যে কারণে ইসরায়েলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে তুরস্কের তোড়জোড়?

অনলাইন ডেস্ক

যে কারণে ইসরায়েলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে তুরস্কের তোড়জোড়?

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু (বামে) ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান

সম্প্রতি ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে চুক্তি করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও সুদান। এ নিয়ে মুসলিম বিশ্বে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এই প্রতিক্রিয়ার মধ্যেই নতুন করে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার ঘোষণা দিয়েছে মরক্কো। মরক্কোর এই সিদ্ধান্তেও ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে মুসলিম বিশ্বে।

এর মধ্যেই ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নে তোড়জোড়  শুরু করেছে তুরস্ক। ইসরায়েলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়তে ইতোমধ্যে তেল আবিবে রাষ্ট্রদূত নিয়োগ করেছে দেশটি। তবে এমন প্রেক্ষাপটে প্রশ্ন উঠেছে কেন ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল করতে তুরস্ক এই তোড়জোড়!


সেনাবাহিনী থেকে খালেদা জিয়াকে চিঠি

এবার ট্রাম্পের চোখ ৬ জানুয়ারির দিকে

কুষ্টিয়ায় বিপ্লবী বাঘা যতীনের ভাস্কর্য ভাঙচুর

দুই ভাই জেলা প্রশাসক, এক বোন এএসপি


মার্কিন গণমাধ্যম আল-মনিটর জানিয়েছে, ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে গবেষক উফুক উলুতাসকে রাষ্ট্রদূত করে তেল আবিবে পাঠিয়েছে তুরস্ক। উলুতাস পেশাদার কূটনীতিক না হলেও তিনি তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের গবেষণা বিভাগের প্রধান হিসেবে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন। হিব্রু ভাষা জানা উলুতাস মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেছেন। 

আল-মনিটর অবশ্য জানিয়েছে, তুরস্ককে ইসরায়েলের কাছে ইতিবাচকভাবে তুলে ধরতে উলুতাসকে ভালই কাঠখড় পোড়াতে হবে।

দীর্ঘদিন ইসরায়েলের সঙ্গে এক ধরণের বৈরিতা দেখানোর প্রবণতা দেখা গেছে তুরস্কের। যদিও দুই দেশের বাণিজ্য চলেছে পুরোদমেই।

তুরস্কের পরিসংখ্যান বিভাগের হিসাবে, গত আট বছরে প্রতিবছর বাণিজ্য হয়েছে ৬ বিলিয়ন ডলারের মতো। চলতি বছরের গত ১০ মাসে দেশ দু’টির মধ্যে বাণিজ্য হয়েছে ৫ বিলিয়ন ডলারের বেশি। তবে তুরস্ক যেভাবে ইসরায়েলকে কাছে টানতে চাইছে তাতে বিশ্লেষকরা মনে করছেন, দুই দেশের বাণিজ্য আরও বেড়ে যাবে। 

তবে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান শুধু বাণিজ্যের কথাই ভাবেননি। বাণিজ্যিক ও ভূরাজনৈতিক সুবিধা পেতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো সম্প্রতি ইসরায়েলের দিকে ঝুঁকেছে। এরই ধারাবাহিকতায় সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও সুদনা ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করে নিয়েছে। ফলে ইসরায়েলও সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে। 

এদিকে এরদোয়ান সরকারের আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নানা কার্যক্রমকে বাড়াবাড়ি মনে করছে ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্র। উভয় পক্ষই তুরস্ককে ভিন্ন কারণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এমনিতেই গত এক দশকে লাগাতার খারাপ হচ্ছে তুরস্কের অর্থনীতি। মুদ্রা লিরার দাম লাফিয়ে লাফিয়ে কমছে। তুর্কি পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে অঘোষিত নিষেধাজ্ঞা রয়েছে আরব রাষ্ট্রগুলোতেও। সব মিলিয়ে দূরাবস্থা থেকে মুক্তি চাইছেন এরদোয়ান। আর এ জন্যেই ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্কন্নয়নের চেষ্টা করছে তুরস্ক।

এছাড়া, যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয় পেয়েছেন জো বাইডেন। তার প্রশাসন মানবাধিকার ও গণতন্ত্র নিয়ে অধিক সক্রিয় হয়ে উঠবে। এ নিয়ে চিন্তিত এরদোয়ান প্রশাসন। পাশাপাশি, সিরিয়া, লিবিয়া ও ককেশাস অঞ্চলে তুরস্কের প্রভাব হটিয়ে দেবে বাইডেন প্রশাসন এমন আশঙ্কাও রয়েছে।

আল-জাজিরাকে জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক লিসেল হিনৎজ এ নিয়ে বলেন, এরদোয়ান নিজেকে মুসলিমদের কথিত নেতা হিসেবে উপস্থাপন করতে চান। মুসলিমদের এ আবেগকে কাজে লাগিয়ে তিনি দেশে ও দেশের বাইরেও জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। আবার তিনিই এখন অর্থনৈতিক দূরাবস্থা থেকে বের হয়ে আসতে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নের চেষ্টা করছেন। এটিকেও হয়ত তিনি তুরস্কের বিজয় বলেই তুলে ধরবেন।

তুরস্কের কূটনীতিকরাও একই কথা বলছেন। ভূমধ্যসাগরের পরিস্থিতি নিয়ে তুরস্ক বাইরে খুব শক্ত কথা বললেও তারা নিজেদের দুর্বলতা সম্পর্কে জানে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তুরস্ক এখন অনেকটাই একা হয়ে পড়েছে। অর্থনীতিও আর সমর্থন দিচ্ছে না। আরব রাষ্ট্রগুলোও ইসরায়েলের দিকে ঝুঁকছে আবার তুরস্কের সঙ্গেও আরবদের সম্পর্ক তলানিতে পৌঁছেছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, তাই স্বাভাবিকভাবেই এখন ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নে বাধ্য হচ্ছে তুরস্ক।

নিউজ টোয়েন্টিফোর বিডি / কামরুল

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

গিনিতে সামরিক ঘাঁটিতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ, নিহত ২০

অনলাইন ডেস্ক

গিনিতে সামরিক ঘাঁটিতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ, নিহত ২০

মধ্য আফ্রিকার দেশ ইকুয়ে-টোরিয়াল গিনির বন্দরনগরী বাটার একটি সামরিক ঘাঁটিতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ ঘটেছে। এ ঘটনায় ২০ জন নিহত এবং অন্তত ৪২০ জন আহত হয়েছেন।

স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় শহরের ওই সামরিক ঘাঁটি এলাকায় পর পর চারবার বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের সময় গোটা এলাকায় ধোঁয়া আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


কাদের মির্জা যেভাবে মারলো, মনে হলো আমি পকেট মাইর

চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেওয়া হলো প্রতিবন্ধী নারীকে

অর্থনীতির নতুন পথ সন্ধানের এখনই সময়

৫ বছরে লাশ হয়ে দেশে ফিরেছেন ৪৮৭ নারী শ্রমিক


তবে বিস্ফোরণের কারণ এবং কারা দায়ী তা জানা যায়নি। দুর্ঘটনার পর দেশটির প্রেসিডেন্ট হতাহত পরিবারের  প্রতি সমবেদনা জানান। দেশটিতে দায়িত্বরত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত  এ ঘটনাকে বড় বিপর্যয় আখ্যায়িত করে সমবেদনা জানিয়েছেন।

এছাড়া স্পেনের রাষ্ট্রদূত তাদের দেশের নাগরিকদের ঘরে অবস্থান করার নির্দেশনা দিয়েছেন। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ

অনলাইন ডেস্ক

সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ ও তার স্ত্রী আসমা আল-আসাদ। সিরীয় প্রেসিডেন্টের কার্যালয় সোমবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানা জানিয়েছে, সিরীয় প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্টলেডি দুজনের শরীরেই মৃদু উপসর্গ ছিল। পরে তাদের পিসিআর টেস্টের ফলাফল পজিটিভ এসেছে।

প্রেসিডেন্টের কার্যালয় জানিয়েছে, ৫৫ বছর বয়সী আসাদের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। তিনি ও তার স্ত্রী আগামী দুই-তিন সপ্তাহ বাড়িতে আইসোলেশনে থাকবেন।

তবে তারা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কোনও ধরনের প্রমাণ গণমাধ্যমের কাছে উপস্থাপন করা হয়নি।


আরও পড়ুনঃ


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


বার্তা সংস্থা সানায় প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস থেকে সিরিয়াসহ সারা বিশ্বের মানুষের সুরক্ষা ও সুস্থতা কামনা করেছেন প্রেসিডেন্ট আসাদ। এছাড়া সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংক্রান্ত সকল নীতি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মুসলিম উইঘুরদের ওপর গণহত্যার অভিযোগ মিথ্যা দাবি চীনের

অনলাইন ডেস্ক

জিনজিয়াং প্রদেশে সংখ্যালঘু মুসলিম উইঘুরদের ওপর গণহত্যার অভিযোগকে অযৌক্তিক ও মিথ্যা বলে দাবি করেছে চীন। রোববার দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই এ দাবি করেন।

বলেন, এটি নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য সাধনের জন্য ছড়ানো গুজব ছাড়া, আর কিছূই নয় । যা হাস্যকরও বটে। সম্প্রতি কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র ও নেদারল্যান্ডস জিনজিয়াংয়ের উইঘুর নিপীড়নকে গণহত্যা বলে আখ্যায়িত করেছে।  চীনে প্রায় দেড় কোটি উইঘুর মুসলমানের বাস। 


চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেওয়া হলো প্রতিবন্ধী নারীকে

অর্থনীতির নতুন পথ সন্ধানের এখনই সময়

৫ বছরে লাশ হয়ে দেশে ফিরেছেন ৪৮৭ নারী শ্রমিক

সন্তানদের নিয়ে রাজনীতি করবেন না : শ্রীলেখা


অভিযোগ রয়েছে, সেখানে বসবাসরত প্রায় ১০ লাখ উইঘুরের ওপর ব্যাপক নিপীড়ন চালাচ্ছে বেইজিং। যদিও  বরাবরই এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে শি জিন পিং সরকার।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সৌদি আরবে হামলার পর থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়ছে তেলের দাম

অনলাইন ডেস্ক

সৌদি আরবে হামলার পর থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়ছে তেলের দাম

আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়তে শুরু করেছে জ্বালানি তেলের দাম। সৌদি আরবের তেল স্থাপনাগুলো লক্ষ্য করে হামলার পরপরই এই খবর পাওয়া যায়।

করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর থেকে প্রথমবারের মতো ব্রেন্ট ক্রুডের দাম উঠেছে ব্যারেলপ্রতি ৭০ ডলারের ওপর। আর যুক্তরাষ্ট্রের তেলের দাম উঠেছে গত দুই বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে।

এশীয় বাণিজ্যে সোমবার দিনের প্রথমভাগে তেলের আন্তর্জাতিক মানদণ্ড ব্রেন্ট ক্রুডের দাম প্রায় পাঁচ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১ দশমিক ৩৮ ডলারে। যা গত ১৪ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ।

এদিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) তেলের দাম ২ দশমিক ৪ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৬৭ দশমিক ৬৯ ডলার প্রতি ব্যারেল।


আরও পড়ুনঃ


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


এর আগেই ডব্লিউটিআইয়ের দাম ব্যারেলপ্রতি ৬৭ দশমিক ৯৮ ডলার দেখা গিয়েছিল, যা ২০১৮ সালের অক্টোবরের পর থেকে সর্বোচ্চ।

এর আগে, ২০১৯ সালে সৌদির প্রধান তেল স্থাপনাগুলোতে হামলার পরদিনই বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম প্রায় ১৪ শতাংশ বেড়ে গিয়েছিল।

সূত্রঃ এপি, ইয়াহু

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আস্থা ভোটে জিতেও অস্বস্তিতে ইমরান খান

অনলাইন ডেস্ক

আস্থা ভোটে জিতেও অস্বস্তিতে ইমরান খান

আস্থা ভোটে মাত্র ছয় ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তবে ভোটের ফল প্রত্যাখ্যান করে বিরোধীরা তাকে 'ভুয়া' প্রধানমন্ত্রী বলে সম্বোধন করেছে তাকে।

ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি অধিবেশন শেষে পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট (পিডিএম) এবং জইফ প্রধান মাওলানা ফজলুর রেহমান বলেন, “সংবিধানে স্পষ্টভাবে বলা আছে, রাষ্ট্রপতি যদি মনে করেন যে প্রধানমন্ত্রী সংখ্যাগরিষ্ঠতা রাখেন না; তাহলে তিনি  একটি অধিবেশন ডাকতে পারেন। এখানে সংক্ষিপ্ত অধিবেশন ডেকেছেন ভুয়া প্রধানমন্ত্রী। এর পুরোটাই নাটক। আজকের এই অধিবেশন আমরা মানি না। আর এই আস্থা ভোটও আমরা মানি না।”

তিনি আরও বলেন, “ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির সদস্যদের জোর করে ইমরান খানের পক্ষে ভোট দিয়ে নেওয়া হয়েছে।”


আরও পড়ুনঃ


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


পাকিস্তানের সংসদে অনুষ্ঠিত আস্থা ভোটে জেতার জন্য ইমরান খানের প্রয়োজন ছিল ১৭২ ভোট। তিনি পেয়েছেন ১৭৮ ভোট। পাকিস্তানের দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অ্যাসেম্বলিতে আস্থা ভোট নিতে হলো ইমরান খানকে। এর আগে নওয়াজ শরিফ আস্থা ভোটের কবলে পড়েন।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর