টিএসসি ভবন ভাঙা নিয়ে বিতর্ক, তাহলে সিদ্ধান্ত কি?

অনলাইন ডেস্ক

টিএসসি ভবন ভাঙা নিয়ে বিতর্ক, তাহলে সিদ্ধান্ত কি?

বেশ কয়েকদিন থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র - টিএসসি ভবন ভাঙা নিয়ে বিতর্ক চলছেই। টিএসসির উন্নয়নের একটি পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে সরকার। আর সেই থেকেই এই বিতর্কের শুরু। তবে টিএসসি ভবন ভেঙে সেখানে আবারও নতুন ভবন হবে কি না সে বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছে গণপূর্ত অধিদপ্তর এবং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

টিএসসির ভারপ্রাপ্ত পরিচালক সৈয়দ আলি আকবর বলেন, এরইমধ্যে গণপূর্ত অধিদপ্তর টিএসসিতে কয়েক দিন ধরে সার্ভে পরিচালনা করেছে। এ বিষয়ে তাদের সহযোগিতাও দিয়েছেন তারা।

এর আগে গত ২ সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের এক বৈঠকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন, টিএসসিকে নতুন করে গড়ে তুলতে চান তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আক্তারুজ্জামান বলেন, "এটি আরেকটু সামনে অগ্রসর হোক, তথ্যগুলো আরো ঘনীভূত হোক, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা যাদেরকে দিয়েছেন সেই তথ্যগুলো আসুক, তারপর বলা যাবে।"

ঢাকার গণপূর্ত অধিদপ্তরের সার্কেল চার এর নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান বলেন, টিএসসির উন্নয়নের যে প্রকল্প রয়েছে সেটি পরিকল্পনা নিয়ে কাজ চলছে। এ বিষয়ে একটি টিম কাজ করছে। তাদের পরিকল্পনায় কী রয়েছে সে বিষয়ে চলতি মাসের ১০ তারিখে একটি উপস্থাপনা হওয়ার কথা থাকলেও এখনো সেটি হয়নি।

টিএসসির বর্তমান স্থাপনা ভাঙা হবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, যেহেতু পরিকল্পনাটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি, তাই এ বিষয়ে আসলে সিদ্ধান্তও আসেনি।

তবে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত না হলেও এরইমধ্যে এই বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন স্থানে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

অনেকেই বলছেন যে, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী বাড়ার সাথে সাথে এর উন্নয়ন দরকার। আবার অনেকেই মনে করছেন, উন্নয়ন হতে হলে ইতিহাস বা ঐতিহ্যকে সাথে নিয়েই হতে হবে। সেটাকে বাদ দিয়ে শুধু ভবন নির্মাণ উন্নয়নের অংশ হতে পারে না।

গ্রিক স্থপতি কনস্ট্যান্টিন ডক্সিয়াডেস ষাটের দশকের শুরুতে টিএসসির নকশা করেছিলেন। পূর্ব পাকিস্তানের তৎকালীন সামরিক শাসক জেনারেল আইয়ুব খানের আমলে ভবনটির নির্মাণকাজ শেষ হয়।

তবে শুধু টিএসসি নয়, গত নভেম্বরের শেষ দিকে মতিঝিল থেকে কমলাপুর পর্যন্ত মেট্রোরেলের লাইন সম্প্রসারণ এবং মাল্টিমোডাল ট্রান্সপোর্ট হাব নির্মাণের জন্য কমলাপুর রেলস্টেশন ভবনটির একাংশ ভাঙার প্রস্তাব দেয় মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ। এই বিষয়টি নিয়েও প্রতিবাদ করেন অনেকে।

পরে কমলাপুর রেলস্টেশন ভবনটি ভেঙ্গে কাছাকাছি জায়গায় পুনর্নির্মাণ করতে বাংলাদেশ রেলওয়ে এবং মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ একটি পরিকল্পনায় সম্মত হয়।

কমলাপুর রেলস্টেশন ভবন ভাঙার যারা প্রতিবাদ করেন তাদের মধ্যে একজন বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউটের নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট এবং একজন স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন।

তিনি বলেন, প্রতিবাদ মানেই উন্নয়ন না চাওয়া নয়। বরং এর বিকল্পের দাবি তোলা। "প্রতিবাদ মানে হচ্ছে যে উন্নয়ন কাজগুলি হবে সেটাকে সুন্দরভাবে গ্রহণযোগ্য অলটারনেটিভ বা বিকল্প।"


আরও পড়ুন: চিনিকল বন্ধের সিদ্ধান্ত অমানবিক: চরমোনাই পীর


"তাহলে তো যেকোন দিন হতে পারে যে, লালবাগ ফোর্ট ভেঙ্গে সেখানে বিরাট অফিস বিল্ডিং বা কোয়ার্টার বানানো হোক। ওই খানে তো বিরাট জায়গা আছে। কিন্তু এইটা তো সঠিক সিদ্ধান্ত না," বলেও জানান মোবাশ্বের হোসেন।

টিএসসির বিষয়ে মোবাশ্বের হোসেন বলেন, টিএসসির ভবন ভেঙে নয় বরং এটিকে অক্ষত রেখে কিভাবে একে আধুনিকভাবে গড়ে তোলা যায়, এর আশেপাশের জায়গা ব্যবহার করে সেগুলো কতটা ভালভাবে ব্যবহার করা যায় সে বিষয়ে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, উন্নয়ন বলতে বোঝায়, কোনো কিছুকে কি উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হচ্ছে বা ব্যবহার করতে চাওয়া হচ্ছে যদি সেই উদ্দেশ্য পরিবর্তন না হয়, আর যদি সেটাকে যুগোপযোগী করতে চাওয়া হয়, তাহলে ওই অবস্থার মধ্যেই সেটাকে করতে হবে। আর এর জন্য সবচেয়ে বড় সহযোগিতা করবে প্রযুক্তি।

"ছোট ছোট জিনিস পরিবর্তন-পরিবর্ধন করে সমস্ত জিনিস একই রেখে আসবাব কিংবা ল্যান্ডস্কেপিংয়ে পরিবর্তন এনে সেটা আধুনিক করা সম্ভব। এটা নতুন নয়। পৃথিবীর বহু স্থানেই এটা করা হয়েছে," বলছিলেন তিনি।

এ বিষয়ে তিনি পানামনগরীর উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, ওই স্থানটিকেও সংস্কার করা হয়েছে কিন্তু সব কিছুকে অক্ষত রেখে। 
সূত্র: বিবিসি বাংলা।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দেশে করোনায় মৃত্যু বাড়ল

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে করোনায় মৃত্যু বাড়ল

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে আট হাজার ৪৫১ জনের। এ ছাড়া নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৫৪০ জন। ফলে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৪৯ হাজার ৭২৪ জনে।

আজ শনিবার (৬ মার্চ) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বাক্‌স্বাধীনতা সুরক্ষিত রাখতে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বান

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা


প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৮২২ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন পাঁচ লাখ এক হাজার ৯৬৬ জন। সারা দেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২১৯টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। 

গতকাল শুক্রবার করোনায় ৬ জনের মৃত্যু এবং রোগী শনাক্ত হয়েছে ৬৩৫ জন। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বাক্‌স্বাধীনতা সুরক্ষিত রাখতে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বান

অনলাইন ডেস্ক

বাক্‌স্বাধীনতা সুরক্ষিত রাখতে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বান

বাক্‌স্বাধীনতার অধিকার সুরক্ষিত রাখতে ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের অবসান ঘটাতে বাংলাদেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে নয়টি মানবাধিকার সংস্থা। 

শুক্রবার মানবাধিকার সংস্থাগুলো যৌথ বিবৃতিতে জানায়, ২৫ ফেব্রুয়ারি কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনায় বিচার দাবিতে শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও বিক্ষোভের প্রতি সরকারকে শ্রদ্ধাশীল থাকতে হবে।

নয়টি মানবাধিকার সংস্থা হলো, এশিয়ান ফেডারেশন অ্যাগেইনস্ট ইনভলানটারি ডিসঅ্যাপিয়ারেন্স (এএফএডি), এশিয়ান ফোরাম ফর হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (ফোরাম-এশিয়া), এশিয়ান হিউম্যান রাইটস কমিশন (এএইচআরসি), এশিয়ান নেটওয়ার্ক ফর ফ্রি ইলেকশন (এএনএফআরইএল), সিভিকাস: ওয়ার্ল্ড অ্যালায়েন্স ফর সিটিজেন পার্টিসিপেশন, ইলিয়স জাস্টিস-মোনাশ ইউনিভার্সিটি, এফআইডিএইচ: ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন ফর হিউম্যান রাইটস, ওএমসিটি: ওয়ার্ল্ড অর্গানাইজেশন অ্যাগেইনস্ট টর্চার এবং রবার্ট এফ কেনেডি হিউম্যান রাইটস।


কুমিরের পেট থেকে বের করা হচ্ছে আস্ত মানুষ (ভিডিও)

প্রেমের বিয়ের ৪ মাসের মাথায় নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আবারও স্বর্ণের দরপতন, ৯ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন দাম

চুম্বনের দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতো ইমরান : বিদ্যা


যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, লেখক মুশতাক আহমেদকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় ২০২০ সালের মে মাসে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি ফেসবুক ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন পোস্ট দিতেন ও আলোচনা করতেন, যা সরকারের কাছে সমালোচনামূলক মনে হয়। কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনায় জীবনের মৌলিক অধিকার, ব্যক্তিস্বাধীনতা ও বাক্‌স্বাধীনতার অধিকার নিয়ে গভীর উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, লেখক মুশতাক আহমেদের মতো কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরকেও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়। ১০ মাস কারাগারে থাকার পর ৪ মার্চ তিনি জামিনে মুক্তি পান।

এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মানবাধিকার সংস্থাগুলো যৌথ বিবৃতিতে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু ও কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরকে নির্যাতনের অভিযোগের দ্রুত, পুঙ্খানুপুঙ্খ, নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ তদন্ত করতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে, দায়ী ব্যক্তিদের অবশ্যই শনাক্ত করতে হবে ও বিচারের আওতায় আনতে হবে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নারীর সঙ্গে সময় কাটানো সেই তুষার এখনো কাশিমপুর কারাগারেই

অনলাইন ডেস্ক

নারীর সঙ্গে সময় কাটানো সেই তুষার এখনো কাশিমপুর কারাগারেই

কারাগারে বন্দি হল-মার্কের মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমদ বিধি লঙ্ঘন করে নারীর সঙ্গে সময় কাটানোর ঘটনায় দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি হয়। দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে নিউজের পরিপ্রেক্ষিতে এই বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে কারা অধিদপ্তর তদন্ত কমিটি গঠন করে।

তদন্ত কমিটির রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে গাজীপুরের কাশিমপুর-১ কারাগারে তখনকার সিনিয়র জেল সুপার রত্না রায়, জেলার নূর মোহাম্মদ মৃধা ও ডেপুটি জেলার গোলাম সাকলায়েনসহ ১১ জনকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া আরও সাত জনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

টাকার বিনিময় বন্দির সঙ্গে কারাগারের ভেতরে নারীর সঙ্গে সময় কাটানো সেই মূল হোতা হল-মার্কের মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমদ এখনো কাশিমপুর-১ (হাই সিকিউরিটি) কারাগারেই আছেন।  

শনিবার (৬ মার্চ) দুপুরে এ ব্যাপারে কথা হয় কাশিমপুর-১ এর সিনিয়র জেল সুপার গিয়াস উদ্দিনের সঙ্গে। তিনি জানান, হল-মার্কের মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমেদ এখনো সেই কারাগারেই আছেন।  

এদিকে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের সভাপতি আইনজীবী মনজিল মোরশেদ জানান, ফৌজদারি অপরাধ সে যেখানে বসেই করুক, সেটা প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে। যেহেতু আসামি কারাগারের মাধ্যমে সুবিধা নিয়েছেন। কারাবিধি অনুযায়ী কারা কর্তৃপক্ষ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।  

এ ব্যাপারে কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোমিনুর রহমান মামুন বলেন, তুষারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তাকে অন্য কারাগারে নেওয়া হতে পারে।

আরও পড়ুন:


জিয়ার খেতাব বাতিলের বিষয়ে যা বললেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী

পরমাণু সমঝোতায় আমেরিকার অবস্থান জানতে জরুরী বৈঠকে বসার আহ্বান

মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফেরাতে নিরাপত্তা পরিষদকে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান

শেখ হাসিনা কমনওয়েলথের সেরা তিন নারী নেতার একজন


এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, ঘটনার তদন্ত রিপোর্টে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। সে অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

গত ৬ জানুয়ারি তুষার আহমদকে বিধি লঙ্ঘন করে এক নারীর সঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ দেওয়ায় কাশিমপুর-১ কারাগারের তখনকার সিনিয়র জেল সুপার রত্না রায়, জেলার নূর মোহাম্মদ মৃধা ও ডেপুটি জেলার গোলাম সাকলায়েনসহ ১১ জনকে বরখাস্ত করা হয়। এছাড়া আরও সাত জনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সূত্র: বাংলানিউজ।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

জিয়ার খেতাব বাতিলের বিষয়ে যা বললেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

জিয়ার খেতাব বাতিলের বিষয়ে যা বললেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যার সঙ্গে যদি জিয়াউর রহমানের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়, তাহলে তদন্ত সাপেক্ষে খেতাব বাতিলের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শনিবার (৬ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘১৯শে মার্চ প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধ দিবস উদযাপন পরিষদ’র উদ্যোগে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

এসময় মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আরও বলেন, এখনও জিয়ার খেতাব বাতিল করা হয়নি। যারা বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত বা সাজাপ্রাপ্ত খুনি তাদের খেতাব বাতিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে একটি কমিটি তদন্ত করছে। তদন্ত করার পর জাতির সামনে তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করা হবে।

এর আগে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত উল্লেখ করে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মুক্তিযুদ্ধে অবদানের খেতাব ‘বীর উত্তম’ বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)। স্বাধীনতার প্রায় ৫০ বছর পর জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিল হলে তাদের সব রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধাও বাতিল হবে।

আরও পড়ুন:


পরমাণু সমঝোতায় আমেরিকার অবস্থান জানতে জরুরী বৈঠকে বসার আহ্বান

মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফেরাতে নিরাপত্তা পরিষদকে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান

শেখ হাসিনা কমনওয়েলথের সেরা তিন নারী নেতার একজন

মঙ্গলগ্রহে যাওয়া যাবে এলন মাস্কের ৩৬ তলা বাড়ির সমান মহাকাশযানে


পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় স্মরণীয় ব্যক্তিদের তালিকা থেকে খন্দকার মোশতাকের নামও বাদ পড়বে। একই সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি শরিফুল হক ডালিম, নূর চৌধুরী, রাশেদ চৌধুরী ও মোসলেহ উদ্দিনের রাষ্ট্রীয় খেতাবও বাতিলের সুপারিশ করা হয়।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

হজে যেতে টিকা নেয়া বাধ্যতামূলক

আরেফিন শাকিল

করোনা টিকা নেয়া ছাড়া চলতি বছর কেউ হজ করতে সৌদি আরব যেতে পারবেন না বলে জানিয়েছে সৌদি সরকার। হাব সভাপতি জানিয়েছেন, সৌদির নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে এজেন্সিগুলো বলা হয়েছে। 

আর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলেছে, লিখিত নির্দেশনা আসার পরপরই টিকা দেয়া শুরু করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। আরেফিন শাকিল জানাচ্ছেন বিস্তারিত।

করোনা মহামারির কারণে গেলো বছর বন্ধ ছিল বিদেশিদের জন্য হজ পালনের সুযোগ। তবে করোনা পরিস্থিতি উন্নতি হওয়ায় এবার হজ করার সুযোগ পাচ্ছেন বিদেশিরা। চলতি বছর বাংলাদেশ থেকে হজ করতে এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৬১ হাজার যাত্রী। প্রাক-নিবন্ধনের সংখ্যা ছাড়িয়েছেন দেড়  লাখের বেশি।

সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এবার বিদেশি হজ যাত্রীদের সৌদি যাওয়ার আগে করোনা টিকা নেয়া বাধ্যতামূলক। সৌদি সরকারের এমন সিদ্ধান্তের কথা নিশ্চিত করে হাব সভাপতি, যাত্রীদের দ্রুত টিকা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।


আবাসিক হোটেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ড, ধরা ২০ নারী

চুমু দিয়ে নারীদের সব রোগ সারিয়ে দেন ‘চুমুবাবা’

বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ


সৌদি সরকার এমন সিদ্ধান্ত এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে জানায়নি জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, হজ যাত্রীদের সংখ্যা নির্ধারণ হওয়ার পর তাদের টিকার আওতায় নিয়ে আসা হবে।

হজযাত্রীদের টিকার আওতায় আনার সরকারি কার্যক্রম শুরু না হলেও  এরইমধ্যে ব্যক্তিগত উদ্যোগে নিবন্ধিত অনেক যাত্রী করোনার টিকা নিয়েছেন।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর