জাতীয় পতাকা বিকৃতির প্রতিবাদে রংপুরে মানববন্ধন

রেজাউল করিম মানিক, রংপুর

জাতীয় পতাকা বিকৃতির প্রতিবাদে রংপুরে মানববন্ধন

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতীয় পতাকা বিকৃতি ও অবমাননাকারী শিক্ষকদের বহিষ্কার ও শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

রোববার (২০ ডিসেম্বর) স্থানীয় ২৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন পার্কের মোড়ে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে পতাকা বিকৃতি ও অবমাননাকারীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার ও গ্রেপ্তার করে শাস্তির দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, ‘যারা দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রম ও ত্রিশ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত পতাকার মূল্য বোঝে না, তাদের এই দেশে থাকার অধিকার নেই। তারা এই দেশ ও জাতির শত্রু। জাতি গড়ার কারিগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছ থেকে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায়না।


ভাস্কর্য ভাঙার মূল পরিকল্পনাকারী যুবলীগ নেতাকে বহিষ্কার

যে কারণে বিয়ের কয়েক ঘন্টা পরেই বিচ্ছেদ!

এবার কে হবেন হেফাজত মহাসচিব! আলোচনায় মামুনুলও


বক্তারা বলেন, এর আগে মুজিববর্ষ উপলক্ষে গত ১৭ মার্চ জুতা পায়ে দিয়ে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছিলেন, তারাই আবার জাতীয় পতাকা বিকৃতি করেছে। এরা জামাত-শিবিরের দোসর। খোলস পালটে তারা বারবার মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে অপমান করছে। এদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। নইলে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দেন বক্তারা।

২৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নেছার আহমেদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মহানগর যুবলীগের সভাপতি সিরাজুম মুনির বাসার, মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী তুহিন, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নওশাদ রশিদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ওবায়দুর রহমান ময়না, সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শাহাদাৎ হোসেন, সদস্য ইদ্রিস আলী, ৩২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি মাহবুবুর রহমান, মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ফয়সাল আজম ফাইন প্রমুখ।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালালো রোহিঙ্গা নারী

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালালো রোহিঙ্গা নারী

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল থেকে কর্তব্যরত তিন পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে স্বামীকে রেখে পালিয়েছে জেসমিন বেগম (২২) নামে এক রোহিঙ্গা নারী 

সে ভাসানচরের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রক্লাস্টার নং ২৭, হাউজ-বি-থ্রি এর মো.সাইফুল ইসলামের স্ত্রী। শনিবার ভোর রাতে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটে। 

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম বলেন একজন রোহিঙ্গা নারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে পালিয়ে গেছে বলে শুনেছি। তবে এ বিষয়ে এখন আমি বিস্তারিত কিছু বলতে পারবোনা।


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

গান দিয়ে করোনা ঠেকানোর ব্যাতিক্রম উদ্যোগ

দেশে বাজারে আবারও কমছে স্বর্ণের দাম


অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) দীপক জ্যোতি খীসা গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, গত ২ ফেব্রুয়ারি রাত ৩টা ৩০ মিনিটের দিকে গলায় টিউমার অপারেশন করতে স্বামী এবং শিশু সুমাইয়া আক্তারকে (৬) সাথে নিয়ে রোহিঙ্গা নারী জেসমিন নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে ভর্তি হয়। 

পরে শনিবার ভোর রাতে শিশু বাচ্চাকে প্রসাব করানোর কথা বলে বাথরুমে নিয়ে যায়। এক পর্যায়ে বাথরুমে গিয়ে কর্তব্যরত পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে তার স্বামীকে রেখে শিশু বাচ্চাকে নিয়ে পালিয়ে যায় রোহিঙ্গা নারী।  

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করটিয়া সরকারি সা’দত কলেজে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

টাঙ্গাইলের করটিয়া সরকারি সা’দত কলেজের ছয়টি বিভাগের শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকালে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের শুরুতেই একটি র‌্যালি বের করা হয়। দুপুরের খাবার শেষে আয়োজন করা হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও র‌্যাফেল ড্র এর। 

১৯৯৫ সালে টাঙ্গাইলের করটিয়া সরকারি সা’দত কলেজের ছয়টি বিভাগ থেকে ১৮২জন সহপাঠী ছাত্র-ছাত্রী পরিষদের উদ্যোগে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 


মশা মারতে গিয়ে পুড়ে গেলেন মা ও দুই মেয়ে

আস্থা ভোটে জিতলেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

চিকিৎসাপত্র ছাড়াই ওষুধ কিনছেন ক্রেতারা, রোগী দেখছেন ফার্মেসি মালিকরা

দেশে বাজারে আবারও কমছে স্বর্ণের দাম


এতে অংশ নিয়েছেন ৯৫’ ব্যাচের রাষ্ট্রবিজ্ঞান, হিসাব বিজ্ঞান, ইতিহাস, অর্থনীতি, বাংলা ও প্রাণী বিদ্যা বিভাগের ১৮২জন শিক্ষার্থীসহ তাদের পরিবারের সদস্যরা।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে কৃষকের রহস্যজনক মৃত্যু

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে কৃষকের রহস্যজনক মৃত্যু

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চরএলাহী ইউনিয়ন থেকে মুকবুল আহমেদ (৪৩) নামে কৃষকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। সে দক্ষিণ চরএলাহী গ্রামের ৫নং ওয়ার্ডের হাজী ফকির আহমদের ছেলে। পরিবারের দাবি এটি হত্যাকাণ্ড। তবে পুলিশ তাৎক্ষণিক মৃত্যুর কোন কারণ জানাতে পারেনি।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

জানা যায়, মুকবুল আহমেদ তার খামার ঘরে একা ছেলেন। তার স্ত্রীসহ পরিবারের সদস্যরা ৩দিন আগে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বিয়েতে যায়। শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পাশ্ববর্তী এক নারী মুকবুল আহমেদকে ডাকতে গেলে ঘর থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে লোকজন ডেকে জড়ো করেন।


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বাক্‌স্বাধীনতা সুরক্ষিত রাখতে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বান

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা


এ সময় স্থানীয়রা ঘরে ঢুকে চৌকির উপর মুকবুলের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। স্থানীয়দের ধারণা একদিন আগে তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। পরিবারের দাবি এটি হত্যাকাণ্ড। তবে পুলিশ তাৎক্ষণিক মৃত্যুর কোন কারণ জানাতে পারেনি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মশা মারতে গিয়ে পুড়ে গেলেন মা ও দুই মেয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক

মশা মারতে গিয়ে পুড়ে গেলেন মা ও দুই মেয়ে

মশা মারার ইলেকট্রিক ব্যাট দিয়ে মশা মারতে গিয়ে হঠাৎ বিস্ফোরণ। আর সেই বিস্ফোরণে দগ্ধ হলেন মা ও দুই মেয়ে। গতকাল মধ্যরাতে ফেনী পৌরসভার শহীদ শহীদুল্লা কায়সার সড়কের শফিক ম্যানশনের ছয় তলা ভবনের পঞ্চম তলায় এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় ৪ সদস্যের বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ দল ফেনী পৌঁছে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে আজ দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সম্মেলনকক্ষে ব্রিফিং করেন ফেনীর পুলিশ সুপার (এসপি) খন্দকার নুরুন্নবী।

সংবাদ ব্রিফিংয়ে ফেনী ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা জাকের হোসেন, ডিএমপির ৪ সদস্যের বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ দলের প্রধান মোদাচ্ছের কায়সার উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, রান্নাঘরের চুলা ভালোভাবে বন্ধ করা হয়নি। সেখান থেকে ক্রমাগত গ্যাস বের হচ্ছিল। সেই গ্যাস দরজা-জানালা বন্ধ ঘরে জমা হতে থাকে। এ সময় মশা মারতে ইলেকট্রিক ব্যাট ব্যবহার করা হয়। ব্যাটের স্পার্ক থেকে মুহূর্তেই ঘরে জমা গ্যাসে আগুন ধরে বিস্ফোরণ ঘটে। ফারাহ এবার এইচএসসি পাস করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির চেষ্টা করছেন। হাফসা স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

ফেনীর পুলিশ সুপার বলেন, ফেনীর ফায়ার সার্ভিস ও ডিএমপির বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছে যে ওই বাসায় বোমা বিস্ফোরণের আলামত নেই। তারপরও পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম (বোম ডিসপোজাল) ইউনিটের আরও একটি দল আসবে। তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখবে। 

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে তারা ধারণা করছেন যে গ্যাসের চুলা আগুনবিহীন অবস্থায় চালু ছিল। সেখান থেকে গ্যাস লিকেজ হতে হতে বন্ধ কক্ষগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। ইলেকট্রিক ব্যাট দিয়ে মশা মারার চেষ্টা করলে সেটি স্পার্ক করে। সেখান থেকে বিস্ফোরণ এবং মা ও দুই মেয়ে দগ্ধ হওয়ার ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণে ঘরের দরজা-জানালা ভেঙে চুরমার হয়ে যায়। দগ্ধদের সঙ্গে কথা বলেও একই ধরনের তথ্য পাওয়া গেছে। 


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বাক্‌স্বাধীনতা সুরক্ষিত রাখতে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বান

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা


শুক্রবার (৫ মার্চ) মধ্যরাতে বিস্ফোরণের ঘটনায় মুহূর্তে লন্ডভন্ড হয়ে যায় ওই বাসা। বিস্ফোরণে বাসার বারান্দার দেয়াল ও গ্রিল ভেঙে পাশের বাসার ছাদে পড়ে। পঞ্চম তলার অপর ইউনিট ছাড়াও ভবনের ৬ষ্ঠ, ৩য় ও ৪র্থ তলার সব ইউনিটের দরজা ভেঙে যায়। এ সময় বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বিস্ফোরণে পঞ্চম তলায় থাকা মা ও দুই মা দগ্ধ হন।

মা ও হাফসার শরীরের ৬০ শতাংশ পুড়ে যায়। তাদের দুজনকে ঢাকায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের বাড়ি চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের করেরহাট ইউনিয়নের ছত্তরুয়া গ্রামে। মেহেরুন নেছার স্বামী মাহফুজুল ইসলাম সংযুক্ত আরব আমিরাতপ্রবাসী।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সিংড়া হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি শীতল, সম্পাদক মানসী

নাটোর প্রতিনিধি

সিংড়া হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি শীতল, সম্পাদক মানসী

সভাপতি শীতল, সম্পাদক মানসী

নাটোরের সিংড়ায় বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলা পরিষদ হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সিংড়া পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মো. জান্নাতুল ফেরদৌস, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের জেলা কমিটির সভাপতি চিত্তরঞ্জন দাস, সাধারণ সম্পাদক খগেন্দ্র নাথ রায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওহিদুর রহমান শেখ, পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি গোপাল বিহারী দাস, সাধারণ সম্পাদক চাঁদ মোহন হালদার প্রমুখ।


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বাক্‌স্বাধীনতা সুরক্ষিত রাখতে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বান

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা


সম্মেলনে অধ্যাপক শীতল কুমারকে সভাপতি, এড. মানসী ভট্টাচার্জকে সাধারণ সম্পাদক, পংকজ কুমারকে ১ নং যুগ্ম সম্পাদক ও রবিন কুন্ডুকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। পরে রুপ কুমারকে সভাপতি ও স্বপন কুমারকে সাধারণ সম্পাদক করে ছাত্র ঐক্য পরিষদ গঠন করা হয়।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর