কাসেমীর জানাজায় মানুষ আর মানুষ

অনলাইন ডেস্ক

কাসেমীর জানাজায় মানুষ আর মানুষ

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমীর জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। আজ সোমবার সকাল সোয়া ৯টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। নূর হোসাইন কাসেমীর জানাজায় হাজারো মানুষের ঢল নামে।

জানাজায় ইমামতি করেন মরহুমের ছোট ছেলে মুফতি জাবের কাসেমী। নূর হোসাইন কাসেমীর জানাজার আগে পরিবারের পক্ষ থেকে তার ছোট ভাই মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস তার বড় ভাইয়ের জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়ে বলেন, ‘জাতি আজ তার এক সু-সন্তানকে হারিয়েছে। আপনারা সবাই তার রুহের মাগফিরাতের জন্য দোয়া করবেন।’

এ সময় হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, ‘আল্লামা কাসেমীর সঙ্গে আমার হৃদয়ের সম্পর্ক ছিল। তাকে হারিয়ে আমরা কতটা ক্ষতিগ্রস্ত হলাম তা বলা যাবে না।’ এ সময় তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন।

বাবুনগরী বলেন, ‘আল্লামা কাসেমী দেশের সবচেয়ে বড় অরাজনৈতিক সংগঠন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির ও ঢাকা মহানগরীর সভাপতি ছিলেন। পরে তিনি মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছিলেন। উনি বাতেলের সঙ্গে আপস করেননি। কোনো হুমকি-ধামকীতে ভয় করেননি। আমরা তার কাছ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করবো ইনশাল্লাহ।’

বরেণ্য এ আলেমের জানাজায় মুফতি মাওলানা শফিক আহমেদ কাসেমী, বাবুনগরী মাদ্রাসার মহাপরিচালক মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী, মুফতি দিলাওয়ার হুসাইন, জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির অধ্যাপক মজিবুর রহমান, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, মহাসচিব অ্যাডভোকেট ফারুক রহমান, খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আব্দুল কাদের, মাওলানা মামুনুল হক, মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দি, মাওলানা জুনাইদ আল হাবীব, মুফতি হাবিবুল্লাহ মাহমুদ কাসেমী, খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীসহ দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেম ওলামা, রাজনীতিবিদসহ হাজারো মানুষ জানাজায় অংশ নেন।

জানাজায় অংশ নিতে হেফাজতকর্মীদের অনেকেই গতকাল রোববারই ঢাকায় এসেছেন। ফজরের নামাজে অংশ নিয়েছেন বিপুল সংখ্যক মুসল্লি।  হেফাজত নেতাকর্মীদের দাবি, স্মরণকালের অন্যতম বৃহৎ জানাজা এটি।

জানাজা উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়। জানাজার আগে বায়তুল মোকাররমের আশপাশের রাস্তাগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়। আজ সোমবার ভোরেই লোকে লোকারণ্য হয়ে উঠে বায়তুল মোকাররম এলাকা। 

জানাজার পরে আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমীরে মরদেহ তার প্রতিষ্ঠিত জামিয়া সুবহানিয়া মাহমুদনগর, ধউর, মাদ্রাসায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী গতকাল রোববার দুপুরে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ... রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। আল্লামা কাসেমী বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোটের শরিক জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ছিলেন।

হেফাজতে ইসলাম প্রতিষ্ঠার পর থেকে নূর হোসাইন কাসেমী সংগঠনটির ঢাকা মহানগর সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। সংগঠনের আমির আল্লামা আহমদ শফির মৃত্যুর পর ১৫ নভেম্বর নতুন কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিতে আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীকে আমির ও নূর হোসাইন কাসেমীকে মহাসচিব নির্বাচিত করা হয়। আল্লামা কাসেমী বাংলাদেশ কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের সিনিয়র সহসভাপতি, আল-হাইয়া বোর্ডের কো-চেয়ারম্যান এবং জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ছিলেন।

আরও পড়ুন: ‘ভাস্কর্য ইস্যুতে বিএনপির নীরবতার কারণ পরিষ্কার’

কাল রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী ১৯৪৫ সালের ১০ জানুয়ারি কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার চড্ডা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। গ্রামের স্কুলে চতুর্থ শ্রেণি শেষ করে চড্ডার কাশিপুর মাদ্রাসায় ভর্তি হন। তার পর তিনি বড়ুরার মাদ্রাসায় হেদায়াতুন্নাহু জামাত শেষ করেন। এর পর ভারতের সাহারানপুর জেলার বেড়িতাজপুর মাদ্রাসায় জালালাইন জামাত পড়েন।

শিক্ষাজীবন শেষে কাসেমী দারুল উলুম দেওবন্দসহ বিভিন্ন মাদ্রাসায় অধ্যাপনা করেন। নূর হোসাইন কাসেমী ১৯৭৫ সালে জমিয়ত উলামায়ে ইসলামের সঙ্গে যুক্ত হন। ১৯৯০ সালে তিনি জমিয়তের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে আসেন। ২০১৫ সাল থেকে জমিয়ত উলামায়ে ইসলামের মহাসচিবের দায়িত্ব পালন করছিলেন। ১৯৯০ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত তিনি খতমে নবুয়ত আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন এবং সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

৯৯৯ এ ফোন এক ঘন্টায় চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক

৯৯৯ এ ফোন এক ঘন্টায় চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার

জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে এক ভুক্তভোগী কলারের ফোন কলে তার চুরি হওয়া মোটরসাইকেল এক ঘন্টায় উদ্ধার করেছে গাজীপুরের গাছা থানার পুলিশ।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর সোয়া দুইটায় মোফাজ্জল হোসেন নামে একজন কলার ঢাকার দক্ষিণখান থেকে ফোন করে জানান ভোর রাতে বাসার গ্যারেজ থেকে তালা ভেঙ্গে চোরেরা তার সুজুকি জিক্সার ব্র্যান্ডের মোটর সাইকেলটি চুরি করে নিয়ে গেছে। সকাল নয়টায় অফিসে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বের হলে তিনি চুরির বিষয়টি জানতে পারেন। সৌভাগ্যক্রমে তার মোটরসাইকেলে জিপিএস ট্র্যাকার লাগানো ছিল। 


গুলি ছুড়ে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করেছে সৌদি

জানা গেল আসল রহস্য, ১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

আবাহনীকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিল বসুন্ধরা কিংস

৬৬ নারীকে ধর্ষণ


তখন তিনি জিপিএস সার্ভিস প্রোভাইডারের সাথে যোগাযোগ করেন এবং তার মোটর সাইকেলের লোকেশন জানাতে বলেন। দুপুর দেড়টার দিকে তিনি জানতে পারেন তার মোটরসাইকেলটি গাজীপুরের শ্রীপুর থানা এলাকায় আছে। এরপর তিনি ৯৯৯ এ ফোন করেন। ৯৯৯ বিষয়টি গাজীপুর পুলিশ নিয়ন্ত্রণ কক্ষে জানায়। ইতিমধ্যে চোরেরা তাদের অবস্থান পরিবর্তন করে ফেলেছে।

অবশেষে দুপুর সোয়া তিনটায় গাজীপুরের গাছা থানা পুলিশের সহায়তায় গাছা থানাধীন দৌলতপুর থেকে মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করা হয়। গাছা থানার এএস আই সারোয়ার ৯৯৯ কে ফোনে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরেরা মোটরসাইকেল ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। মোটরসাইকেলটি মালিক কলারকে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। চোরদের ধরতে প্রচেষ্টা অব্যহত আছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সিলেটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের সঙ্গে র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্সের চুক্তি

অনলাইন ডেস্ক

সিলেটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের সঙ্গে র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্সের চুক্তি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক সিলেটে ভূমি বরাদ্দের লক্ষ্যে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেডের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

আজ রোববার বেলা ১২টায় রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এই চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম এনডিসি এবং র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেডের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক জে. একরাম হোসেন চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। 

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি। 

চুক্তির আওতায় বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক লিমিটেডকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক সিলেটে ৩২ একর জমি বরাদ্দ দিলো। তারা এই পার্কে ৮০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করবে। এছাড়াও বিনিয়োগে নীতিগত সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি যৌথভাবে কাজ করবে।


গুলি ছুড়ে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করেছে সৌদি

জানা গেল আসল রহস্য, ১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

আবাহনীকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিল বসুন্ধরা কিংস

৬৬ নারীকে ধর্ষণ


প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক সিলেটে এখন পর্যন্ত ২০টি প্রতিষ্ঠান মোট ৭৪.০৬ একর ভূমি ও ১৬ হাজার ৫০০ বর্গফুট জায়গা বরাদ্দ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলো শিগগিরই সেখানে কার্যক্রম শুরু করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছে। কম্পানিগুলোর লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী আমরা আশা করছি, এখানে প্রায় ৫০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে। 

তিনি আরো বলেন, সিলেটের এই পার্ক থেকে ভারতের সেভেন সিস্টার’স এর বাজারে প্রবেশের ব্যাপক সম্ভাবনা থাকায় দেশি-বিদেশি আরো অনেক কোম্পানি এই পার্কে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছে। একারণে আমরা পার্কের পাশ্ববর্তী এলাকায় আরো ৬৪০ একর ভূমি অধিগ্রহণ করার উদ্যোগ নিচ্ছি। এর মধ্যে ৮৫ একরের প্রস্তাব প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক সিলেট হবে একটি ব্যতিক্রমী হাই-টেক পার্ক। এই পার্কের মধ্যেই ‘শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এখান থেকে যে দক্ষ জনবল তৈরি হবে, তারাই আবার এই পার্কে কাজ করার সুযোগ পাবে। এর ফলে ঢাকার বাইরে দক্ষ জনবলের যে সঙ্কট, তা দূরীভূত হবে।  

সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম এনডিসি বলেন, সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে মোট ৩৩৬ কোটি ৪২ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা ব্যয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক সিলেট প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। সরকারের অগ্রাধিকার প্রকল্প হওয়ায় সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করে এটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এই হাই-টেক পার্কটি এখন বিনিয়োগের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রেসক্লাবে ছাত্রদলের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিল প্রক্রিয়ার প্রতিবাদে ছাত্রদলের কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে।

রোববার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের লাঠিচার্জে ছাত্রদলের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। 


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


অন্যদিকে ছাত্রদল নেতাকর্মীদের ইটপাটকেলের আঘাতে কয়েকজন পুলিশও আহত হয়েছেন। পুলিশ বলছে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে এ হামালা হয়েছে তাদের উপর। আর বিএনপি নেতারা বলছেন, তাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ভন্ডুল করে দেয়া হয়েছে। 

এর আগে সকাল থেকেই ছাত্রদলের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মীকে প্রেসক্লাব এলাকায় জড়ো হতে শুরু করেন।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

হাসপাতালে বিল বেশি দাবি করায় ৯৯৯ এ ফোন

নিজস্ব প্রতিবেদক

হাসপাতালে বিল বেশি দাবি করায় ৯৯৯ এ ফোন

জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে এক কলারের ফোন কলে বেশি বিল দাবি করা হাসপাতালে বিল পরিশোধ করতে না পেরে হাসপাতাল থেকে ছাড় না পাওয়া দম্পতির সহায়তায় এগিয়ে গেছে ঢাকার ওয়ারী থানার পুলিশ।

শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি দুপুর দুইটায় আল আমিন (৩৩) নামে একজন কলার ঢাকার ঢাকার ওয়ারী থানাধীন সালাউদ্দীন স্পেশালাইজড হাসপাতাল থেকে ফোন করে জানান, তিনি পেশায় একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। একদিন পূর্বে ২৬ ফেব্রুয়ারি তারিখে তার গর্ভবতী স্ত্রীকে তিনি হাসপাতালে ভর্তি করেন। কিন্তু হাসপাতালে ভর্তি করার আগেই তার স্ত্রীর গর্ভস্থ সন্তান নষ্ট (মিস্ক্যারেজ) হয়ে যায়। 

একদিন পর ২৭ ফেব্রুয়ারি সকালের তিনি তার স্ত্রীকে বাসায় নিতে চাইলে তাকে ৩১ হাজার টাকা বিল পরিশোধ করতে বলা হয়। কিন্তু তিনি একদিন হাসপাতালে অবস্থানের জন্য এতো টাকা বিল দাবি করার কারণ জানতে চান এবং এতো টাকা পরিশোধে অসম্মতি জানান। তখন হাসপাতাল থেকে তাকে জানানো হয় বিল পরিশোধ না করলে তিনি তার স্ত্রীকে নিয়ে যেতে পারবেন না। শেষে তিনি কোন উপায় না পেয়ে ৯৯৯ এ ফোন করেন।


বিকৃত যৌনাচারে অনুশকার মৃত্যু: যা বললেন সিআইডি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


৯৯৯ থেকে সংবাদ পেয়ে ওয়ারী থানার একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। পরে ওয়ারী থানার এস আই জহির ৯৯৯ কে ফোনে জানান তিনি হাসপাতালে গিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলেন। কলার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী রতনের আর্থিক অবস্থা বিবেচনায় ন্যুনতম বিল নেয়ার অনুরোধ জানান। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বার হাজার টাকা বিল নিয়ে কলার এবং তার স্ত্রী কে ছাড়পত্র দেয়।  

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা

শেখ রুহুল আমিন,ঝিনাইদহ:

স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা

ঝিনাইদহ শহরে স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে আজ রোববার দুপুরে আব্দুস সাত্তার নামে (৪৯) এক ড্রাইভার আত্মহত্যা করেছেন। তিনি শহরের হামদহ এলাকার মোশাররফ হোসেন কলেজপাড়ার আব্দুল আওয়ালের ছেলে। 

জানা যায়, রোববার দুপুরে সাংসারিক বিষয় নিয়ে স্ত্রী রোজির সঙ্গে আব্দুস সাত্তারের ঝগড়া হয়। এতে অভিমান করে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেন আব্দুস সাত্তার।


বিকৃত যৌনাচারে অনুশকার মৃত্যু: যা বললেন সিআইডি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


আব্দুস সাত্তারের ছেলে অভি জানান, তার পিতা মায়ের সাথে রাগ করে আত্মহত্যা করেছেন।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে নিউজ টোয়েন্টিয়োরকে জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পরিবারিক কলহের জের ধরে আত্মহত্যা করেছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর