‘জেনারেল সোলাইমানি হত্যায় আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য’
‘জেনারেল সোলাইমানি হত্যায় আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য’

‘জেনারেল সোলাইমানি হত্যায় আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য’

অনলাইন ডেস্ক

ইরাকের বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পরিচালনায় জড়িত ব্রিটিশ নিরাপত্তা কোম্পানি জি-৪এস ইরানের কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার ক্ষেত্রে মার্কিন সন্ত্রাসী বাহিনীকে সহযোগিতা করেছে।

ইরানের সরকারি কৌঁসুলি আলা আল-কাসি মেহের বুধবার এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ব্রিটেনের এ নিরাপত্তা কোম্পানি মার্কিন সেনাদের তথ্য দিয়ে হত্যাকাণ্ডে সহযোগিতা করেছে। ব্রিটিশ কোম্পানি জি-৪এস বাগদাদ বিমানবন্দরের বিমানের ফ্লাইটের নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্ব পালন করছিল।

জেনারেল সোলাইমানি ও তার সঙ্গীরা সিরিয়া থেকে বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছালে তাদের আসার খবর মার্কিন বাহিনীকে জানিয়ে দেয় ব্রিটেনের এই কোম্পানি।

ইরানের এ কৌসুঁলি জানান, হত্যকাণ্ড জড়িত অপরাধীদের চিহ্নিত এবং গ্রেফতারের জন্য ইরাক, সিরিয়া, লেবানন, কাতার, জর্দান এবং কুয়েত পরোয়ানা জারি করেছে। আমেরিকার বাইরে যেসব অপরাধী বিভিন্ন দেশে অবস্থান করছে তাদের খুঁজে বের করার জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে যাতে তাদের আটক করে ইরানে আনা যায়। ইরানের আইন কর্মকর্তা আরো জানান, জার্মানিতে অবস্থিত মার্কিন সামরিক ঘাঁটিও জেনারেল সোলাইমানি হত্যাকাণ্ডের আগে তথ্য সরবরাহের ক্ষেত্রে জড়িত ছিল।

২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি ভোরে ইরাকের বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়ে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করে মার্কিন সন্ত্রাসী বাহিনী। এ ঘটনার পাঁচ দিন পর ইরাক এ অবস্থিত দুটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে ব্যাপকভাবে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান।


রিছাং ঝরনায় পা পিছলে পড়ে ২ পর্যটকের মৃত্যু

স্বামীর 'গোপন অঙ্গ' কেটে বিচ্ছিন্ন করল স্ত্রী!

টয়লেটে যাওয়ার কথা বলে নববধূ উধাও


news24bd.tv / কামরুল