলাদেশ থেমে নাই। অসচ্ছল গরীব, মেধাবীদের জন্য সিংড়ায় ১০ টি পয়েন্টে ওয়াইফাই জোন করে দেয়া হচ্ছে।
 
অনলাইনে ক্লাস করার জন্য ফ্রি ওয়াইফাই সিংড়া পৌর কমিউনিটি সেন্টারে খুলে দেয়া হবে। সিংড়ায় বসে ফ্রিল্যান্সাররা অনলাইন মার্কেটে বড় বড় কাজ করবে।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, মাত্র ১২ বছরে দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত হয়েছে। জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান সোনার বাংলা গড়তে চেয়েছিলেন।

বঙ্গবন্ধু কন্যা রুপকল্প দিয়েছেন তা বাস্তবায়নের পথে। অল্প সময়ের মধ্য বাংলাদেশ দ্রুত অর্থনৈতিক রাষ্ট্রে পরিনত হচ্ছে। করোনার এই মহামারী মোকাবেলায় বাংলাদেশ সক্ষমতা অর্জন করেছে। ৬৬৮৬ টি তথ্য সেবা কেন্দ্রে মানুষ সেবা গ্রহন করছে।

প্রতিমন্ত্রী পলক আরো বলেন, সিংড়া পৌরসভা দীর্ঘ ১৬ বছর উন্নয়ন ঠিকমতো হয়নি।  মানুষ পৌরসভায় মেয়রকে পায়নি। কার্ড নিতে ঘুষ দিতে হয়েছে। পৌর নাগরিকরা সুবিধা বঞ্চিত ছিলো। দোকানদারকে বাঁকি দিতে হয়েছে। চাঁদা দিতে হয়েছে। এখন তা দিতে হয় না। সিংড়া পৌরসভায় কোনো দুর্নীতি নাই।


আরও পড়ুন: শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ


নির্বাচন আসলে অতিথি পাখিদের আগমন ঘটে। প্রতারক, ভন্ড, কাপুরুষ থেকে দুরে থাকতে হবে। কথায় নয় আমরা কাজে বিশ্বাসী লোক চাই। করোনার সময় পরিবার থেকে ৫৫ দিন বিচ্ছিন্ন থেকে সিংড়ার মেয়র ফেরদৌস মানুষের পাশে ছিলো। সে করোনা, বন্যা, অসুস্থ মানুষের সেবা করেছে। এমন মানবিক মেয়র কে হারালে আমাদের আফসোস করতে হবে। এজন্য তাঁর জন্য সবার কাছে দোআ চান তিনি।

সিংড়া পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো: জান্নাতুল ফেরদৌস এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট ওহিদুর রহমান শেখ,  উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলাম শরিফ, ফ্রিল্যান্সার হাসিবুল হাসান এমিল, মাধব চন্দ্র দাস প্রমূখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক বকুল।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

শিবচরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

শিবচরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার বাঁশকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল বাশারের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সম্প্রতি জেলা প্রশাসক ও স্থানীয় সরকার বিভাগে চেয়ারম্যানের নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। এ ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, ইউপি চেয়ারমান বাশার স্কুলের প্রধান শিক্ষক হয়ে নিজ বিদ্যালয়ের নামে বরাদ্দকৃত স্কুল ভবনের ঠিকাদারি কাজ নিজেই সম্পূর্ণ করেন। এছাড়া তার বিরুদ্ধে রয়েছে নানাবিধ দুর্নীতির অভিযোগ। বাশার নিজেই চেয়ারম্যান হওয়ার সুবাদে নিজ স্কুলের নামে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একাধিক বরাদ্দ দিয়েছেন। ইউপি ভবন নির্মাণ ও সংস্কার নামে একাধিক বরাদ্দ নিয়ে সরকারের লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

তার নিজ এলাকার ৪ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য জামালের বাড়ি, ছলেনামা পাকা রাস্তা থেকে বাড়ি পর্যন্ত সড়ক ও উত্তর বাশকান্দি এলাকার একটি রাস্তা সংস্কারের বরাদ্দ এনে কয়েক লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। শুধু নিজ এলাকায় বাড়ির রাস্তা নয়, মসজিদের বিভিন্ন কাজের জন্য বারবার বরাদ্দ নিয়ে সরকারের লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন এই ইউপি চেয়ারম্যান।
অভিযোগে আরও বলা হয়, চেয়ারম্যান হওয়ার আগে তিনি ২০ শতক জমির মালিক ছিলেন।

কিন্তু এখন তার রয়েছে অনেক জমিজমা ও অর্থ। তিনি শেখপুর বাজারে জলিল ঢালীর কাছ থেকৈ দোতলা একটি ভবন ক্রয় করে ৩ তলায় উন্নত করেছেন। এছাড়াও শিবচর উপজেলায় দাদাভাই উপশহরের একাধিক প্লট কিনেছেন। 


পাপুলের আসনে উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

বিক্রি হওয়া সেই শিশু ফিরে পেলেন মা

হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামীণ সৌন্দর্য

১২ তলা থেকে পড়েও বেঁচে আছেন তিন বছরের শিশু (ভিডিও)


সম্প্রতি তিনি রাজধানী ঢাকার বাসাবো এলাকায় একটি ফ্ল্যাটও কিনেছেন। প্রভাবশালী এই ইউপি চেয়ারম্যান এলাকায় প্রভাব খাটিয়ে নিজেই অন্যের নামে ঠিকাদারি লাইসেন্স করে শেখপুর বাজারের উন্নয়ন মার্কেট, ড্রেন ও রাস্তার একাধিক কাজ নিজেই সম্পন্ন করেন। এছাড়াও এডিবির বরাদ্দকৃত ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে পুলিশ সদস্যদের থাকার জন্য ২টি কক্ষ নির্মাণ কাজ নিজেই করেছেন।

আবুল বাশার শুধু নিজেই দুর্নীতি করেননি, তার খালাতো ভাই মাসুম মোল্লা ও চাচাতো ভাই লিটু মুন্সিকে তিনি ব্যবহার করেছেন। তাদের দুজনের নামে প্রাধানমন্ত্রীর খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলারও এনে দিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাশার। মাসুম সেই কর্মসূচির চালের ৬৮ বস্তা অন্যত্র বিক্রির সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে আটক হয়। আর লিটু মুন্সির বিরুদ্ধে চাল দেওয়ার অনিয়মের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ফরিদপুর আঞ্চলিক কার্যালয়ে তদন্তধীন আছে।

অভিযোগ আছে, আবুল বাসার নিজ বিদ্যালয়ে বসেই ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম সম্পাদন করেন। এতে স্কুলের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় ব্যাঘাত ঘটে। এছাড়া তিনি গরিব ভ্যানচালকদের কাছ থেকে জনপ্রতি ৪০০ টাকা করে উত্তোলন করে লাইসেন্সের নামে। এ ব্যাপারেও মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুনের কাছে এলাকাবাসী একটি অভিযোগপত্র দিয়েছেন।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাশার বলেন, আমি একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, এটি সত্যি। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার আগে ২০১৩ সাল থেকে আমি স্কুলের প্রধান শিক্ষক। আমি স্কুল থেকে বেতন নেই। কিন্তু পরিষদ থেকে কোনো সম্মানি নেই না। তাছাড়া আমার বিরুদ্ধে যে অনিয়ম ও দুর্নীতির কথা বলা হচ্ছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। সামনে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন তাই প্রতিপক্ষ আমার নামে মিথ্যে কথা সাজিয়ে ডিসির কাছে অভিযোগ দিয়েছেন। এর সঙ্গে আমার কোনো সত্যতা নেই।

এ ব্যাপারে মাদারীপুর স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মো. আজাহারুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল আশারের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগের কথা উল্লেখ করে একটি লিখিত অভিযোগ হাতে পেয়েছি। বিষয়টি আমলে নিয়ে আমরা তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছি। তিনি যদি দুর্নীতি ও অনিয়মের সাথে জড়িত হন, তাহলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খুলনায় পুলিশের দুই এসআই ক্লোজ

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

খুলনায় পুলিশের দুই এসআই ক্লোজ

খুলনায় আওয়ামী লীগের প্রতিবাদ সমাবেশে লাঠিচার্জ করার ঘটনায় সদর থানা পুলিশের দুই উপ-পরিদর্শককে (এসআই) কেএমপিতে ক্লোজ করা হয়েছে। বুধবার রাতে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের ডেপুটি কমিশনার (দক্ষিণ) মো. আনোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। ওই দুই এসআই হচ্ছেন- মোমিনুর রহমান ও মিয়া রব।

জানা যায়, বুধবার বিকালে ২১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে নগরীর কেডি ঘোষ রোডে বিএনপি অফিসের সামনে কেন্দ্রিয় ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর কুশপুত্তলিকা দাহ করার সময় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় আওয়ামী লীগ কর্মী ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। 


পাপুলের আসনে উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

বিক্রি হওয়া সেই শিশু ফিরে পেলেন মা

হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামীণ সৌন্দর্য

১২ তলা থেকে পড়েও বেঁচে আছেন তিন বছরের শিশু (ভিডিও)


২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. শামছুজ্জামান মিয়া স্বপন বলেন, গত শনিবার বিএনপির সমাবেশে শামসুজ্জামান দুদু তার বক্তৃতায় আওয়ামী লীগ, সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক ও পুলিশকে নিয়ে অশালীন উক্তি করেন। এ ঘটনায় ২১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিএনপির ওই নেতার কুশপুত্তলিকা দাহ করার কথা ছিল সোসাইটি সিনেমা হলের সামনে। কিন্তু কেডি ঘোষ রোড দিয়ে যাওয়ার সময় যানজটের কারণে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা সেখানে অবস্থান নিয়ে বক্তৃতা করেন ও কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। এ সময় পুলিশের একটি টিম সেখানে এসে লাঠিচার্জ শুরু করে। পুলিশের সাথে ভুল বোঝাবুঝি থেকে অপ্রীতিকর এ ঘটনা ঘটে। 

তিনি বলেন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে কথা বলে অনুমতি নেন কর্মসুচী পালনের জন্য। তারপরও ওইস্থানে পুলিশ নেতাকর্মীদের ওপর লাঠিচার্জ করে। পরে অবশ্য এটি ভুল হয়েছে বলে দুঃখ প্রকাশ করে পুলিশের উর্ধর্তন কর্মকর্তারা। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খুলনায় বিএনপি অফিসের সামনে দুদু’র কুশপুত্তলিকা দাহ, উত্তেজনা

সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা

খুলনায় বিএনপি অফিসের সামনে দুদু’র কুশপুত্তলিকা দাহ, উত্তেজনা

খুলনায় বিএনপি অফিসের সামনে দলের কেন্দ্রিয় ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে স্থানীয় ২১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ মিছিল থেকে বিএনপির মহানগর ও জেলা অফিসের সামনে কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

এদিকে এ নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে খুলনা সদর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ওপর লাঠিচার্জ করে। এ সময় দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়।


সবইতো চলছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কেন ঈদের পরে খুলবে: নুর

আইন চলে ক্ষমতাসীনদের ইচ্ছেমত: ভিপি নুর

রাঙামাটিতে বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠক

৭৫০ মে.টন কয়লা নিয়ে জাহাজ ডুবি, শুরু হয়নি উদ্ধার কাজ


২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. শামছুজ্জামান মিয়া স্বপন বলেন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে কুশপুত্তলিকা দাহ করার কথা ছিল সোসাইটি সিনেমা হলের সামনে। কিন্তু কেডি ঘোষ রোড দিয়ে যাওয়ার সময় সেখানে যানজটের কারণে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা সেখানে অবস্থান নিয়ে বক্তৃতা করেন ও পরে কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। এসময় পুলিশের একটি টিম সেখানে এসে লাঠিচার্জ শুরু করে।

তিনি বলেন, যে পুলিশ কর্মকর্তা লাঠিচার্জ করেছে, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়েছে।

এদিকে খবর পেয়ে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতারা অফিসের সামনে জড়ো হয়। তারা বিএনপি অফিসের সামনে অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক মিছিল বের করে।

জানা যায়, খুলনায় গত শনিবার বিএনপির সমাবেশে শামসুজ্জামান দুদু তার বক্তৃতায় আওয়ামী লীগ, সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক ও পুলিশকে নিয়ে অশালীন উক্তি করেন। এরপর থেকে দুদু’র এ বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাচ্ছে আওয়ামী লীগ।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

জিয়া রাজাকার-আলবদরদের বিচার বন্ধ করেছিলেন: চীফ হুইপ

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

জিয়া রাজাকার-আলবদরদের বিচার বন্ধ করেছিলেন: চীফ হুইপ

জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ ও আওয়ামী লীগ সংসদীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক নূর-ই-আলম চৌধুরী বলেছেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় আসার পর রাজাকার, আলবদরদের বিচার বন্ধ করে দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর জিয়াউর রহমান এদেশে যুদ্ধাপরাধী ও স্বাধীনতা বিরোধীদের প্রতিষ্ঠিত করেছে। জিয়া ক্ষমতায় আসার পর রাজাকার আলবদরদের বিচার বন্ধ করে দিয়েছিলেন। শুধু তাই নয় কারাগারে আটক সকল যুদ্ধাপরাধীদের মুক্ত করে দিয়েছিলেন এবং নরঘাতক যুদ্ধাপরাধী গোলাম আজমকে এদেশে রাজনীতি করার সুযোগ করে দিয়েছিলেন।

বুধবার (৩ মার্চ) দুপুরে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। শিবচরের মুন্সী কাদিরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪তলা বিশিষ্ট নতুন ভবন উদ্বোধন করেন তিনি। পরে সেখানে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় অনুষ্ঠিত হয়। 

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, জিয়া সংবিধান সংশোধন করে ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ থাকার বিধান বাতিল করেছিলেন। জামায়াত ইসলামীসহ স্বাধীনতা বিরোধীদের রাজনীতি করার সুযোগ করেছিলেন। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর সকল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পন্ন হচ্ছে। 

চীফ হুইপ আরো বলেন, দেশের মানুষের কথা চিন্তা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৩শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য। যা বিশ্বের উন্নত অনেক দেশে দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। এখনো অনেক দেশ আছে যারা ভ্যাকসিন পায়নি। একমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কারণেই বাংলাদেশের ৪০ বছরের উর্ধ্বে সকলকে প্রাথমিক পর্যায়ে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে ৩০ লাখ মানুষকে করোনার ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে।


পুলিশ হেফাজতে আইনজীবীর মৃত্যু: বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

ভাসানচরে যাচ্ছে দুই হাজারের বেশি রোহিঙ্গা

‘অসম প্রেমে’ পড়েছেন সাদিয়া ইসলাম মৌ

ব্যানারে নেই বেগম জিয়া, এনিয়ে বিস্তর আলোচনা


এসময় তিনি সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলারও আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে মাদারীপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুনির চৌধুরী, শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান, পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. সেলিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ফসলি কৃষি জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন বন্ধে মানববন্ধন

নাটোর প্রতিনিধি

ফসলি কৃষি জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন বন্ধে মানববন্ধন

আদালতের নিষোজ্ঞা উপেক্ষা করে নাটোরের গুরুদাসপুরের মশিন্দা ইউনয়নের মাঝপাড়া মাঠের তিন ফসলি কৃষি জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন বন্ধে মানববন্ধন করেছে জনসচেতন এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার দুপুরে গুরুদাসপুর উপজেলা মশিন্দা ইউনিয়নের মাঝপাড়া গ্রামের সচেতন এলাকাবাসীর আয়োজিত ওই মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সাইদুল ইসলাম ও জিয়াউর রহমান। এ সময় বক্তরা তিন ফসলি কৃষি জমি রক্ষায় অবিলম্বে অবৈধভাবে পুকুর খনন বন্ধে স্থানীয় প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপের দাবি জানান।


আমাকে ‘বলির পাঁঠা’ বানানো হয়েছে: সামিয়া রহমান

ভারতে বাড়ছে গাধার চাহিদা!

ভারতের মাদ্রাসায় পড়ানো হবে বেদ, গীতা, সংস্কৃত

এই নচিকেতা মানে কী? আমি তোমার ছোট? : মঞ্চে ভক্তকে নচিকেতার ধমক (ভিডিও)


কৃষি জমি রক্ষায় মশিন্দা ইউনিয়নের মাঝপাড়া গ্রামের কৃষান-কুষানী ছাড়াও নানা শ্রেণি পেশার সচেতন জনসাধারণ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে অবৈধ পুকুর খননের প্রতিবাদ জানান।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর