পিরোজপুরে মেয়র পদে ৩ ও কাউন্সিলর পদে ৪৬ প্রার্থী

ইমন চৌধুরী, পিরোজপুর

পিরোজপুরে মেয়র পদে ৩ ও কাউন্সিলর পদে ৪৬ প্রার্থী

দ্বিতীয় দফা পৌরসভা নির্বাচনে রোববার (২০ ডিসেম্বর) ছিল প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন।

পিরোজপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ৩ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. হাবিবুর রহমান মালেক, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শেখ শহীদুল্লাহ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী এস. এম. ছাইদুল ইসলাম কিসমত।

নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন ৪৬  প্রার্থী। এর মধ্যে সংরক্ষিত (মহিলা) কাউন্সিলরের তিনটি আসনে ৮ প্রার্থী এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৯টি ওয়ার্ডে ৩৮ প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বর্তমান মেয়র মো. হাবিবুর রহমান মালেকের পক্ষে রবিবার দুপুরে পিরোজপুর জেলা রিটানিং অফিসারের কাছে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা  এ কে এম এ আউয়াল।


আরও পড়ুন: ময়মনসিংহে ট্রাকের ধাক্কায় অটোরিকশার তিন যাত্রী নিহত


এর আগে ১৯ ডিসেম্বর (শনিবার) জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী জেলা বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল্লাহ (শহীদ) মনোনয়ন পত্র জমা দেন। 

এছাড়া জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এস.এম. ছাইদুল ইসলাম কিসমত স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, দ্বিতীয় দফার পৌরসভা নির্বাচন ১৬ জানুয়ারী ২০২১ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। 

পিরোজপুর পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ৪৫ হাজার ১৮৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২২ হাজার ২০৫ জন এবং মহিলা ভোটার ২২ হাজার ৯৮০ জন।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

স্কুল খোলার উস্কানি দেশকে মহামারীর দিকে নেওয়ার ষড়যন্ত্র: আমু

অনলাইন ডেস্ক

স্কুল খোলার উস্কানি দেশকে মহামারীর দিকে নেওয়ার ষড়যন্ত্র: আমু

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র আমির হোসেন আমু বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী ও সুদূরপ্রসারী নেতৃত্বের কারণে করোনা সংকট উত্তরণের পথে আজ বাংলাদেশ। সকল প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে দেশকে যখন তিনি উন্নয়ন আর অগ্রযাত্রার পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, সাধারণ মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়ন করছেন, স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার মতো পরিবেশ সৃষ্টি হচ্ছে, তখনই আবার ষড়যন্ত্রকারীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে, বিভিন্ন ইস্যুতে উস্কানী দিচ্ছে।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের ভার্চুয়াল আলোচনাসভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আরও পড়ুন:


স্ত্রীকে সৌদি পাঠিয়ে ৮ বছরের মেয়েকে নিয়মিত ধর্ষণ করে বাবা

বন্ধুর স্ত্রীর ‘গোপন ভিডিও’ ধারণ, ভয় দেখিয়ে আটমাস ধরে ‘ধর্ষণ’

কুমিল্লাগামী বাসে দরজা-জানালা বন্ধ করে তরুণীকে ধর্ষণ!

কলাইক্ষেতে নারীর অর্ধনগ্ন মরদেহ, পাশে পাজামা-ছাতা-স্যান্ডেল


আমির হোসেন আমু বলেন, করোনা সংকটকালে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার জন্য যারা উস্কানি দিচ্ছে, ছাত্রসমাজের তো নয়-ই তারা দেশ ও জাতির শত্রু। ওই ষড়যন্ত্রকারীরা দেশকে একটি ভয়াবহ মহামারীর দিকে নিয়ে যাওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

বিএনপির উদ্দেশ্যে আমির হোসেন আমু বলেন, পায়ের নীচে মাটি না থাকলে আন্তর্জাতিক বলয়ের সাথে হাত মিলিয়ে দেশীয় ভিত কাঁপানো যায় না। আওয়ামী লীগ সরকারের শিকড় অনেক গভীরে।

আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক  মৃনাল কান্তি দাসের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য, কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি,  জাতীয় পার্টি জেপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, বাংলাদেশের  ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তার, তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, বাংলাদেশ গণ আজাদী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এস কে সিকদার, গণতন্ত্রী পার্টি র সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের আহবায়ক ডা. ওয়াজেদ আলী খানসহ ১৪ দলের নেতারা।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নতুন কৌশলে মাঠে কাদের মির্জা

নিজস্ব প্রতিবেদক

নতুন কৌশলে মাঠে কাদের মির্জা

কেন্দ্রের নির্দেশে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের সব সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত আছে। 

আজ সকালে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা, পৌরসভা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সব সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিতের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়। 

যাতে বলা হয়েছে সংগঠনের ঊর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে পুনরায় আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জাতীয় দিবস ও জাতীয় কর্মসূচি ছাড়া কোনো ধরনের সভা-সমাবেশ থেকে বিরত থাকার জন্য সব পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে। চিঠিতে সাম্প্রতিক সময়ের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি এড়াতে সব কর্মসূচি বাদ দিয়ে সহনশীল আচরণ বজায় রাখার জন্য আহ্বান জানান জেলা সভাপতি।

এ অবস্থায় নতুন কৌশলে বসুরহাটের মাঠ গরম রাখার চেষ্টা করছেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। তিনি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক ও সেতুমন্ত্রীর ছোট ভাই।

কৌশলের অংশ হিসেবে আজ সকাল ৯টার দিকে তিনি পৌরসভার লোকজন ও কয়েকজন দলীয় কর্মীকে নিয়ে পৌর এলাকায় করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণে উদ্বুদ্ধকরণ ও সচেতনতামূলক প্রচারণা চালান। তাঁর সঙ্গে থাকা এক ব্যক্তি হ্যান্ডমাইকে টিকা নেওয়ার ঘোষণা প্রচার করেন। এই আয়োজন কাদের মির্জার একাধিক অনুসারী ফেসবুকে লাইভ প্রচার করেন।


ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছেছে টাইগাররা

স্পেনে ঢুকতে অভিবাসীর অভিনব পন্থা

গোয়েন্দাদের ব্যর্থতাতেই ক্যাপিটলে হামলা

মিয়ানমারের ১০৮৬ নাগরিককে ফেরত পাঠালো মালয়েশিয়া


ফেসবুকে লাইভ প্রচার করা ওই ভিডিওতে দেখা যায়, প্রচারণার একপর্যায়ে কাদের মির্জা তাঁর এক অনুসারী দলীয় কর্মীকে ডেকে বলছেন, ‘আজ তুমি গিয়ে শক্ত হয়ে অফিসে বসে থাকবে।’ এ কথা বলার পাশাপাশি কাদের মির্জা ওই কর্মীকে আরও কিছু নির্দেশনা দেন। এই কথাগুলো স্পষ্ট নয়।

সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী বলেন, কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুসারে সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত আছে। এ সময় কোম্পানীগঞ্জ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কোনো পর্যায়ের নেতা সভা-সমাবেশ, এমনকি ফেসবুক লাইভে এসে বক্তৃতা ও বিবৃতি প্রচার করতে পারবেন না। কেউ যদি তা করেন, তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে কাদের মির্জার সেই মঞ্চ গুটিয়ে নিলেন

আকবর হোসেন সোহাগ, নোয়াখালী

নোয়াখালীতে কাদের মির্জার সেই মঞ্চ গুটিয়ে নিলেন

অবশেষে মঞ্চটি গুটিয়ে নিলেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। এ মঞ্চেই গত প্রায় দেড় মাস ধরে সত্য বচন গেয়েছিলেন তিনি। মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে মঞ্চ সরানোর কার্যক্রম শুরু হয়। 

মঞ্চ সরানোর সময় আবদুল কাদের মির্জা কিছু সময় স্বশরীরে উপস্থিত ছিলেন। পরে ঘটনাস্থলে যান কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুপ্রভাত চাকমা ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি উপস্থিত ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আবদুল কাদের মির্জা বসুরহাট পৌরসভার নির্বাচনের পর থেকেই কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে শহরের রূপালি চত্তরে বাঁশের খুটি পুঁতে ও কাঠ দিয়ে মঞ্চ তৈরি করে এখানে তার নানা কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছেন।


ভাইরাল পাকিস্তানি ‘স্ট্রবিরিয়ানি’

যুক্তরাজ্য মুরগির মাংস খেয়ে মৃত ৫, অসুস্থ কয়েকশ

জাতিসংঘের গাড়িবহরে হামলা, ইতালির রাষ্ট্রদূতসহ নিহত তিন

স্কুলের খাদ্য তালিকা থেকে মাংস বাদ দিয়ে বিপাকে মেয়র


অন্তত দেড় মাস ধরে এ মঞ্চে তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের নামের সঙ্গে অনিয়ম-দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগের তকমা মাখেন। অবশেষে মঙ্গলবার রাতে ওই মঞ্চটি তিনি সরিয়ে নেন। 

এ বিষয়ে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন ধরেননি। পরে কথা হয় কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনির সঙ্গে। তিনি জানান, আবদুল কাদের মির্জাকে তার মঞ্চ সরিয়ে নিতে বলা হলেও তিনি তা নেননি। 

প্রশাসন মঞ্চের কাছ থেকে সরে গেলে তিনি পুনরায় সেখানে কর্মসূচি করার চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে রাত ৯টার দিকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার সুপ্রভাত চাকমাসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে তিনি মঞ্চটি সরিয়ে নেন। 

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে কাজ করছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

অনলাইন ডেস্ক

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে কাজ করছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস তুলে ধরে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে এই মুহুর্তে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আরো বৃহত্তর ঐক্য গঠনে কাজ করছে বলেও জানান আ স ম আব্দুর রব। 

বাংলাদেশ নামের স্বপ্নদ্রষ্টা হলেন সিরাজুল আলম খান, স্বাধীনতার নেপথ্যের রুপকার হিসেবে সুবর্ণ জয়ন্তীতে তাকেই জাতির সামনে তুলে ধরা প্রয়োজন- বলেছেন জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব। বুধবার উত্তরায় নিজের বাসায় সংবাদ সম্মেলনে এই আহ্বান জানান তিনি।


ভাইরাল পাকিস্তানি ‘স্ট্রবিরিয়ানি’

যুক্তরাজ্য মুরগির মাংস খেয়ে মৃত ৫, অসুস্থ কয়েকশ

জাতিসংঘের গাড়িবহরে হামলা, ইতালির রাষ্ট্রদূতসহ নিহত তিন

স্কুলের খাদ্য তালিকা থেকে মাংস বাদ দিয়ে বিপাকে মেয়র


আ স ম রব বলেন, স্বাধীনতার অপ্রকাশ্য ইতিহাস তুলে ধরতে স্বাধীন বাংলা নিউক্লিয়াসের কর্মকান্ডগুলোও জাতির জানা প্রয়োজন। 

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দলের শৃঙ্খলা কেউ নষ্ট করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

দলের শৃঙ্খলা কেউ নষ্ট করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: কাদের

যে যার মতো বক্তব্য দিয়ে দলের ভাবমূর্তি বিনষ্টকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। 

রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের একথা জানান।

মন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সভায় যুক্ত হন। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দলের শৃঙ্খলা বিরোধী কার্যকলাপে কেউ জড়িত থাকলে, যত বড়ই নেতা হোক, কেউ পার পাবে না। কে কোথায়, কখন কি করছেন সবাই নজরদারিতে আছেন, শীগগিরিই তাদের বিরুদ্ধে আগামী কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির সভায় সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গুটি কয়েক লোক বদনাম করলে, দল তার বোঝা নিবে না বলেও স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দেন ওবায়দুল কাদের। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, দল করলে দলের শৃঙ্খলা মেনে চলতে হবে। মনে রাখতে হবে দলে যে কোন পর্যায়ে শেখ হাসিনা ছাড়া কেউ অপরিহার্য নয়।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের উদ্দেশে বলেন নিজের অবস্থান ভারী করার জন্য পকেটে কমিটি বরদাস্ত করা হবে না। সম্মেলনের মাধ্যমে তৃণমূল থেকে পর্যায়ক্রমে  থানাপর্যন্ত কমিটি গঠন করতে হবে। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে পরাজিত করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সবাইকে ঐকবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান। 

তিনি বলেন ত্যাগীদের মূল্যায়ন করতে হবে। তারাই দুঃসময়ে দলের সাথে থাকবে, বসন্তের কোকিলদের খুঁজেও পাওয়া যাবে না। বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অর্জনের ধারাকে অব্যাহত রাখতে হলে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় থাকতে হবে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন সেজন্য সবাইকে ঐকবদ্ধ থাকতে হবে।

আরও পড়ুন:


লিবিয়া থেকে ফিরলেন ১৪৮ বাংলাদেশি, সঙ্গে ৭ মরদেহ

ঠাকুরগাঁওয়ে আবারও বিরল প্রজাতির নীলগাই উদ্ধার

খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক

বার্মিংহামে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল বাংলাদেশি দম্পতির


আওয়ামী লীগ একটি পরিবার, যারা এই পরিবারের ঐক্যে ফাটল ধরাবে তাদেরকে কোন ভাবেই ক্ষমা করা হবে না বলেও সাফ জানিয়ে দেন। দলের অভ্যন্তরে বিষয়ে কোন বক্তব্য বা দ্বিমত থাকলে তা দলীয় ফোরামে আলোচনা করতে হবে, তাতেও সমাধান না হলে লিখিতভাবে সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে জমা দিতে হবে।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, দলের জেলা,উপজেলা, থানা পর্যায়ের যে কোন কমিটি কেন্দ্রের অনুমতি ছাড়া বাতিল করা যাবে না। 

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফীর সভাপতিত্বে  বর্ধিত সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবিরসহ অন্যান্য কেন্দ্রীয় ও মহানগরের নেতৃবৃন্দ।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর