বরিশালে পুলিশি নির্যাতনে হাজতির মৃত্যুর অভিযোগ

রাহাত খান, বরিশাল

বরিশালে পুলিশি নির্যাতনে হাজতির মৃত্যুর অভিযোগ

বরিশাল শের-ই বংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রেজাউল করিম (৩০) নামে এক হাজতির মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের অভিযোগ তাকে নির্যাতন করে হত্যা করেছে পুলিশ। 

গত ৩১ ডিসেম্বর রাতে নগরের সাগরদি থেকে রেজাউল করিমকে আটক করে পুলিশ। নগর পুলিশের উপ-পরিদর্শক মহিউদ্দিন তাকে মাদকের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আটক করে। তার কাছ থেকে ১৩৮ গ্রাম গাজা এবং ৪টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন উদ্ধারের দাবি করে পুলিশ। রাতেই পুলিশ তার বিরুদ্ধে মাদকের মামলা দিয়ে পরদিন আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করে। 
 


আরও পড়ুন: লক্ষাধিক টাকার কাজ ১১ হাজার টাকায় করেন অপু!

শ্রীলেখার বর্ষবরণ যেভাবে

চোখের জলে ‘মিডিয়া’ থেকে দীপিকার বিদায়!


তবে রেজাউলের পরিবার পুলিশের নির্যাতনে তার মৃত্যুর অভিযোগ করেছে। তাদের দাবি সুস্থ্য মানুষটাকে ধরে নিয়ে শারীরিক নির্যাতনে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত পুলিশের কঠোর বিচার দাবি করেন তারা। এ বিষয়ে হাসপাতালের পরিচালক কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। 

ঘটনা তদন্ত করে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার। আইনের ব্যত্যয় হলে অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি। 

news24bd.tv আয়শা

 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নিষিদ্ধ যৌনাচারের সামগ্রী বিক্রিতে ত্রিশোর্ধ্ব নারী-পুরুষদের টার্গেট করত তারা

অনলাইন ডেস্ক

নিষিদ্ধ যৌনাচারের সামগ্রী বিক্রিতে ত্রিশোর্ধ্ব নারী-পুরুষদের টার্গেট করত তারা

রাজধানীতে নিষিদ্ধ যৌনাচারের সামগ্রী ও উদ্দীপক দ্রব্য নানা ধরনের বিজ্ঞাপন দিয়ে বিক্রি করা একটি চক্রের মূল হোতাসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সাইবার ইনভেস্টিগেশন টিম তাদের গ্রেপ্তার করে বলে রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সিআইডির সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।


গুলি ছুড়ে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করেছে সৌদি

জানা গেল আসল রহস্য, ১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

আবাহনীকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিল বসুন্ধরা কিংস

৬৬ নারীকে ধর্ষণ


সাইবার ক্রাইম কমান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সেন্টারের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. কামরুল আহসান জানান, গ্রেপ্তাররা হলো- চক্রের মূল হোতা মো. মেহেদী হাসান ভূইয়া ওরফে সানি (২৮), রেজাউল আমিন হৃদয় (২৭), মীর হিসামউদ্দিন বায়েজিদ (৩৮), সিয়াম আহমেদ ওরফে রবিন (২১), ইউনুস আলী (৩০), আরজু ইসলাম জিম (২২)। তাদের কাছ থেকে ১২ লাখ টাকার উদ্দীপক টয় সামগ্রী, ৫টি মোবাইল ফোন, ১টি ল্যাপটপ ও ৯টি সিম কার্ড জব্দ করা হয়েছে। গ্রেফতার ৬ জনের বিরুদ্ধে পল্টন থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইন ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

অতিরিক্ত ডিআইজি জানান, চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে ফেসবুক পেজ ও নানা নামে ওয়েবসাইট চালু বিকৃত যৌনরুচির কাজে ব্যবহৃত সামগ্রী বিজ্ঞাপন দিত। যারা বিজ্ঞাপন দেখে আকৃষ্ট তাদের কাছে চড়া মূল্যে এসব সামগ্রী বিক্রি করত তারা। তারা ত্রিশোর্ধ্ব নারী-পুরুষদের টার্গেট করত। এছাড়া যারা একাকি জীবন-যাপন তাদেরকেও শিকার করত এই চক্রটি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কারচুপির অভিযোগে মসজিদের মাইকে হামলার আহ্বান, রণক্ষেত্র জামালপুর

তানভীর আজাদ মামুন, জামালপুর

কারচুপির অভিযোগে মসজিদের মাইকে হামলার আহ্বান, রণক্ষেত্র জামালপুর

জামালপুর পৌরসভায় একটি কেন্দ্রে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও মোটরসাইকেল ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।

আজ সকাল ৮টা থেকে জামালপুর, ইসলামপুর ও মাদারগঞ্জ এই তিনটি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। তবে দুপুরের দিকে জামালপুর পৌরসভার সিংহজানী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট কারচুপির অভিযোগে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

পরে বিভিন্ন মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে প্রতিপক্ষের ওপর হামলার আহ্বান জানায় অপরপক্ষ। এসময় দুইপক্ষের মধ্যে দফায় দফায় ঘণ্টাব্যাপী ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এছাড়া একটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। 


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবি যৌথভাবে লাঠিচার্জ করে।

এদিকে, জামালপুর পৌর নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বয়কটের ঘোষণা দিয়েছেন। দুপুরে শহরের সরদার পাড়া এলাকায় নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন তিনি।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ছাত্রলীগ নেতাকে উলঙ্গ করে নির্যাতন, গ্রেপ্তার হয়নি কেউ

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট

ছাত্রলীগ নেতাকে উলঙ্গ করে নির্যাতন, গ্রেপ্তার হয়নি কেউ

সোহেল খান

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতাকে উলঙ্গ করে নির্যাতনের ঘটনায় মামলার চারদিন পার হলেও এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি মোবাইল চুরির অভিযোগে আশিক জোমাদ্দার (২২) নামে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতিকে হাত-পা বেঁধে উলঙ্গ করে নির্যাতন করা হয়। ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর মামলা হয়।

তবে চারদিনেও প্রধান আসামি চিংড়াখালী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য সোহেল খান ও তার ক্যাডার বাহিনীর সদস্যদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। নির্যাতনের শিকার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আশিক জোমাদ্দার বাগেরহাটের পার্শ্ববর্তী পিরোজপুরের ইন্দুরকানি উপজেলার চরনী পর্ত্তাশী গ্রামের কবির জোমাদ্দারের ছেলে।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মীর মো. সাফিন মাহমুদ বলেন, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি পার্শ্ববর্তী পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানি উপজেলার চরনি পত্তাশি গ্রামে আশিক জোমাদ্দারকে মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে বাড়ি থেকে ডেকে আনা হয়। এরপর বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার চিংড়াখালী ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের বড় জামুয়া গ্রামে হাত পা বেঁধে উলঙ্গ করে নিযাতন করে ইউপি সদস্য সোহেল খান ও তার সহযোগীরা। 


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


এই নির্যাতনের দৃশ্য মোবাইলফোনে ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেয়া হয়। নির্যাতনের এই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নির্যাতনের শিকার আশিককে উদ্ধার করে এনে মোরেলগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করে।

এই ঘটনায় আশিক বাদী হয়ে মোরেলগঞ্জ থানায় ৬ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সোহেল খানসহ চারজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। ঘটনার পর নির্যাতনকারী ইউপি সদস্য একাধিক মামলার আসামি সোহেল খান ও তার সহযোগিরা গাঁ ঢাকা দেয়ায় তাদের কাউকে এখনো গ্রেপ্তার করা যায়নি। তবে ইউপি সদস্য সোহেলের বাড়ি অভিযান চালিয়ে কয়েকটি রামদা ও হকিস্টিক উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা দাবি করেন। 

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

একে একে ৩০ পানের বরজে আগুন, ৩ কোটি টাকার ক্ষতি

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

একে একে ৩০ পানের বরজে আগুন, ৩ কোটি টাকার ক্ষতি

ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডুতে উপজেলার পান বরজে আগুন লেগে কৃষকদের প্রায় শতবিঘা জমির পান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। রোববার দুপুরে কাপাশহাটিয়া ইউনিয়নের শিতলী গ্রামের মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

এতে ক্ষতির পরিমাণ ৩ কোটি টাকা হবে বলে ক্ষতিগ্রস্ত চাষীরা দাবি করেছেন।


গুলি ছুড়ে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করেছে সৌদি

জানা গেল আসল রহস্য, ১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

আবাহনীকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিল বসুন্ধরা কিংস

৬৬ নারীকে ধর্ষণ


এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. আয়ুব হোসেন চৌধুর জানান, রোববার দুপুরে ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলার শিতলী গ্রামের মাঠের একটি পানবরজে আগুন লাগে। মুহূতে মধ্যে একে একে ৩০টি পানের বরজে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়রা মসজিদের মাইকিং করে এবং ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। কিন্তু শত চেষ্টার পরও সব ব্যর্থ হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপজেলা চেয়ারম্যান, জাহাঙ্গীর হোসাইন, কৃষি কর্মকর্তা হাফিসহাসান, প্রকল্প কর্মকর্তা জামাল হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান সরাফত দৌলা ঝন্টু উপস্থিত হন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ছোট ভাইয়ের হামলায় আহত বড় ভাইয়ের মৃত্যু

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

ছোট ভাইয়ের হামলায় আহত বড় ভাইয়ের মৃত্যু

মাদারীপুরের কালকিনিতে ছোট ভাইয়ের হামলায় আহত বড় ভাই মো. সামচুল হক মাতুব্বর (৬২) মারা গেছেন। আজ ভোরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। খবর পেয়ে থানা পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করেছেন। 

স্থানীয় লোকজন জানান, উপজেলার বাঁশগাড়ী এলাকার রামচন্দ্রপুর গ্রামের আমির হোসেন মাতুব্বরের ছেলে মো. সামচুল হক মাতুব্বরের সঙ্গে তার সৎ ছোট ভাই আজিজুল হক ওরফে জুলহাসের দীর্ঘদিন যাবত জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে গত শুক্রবার সকালে নিহত সামচুল হকের উপর হামলা চালায় সৎ ছোট ভাই আজিজুল হক। 

পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভতি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। খবর পেয়ে কালকিনি থানার ওসি মো. নাছির উদ্দিন মৃধা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করেন।


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


প্রত্যক্ষদর্শী মো. জাকির হোসেন বলেন, আমাদের সামনে সামচুল হককে মারধোর করেন তার সৎ ছোট ভাই আজিজুল হক ওরফে জুলহাস।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি মো. নাছির উদ্দিন মৃধা বলেন, খবর পেয়ে আমরা নিহত সামচুল হকের লাশ উদ্ধার করেছি। লাশটির ময়না তদন্ত করার জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর