কানাডায় কোভিডের টিকাদান শুরু, প্রথম দিনে নিলেন ৫ স্বাস্থ্যকর্মী

অনলাইন ডেস্ক

কানাডায় কোভিডের টিকাদান শুরু, প্রথম দিনে নিলেন ৫ স্বাস্থ্যকর্মী

কানাডায় করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়া কর্মসূচি আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে এগারোটায় টরন্টো এবং কুইবেক সিটিতে দুজনকে টিকা দেওয়ার মধ্য দিয়ে এ কর্মসূচি শুরু করা হয়।

যারা টিকা গ্রহণ করেছেন তারা হলেন- কুইবেক সিটির একটি লং টার্ম কেয়ারের বাসিন্দা ৮৯ বছর বয়সী জিসেলে লেভেসক ও টরন্টো হাসপাতালে স্বাস্থ্যকর্মী অনিতা কোয়াইডেনজেন।

এর মধ্যে জিসেলে লেভেসকে প্রথম ও তার আধা ঘণ্টা পর অনিতা কোয়াইডেনজেনকে টিকা দেওয়া হয়।

টরন্টোয় প্রথম দিনে পাঁচজনকে কোভিডের টিকা দেওয়া হয়- এদের সবাই স্বাস্থ্যকর্মী।

বহুল প্রত্যাশিত করোনা ভাইরাসের  টিকা নিয়ে সারা দেশে নাগরিকদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ তৈরি হলেও এ নিয়ে ফেডারেল বা প্রভিন্সিয়াল  সরকারের কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিকতা ছিলো না। টিকা দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী বা প্রভিন্সের প্রিমিয়ারদের উপস্থিতিও ছিল না। কেবলমাত্র স্বল্পসংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মীর  উপস্থিতিতে  প্রথম টিকা দেওয়া হয়।

অট্টারিওতে টীকা দেওয়ার দৃশ্যটি টেলিভিশনে প্রত্যক্ষ করেছেন অন্টারিওর প্রিমিয়ার ডাগ ফোর্ড।

টিকা দেওয়ার জন্য সরকারের অগ্রাধিকার তালিকা আগ থেকেই তৈরি করা ছিল। উদ্বোধন, কিংবা আনুষ্ঠানিকতার নামে সেই তালিকা উপেক্ষা করে বিশেষ কাউকে টিকা দেওয়া হয়নি। টরন্টোয় যে পাঁচজন স্বাস্থ্যকর্মীকে প্রথম দিনে টিকা দেওয়া হয়েছে- তাদের মধ্যে রয়েছেন পার্সোনাল সাপোর্ট ওয়ার্কার এবং নার্স। কোনো চিকিৎসকও প্রথম দিনের অগ্রাধিকার তালিকায় ছিলেন না।

নতুন তথ্য, করোনা আক্রান্ত পুরুষরা ভুগতে পারেন গোপন সমস্যায়

পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াল চীন

অন্টারিওর প্রিমিয়ার ডাগ ফোর্ড জানিয়েছেন, আগামী কয়েক সপ্তাহে বিভিন্ন হাসপাতাল এবং লং টার্ম কেয়ারে কর্মরত স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকা দেওয়া হবে। এরপর অন্যদের বিষয়ে পরিকল্পনা করা হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

টুইটারের নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগে ইরান, রাশিয়া ও আর্মেনিয়ায় ৩৭৩টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারের নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগে ইরান, রাশিয়া ও আর্মেনিয়ায় ৩৭৩টি একাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। 

রয়টার্স জানায়, মঙ্গলবার যোগাযোগমাধ্যমটি বেশকিছু নিয়ম ভঙ্গের কারণে ইরানে ২৩৪টি একাউন্ট বাতিল করে দিয়েছে। পাশাপাশি রাশিয়ার ১০০ টি টুইটার একাউন্ট মুছে ফেলেছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। 


ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছেছে টাইগাররা

স্পেনে ঢুকতে অভিবাসীর অভিনব পন্থা

গোয়েন্দাদের ব্যর্থতাতেই ক্যাপিটলে হামলা

মিয়ানমারের ১০৮৬ নাগরিককে ফেরত পাঠালো মালয়েশিয়া


সেইসাথে আজারবাইজানকে কেন্দ্র করে খোলা হয়েছিল দাবি করে আর্মেনিয়ার ৩৫টি একাউন্ট ও বন্ধ করার ঘোষণা এসেছে তাদের পক্ষ থেকে। টুইটার ব্লক করার কারণ তদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ইতালিতে গোরস্তানে ভূমিধ্বস, সমুদ্রে ভেসে গেল ২০০ কফিন

অনলাইন ডেস্ক

ইতালিতে গোরস্তানে ভূমিধ্বস, সমুদ্রে ভেসে গেল ২০০ কফিন

ইতালিতে ভূমিধ্বসের কারণে রিভিয়েরা নামের এক গোরস্তানের একাংশ গিয়ে পড়েছে সমুদ্রে। গত মঙ্গলবার সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২১০ ফুট ওপরে অবস্থিত গোরস্তানটিতে এই ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় সমুদ্রে ভেসে গেছে অন্তত ২০০ কফিন। এর মাঝে ১১টি কাঠের বাক্স অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। যার মধ্যে শায়িত পাঁচ ব্যক্তিতে শনাক্ত করেছে পরিবার। মাছ ধরার জালের মাধ্যমে বাকি কফিনগুলো উদ্ধারে চলছে তৎপরতা।


ক্ষতি পুষিয়ে নিতে শুকরের খামার গড়ছে হুয়াওয়ে

হাতে নেই ছবি, তবুও বিলাসবহুল জীবনযাপন?

১৪ বছরের সুন্দরী কিশোরীকে বিয়ে করে বিপাকে পাকিস্তানি এমপি

মিয়ানমারের আর্থিক সংকট নিয়ে নতুন গুজব, আতঙ্কিত গ্রাহকেরা


এদিকে, নিরাপত্তার স্বার্থে সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়েছে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২১০ ফুট ওপরের এ গোরস্তান।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মিয়ানমারের আর্থিক সংকট নিয়ে নতুন গুজব, আতঙ্কিত গ্রাহকেরা

অনলাইন ডেস্ক

মিয়ানমারের আর্থিক সংকট নিয়ে নতুন গুজব, আতঙ্কিত গ্রাহকেরা

মিয়ানমারে ব্যাংক থেকে প্রতিদিন নগদ উত্তোলনের নতুন সীমা নির্ধারণ করে দেওয়ার সিদ্ধান্তের কারণে ব্যাংকগুলোয় অর্থের ঘাটতি তৈরি হয়েছে—এমন গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। সকাল থেকেই বিভিন্ন ব্যাংকের সামনে, বুথে বুথে ভিড় করছেন গ্রাহকেরা।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী এই ব্যাংকের প্রতিটি শাখা থেকে প্রতিদিন মাত্র ২০০ জন গ্রাহক অর্থ তুলতে পারবেন। অর্থ তোলার সীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে গ্রাহকপ্রতি ৩৭০ ডলার। তুন নাইং বলেন, কিছু লোক ব্যাংকের লাইনে দাঁড়ানোর জন্য রাত থেকে বসে থাকেন। অনেকে ব্যাংকের পাশের হোটেলে উঠেছেন।

গত দুই সপ্তাহ ধরে বিভিন্ন শহরে যে বিক্ষোভ ও আইন অমান্য কর্মসূচি চলছে, তাতে বেশ চাপে রয়েছে মিয়ানমারের সামরিক জান্তা সরকার। এরই মধ্যে মিয়ানমারের সাধারণ জনগন আবার সামরিক নিয়ন্ত্রিত বেশ কয়েকটি ব্যাংক বয়কট করায় বেশ বিপাকে পড়েছে সামরিক সরকার।

এদিকে বাণিজ্যিক কেন্দ্র ইয়াঙ্গুনে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর বেশির ভাগই বন্ধ রয়েছে। সরকারি ব্যাংকগুলো আংশিক খোলা, এটিএম থেকে নগদ উত্তোলন খুবই কঠিন হয়ে পড়েছে গ্রাহকদের জন্য। এই অনিশ্চয়তা নগদ ঘাটতির উদ্বেগকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে।


ক্ষতি পুষিয়ে নিতে শুকরের খামার গড়ছে হুয়াওয়ে

সাত কলেজের পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত বিকেলে

হাতে নেই ছবি, তবুও বিলাসবহুল জীবনযাপন?

১৪ বছরের সুন্দরী কিশোরীকে বিয়ে করে বিপাকে পাকিস্তানি এমপি


অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক এম. মাইন্ট এক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন ব্যাংকের লাইনে দাঁড়াচ্ছেন, এখনো অর্থ তুলতে পারেননি তিনি। এএফপিকে তিনি বলেন, তিনি হতাশ হয়ে পড়েছেন। তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্র-পরিচালিত মিডিয়ার মাধ্যমে অন্তত ঘোষণা তো করা উচিত যে আমাদের অর্থ ঠিক আছে। যদিও আমার সঞ্চয় বেশি নয়, তারপরও গুজবের কারণে আমি চিন্তিত।’

এদিকে ইয়াঙ্গুনজুড়ে ব্যাংকগুলোর অনিয়মিত কার্যক্রম চললেও মিয়ানমারের সরকারি সংবাদপত্র নিউ লাইটের একটি বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়েছে যে এখনো দৈনন্দিন পরিষেবা সরবরাহ করা হচ্ছে। ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা নিশ্চিত করার জন্য জনগণকে এই প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ঘরের কাজের জন্য স্ত্রীকে বেতন দিতে হবে: চীনের আদালত

অনলাইন ডেস্ক


ঘরের কাজের জন্য স্ত্রীকে বেতন দিতে হবে: চীনের আদালত

বৈবাহিক জীবনে স্বাভাবিকভাবেই স্ত্রী ঘরের কাজ করেন। কিন্তু এখন থেকে এ কাজের জন্য তাকে অর্থ দিতে হবে। চীনের বেইজিংয়ের একটি আদালত গৃহস্থালি কাজের জন্য অর্থ দিতে স্বামীকে নির্দেশ দিয়েছেন। বেইজিংয়ের আদালতের এই রায়কে ঐতিহাসিক হিসেবে দেখা হচ্ছে। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি-এর এক প্রতিবেদন থেকে এ খবর জানা যায়।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়,  আদালতের এই রায়ের ফলে ওই নারী তাঁর পাঁচ বছরের বৈবাহিক জীবনে গৃহকর্মের জন্য ৫০ হাজার ইউয়ান পাবেন। বাংলাদেশি টাকায় তা সাড়ে ছয় লাখ টাকার বেশি।

বিবিসি জানায়, আদালতের রায় নিয়ে চীনের সাইবার জগতে ব্যাপক তর্ক-বিতর্ক হচ্ছে। অনেক বলছেন, পাঁচ বছরের পারিশ্রমিক হিসেবে ওই নারীকে যে পরিমাণ অর্থ দেওয়ার নির্দেশেনা দেওয়া হয়েছে, তা যথেষ্ট নয়।

এ বছরই চীনে নতুন দেওয়ানি আইন কার্যকর হয়। সেই আইন অনুযায়ী, বিচ্ছেদের ক্ষেত্রে স্বামী বা স্ত্রী ক্ষতিপূরণ চাইতে পারবেন, যদি তিনি বৈবাহিক জীবনে তাঁর জীবনসঙ্গীর তুলনায় ঘরের কাজ ও দায়িত্ব বেশি পালন করেন। সেই আইনের অধীনেই বেইজিংয়ের বিচ্ছেদ আদালত থেকে ঐতিহাসিক এই রায়টি এসেছে।

আদালতের নথি অনুযায়ী, চেন নামের ওই পুরুষ ওয়াং নামের নারীকে বিয়ে করেন ২০১৫ সালে। কিন্তু বিচ্ছেদ চেয়ে গত বছর আদালতে আবেদন করেন চেন।

ওয়াং প্রথমে বিচ্ছেদে রাজি ছিলেন না। তবে পরে তিনি বিচ্ছেদের জন্য আর্থিক ক্ষতিপূরণ দাবি করেন। তিনি যুক্তি দেন, বৈবাহিক জীবনে তাঁর স্বামী চেন ঘরের কোনো কাজই করেননি। এমনকি তাঁদের ছেলের দেখভালের দায়িত্বও পালন করেননি চেন।

বেইজিংয়ের ফাংশান জেলা আদালত ওয়াংয়ের পক্ষে রায় দেন। ওয়াং বৈবাহিক জীবনে ঘরের যেসব কাজ করেছেন, তার জন্য তাঁকে এককালীন ৫০ হাজার ইউয়ান দিতে চেনকে নির্দেশ দেন আদালত। এ ছাড়া বিচ্ছেদর পর ওয়াংয়ের খোরপোষ বাবদ তাঁকে মাসে দুই হাজার ইউয়ান করে দেওয়ার জন্য চেনকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

আদালত বলেছেন, বিবাহবিচ্ছেদের পর সাধারণত দুজনের (দম্পতি) যৌথ পরিমাপযোগ্য সম্পত্তি ভাগাভাগি হয়। কিন্তু গৃহকর্ম অপরিমাপ্য সম্পত্তি, আর তার মূল্য রয়েছে।

মামলার রায় নিয়ে চীনের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম উইবো সরগরম হয়ে উঠেছে। সেখানে এ নিয়ে চলছে তর্ক-বিতর্ক।

অনেক ব্যবহারকারী বলছেন, পাঁচ বছরের গৃহকর্মের জন্য ৫০ হাজার ইউয়ান খুবই কম মজুরি।


ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছেছে টাইগাররা

স্পেনে ঢুকতে অভিবাসীর অভিনব পন্থা

গোয়েন্দাদের ব্যর্থতাতেই ক্যাপিটলে হামলা

মিয়ানমারের ১০৮৬ নাগরিককে ফেরত পাঠালো মালয়েশিয়া


উইবোতে একজনের মন্তব্য, তিনি হতবাক। একজন পূর্ণকালীন গৃহিণীর ঘরের কাজের মূল্যকে অবজ্ঞা করা হয়েছে। বেইজিংয়ে একজন আয়াকে এক বছরের জন্য নিয়োগ দিলে ৫০ হাজার ইউয়ানের বেশি খরচ হয়।

অন্যরা বলছেন, সংসারে পুরুষদের আরও বেশি ঘরের কাজ করা উচিত।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ট্রুডোর সাথে বাইডেনের প্রথম দ্বিপাক্ষিক বৈঠক

অনলাইন ডেস্ক

ট্রুডোর সাথে বাইডেনের প্রথম দ্বিপাক্ষিক বৈঠক

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে বৈঠক করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মঙ্গলবার এই দুই শীর্ষ নেতার মধ্যে ভার্চ্যুয়াল মিটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর কোনো বিদেশি নেতার সঙ্গে এটাই বাইডেনের প্রথম দ্বিপাক্ষিক বৈঠক।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন এই দুই রাষ্ট্র নেতা। ২০৫০ সালের মধ্যে কার্বন নির্গমনের মাত্রা শূণ্যতে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণে পরিকল্পনা গ্রহণ করবে দুই দেশ।

প্রথম রাষ্ট্রীয় সফর হিসেবে কানাডাতেই যাওয়ার ইচ্ছা ছিল প্রেসিডেন্ট বাইডেনের। কিন্তু কোভিড-১৯ ভাইরাসের কারণে তা আটকে গেছে। সে কারণে যার যার কার্যালয়ে বসে অনলাইনেই নিজেদের মধ্যে বৈঠক সেরেছেন তারা।

তবে এই দুই নেতার বৈঠকের পর ট্রুডো সাংবাদিকদের কাছ থেকে কোনো প্রশ্ন নেননি। এমন ঘটনা অনেকটাই বিরল। কারণ হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে যে কোনো দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পর সে বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করার সুযোগ পান সাংবাদিকরা। এবার তার ব্যতিক্রম হলো।


ভাইরাল পাকিস্তানি ‘স্ট্রবিরিয়ানি’

যুক্তরাজ্য মুরগির মাংস খেয়ে মৃত ৫, অসুস্থ কয়েকশ

জাতিসংঘের গাড়িবহরে হামলা, ইতালির রাষ্ট্রদূতসহ নিহত তিন

সাত কলেজের পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত বিকেলে


বৈঠকে সবচেয়ে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে চীনে আটক দুই কানাডীয়র মুক্তির বিষয়ে। ওই দু'জনকে ২০১৮ সালে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আটক করা হয়েছিল। কানাডার অভিযোগ, হুয়াওয়ের নির্বাহী কর্মকর্তা মেং ওয়ানঝৌকে আটকের প্রতিশোধ হিসেবেই ওই দুই কানাডীয়কে আটক করা হয়েছে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর