‘প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা’ প্রত্যহারে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল শুরু সৌদিতে

অনলাইন ডেস্ক

‘প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা’ প্রত্যহারে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল শুরু সৌদিতে

করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক নতুন ধরন ঠেকাতে আরোপ করা ‘প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা’ তুলে নিয়েছে সৌদি আরব। রোববার থেকে সাগর, স্থল ও আকাশপথে ফের দেশটিতে প্রবেশ করা যাবে বলে সৌদি আরবের রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা (এসপিএ) জানিয়েছে। রোববার (৩ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় দেশটিতে পুনরায় আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল শুরু হবে বলে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে।

আরব নিউজ জানায়, যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ধরন শনাক্তেরে পর গত ২০ ডিসেম্বর অন্য দেশ থেকে সড়ক, নৌ ও আকাশপথে সব ধরনের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয় সৌদি সরকার। এই কয়দিন অতিবাহিত হওয়ার পর আজ থেকে সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। তবে করোনার নতুন ধরনের সংক্রমণ রুখতে বেশকিছু শর্ত জুড়ে দিয়ে ভ্রমণ নিষেধজ্ঞা তুলে নেয়া হয়েছে।

সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকাসহ অন্যান্য যেসব দেশে করোনার নতুন ধরন শনাক্ত হয়েছে, সেসব দেশ থেকে সৌদি নাগরিক নন এমন কেউ সৌদি আরবে আসতে চাইলে কমপক্ষে ১৪ দিন অন্যকোনো দেশে অবস্থান করে তারপর সৌদি আরবে ঢুকতে হবে। এরপর ১৪ দিন পার হলে তারা করোনামুক্ত কিনা তা প্রমাণ করতে পিসিআর টেস্টের ফলাফল লাগবে।

এরপরও নতুন ধরন শনাক্ত হওয়া দেশ থেকে কেউ সৌদি আরব আসলে তাদের বাড়িতে সাত দিনের পর্যব্ক্ষেণে রাখা হবে। এছাড়া ছয় দিনের মাথায় তাদের পিসিআর টেস্ট করাতে হবে।


মোবাইল আসল কি নকল যেভাবে যাছাই করবেন

পর্যটন কর্পোরেশনকে গ্রাহকদের আস্থা অর্জন করতে হবে : পর্যটন প্রতিমন্ত্রী


 

 

এছাড়া সৌদি নাগরিক যাদের মানবিক বা জরুরিভাবে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হবে, তাদের সৌদি আরবে এসে কমপক্ষে ১৪ দিন বাড়িতে পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে। তাদের দুইবার পিসিআর টেস্ট করাতে হবে। প্রথমবার সৌদি প্রবেশের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এবং দ্বিতীয়বার কোয়ারেন্টাইন শেষ হওয়ার ১৩ দিনের মাথায়।

এছাড়া যেসব দেশে করোনার নতুন সংক্রমণ ধরা পরেনি যেসব দেশের ক্ষেত্রে পূর্বের সতর্কতা বহাল থাকবে। তাদেরকে সৌদি প্রবেশের পর সাত দিনের বা তিন দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এছাড়াও তাদের পিসিআর টেস্ট করাতে হবে।

গত মাসে যুক্তরাজ্যে প্রথম শনাক্ত হয় করোনার নুতন স্ট্রেইন(ধরন)। করোনর এই নতুন ধরন উচ্চ মাত্রার সংক্রমিত হওয়ায় তা নিয়ে চিন্তিত বিশ্ববাসী। ইতোমধ্যে যুক্তরাজ্য ছাড়াও ফ্রান্স, সুইডেনসহ ইরোপের অন্যান্য দেশ ও জাপান, দক্ষিণ আফ্রিকা, জর্ডান, কানাডা এবং ভারতে এই নতুন ধরন শনাক্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

দেশটিতে করোনার টিকা প্রদান শুরু হয়েছে। বর্তমানে সৌদিতে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমে আসছে এবং মৃত্যুও হ্রাস পাচ্ছে।  শনিবার সেখানে মাত্র ১০২ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে, যা গত নয় মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩ লাখ ৬২ হাজার ৪৮৮জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ২৩০ জনের।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

লিভ টুগেদার ও সমকামী বিয়ে ভারতীয় সংস্কৃতির পরিপন্থী

অনলাইন ডেস্ক

লিভ টুগেদার ও সমকামী বিয়ে ভারতীয় সংস্কৃতির পরিপন্থী

বিয়ে না করে প্রেমিক-প্রেমিকার একসঙ্গে থাকা ভারতীয় ‘পরিবার ধারণা’র সঙ্গে খাপ খায় না বলে জানিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। সমকামী সম্পর্ক ভারতীয় সংস্কৃতির পরিপন্থী বলেও বৃহস্পতিবার দিল্লি হাইকোর্টে হলফনামা দিয়ে বিরোধিতা করা হয়।

দীর্ঘদিন ধরে চলা এই মামলায়, ৩৭৭ ধারা-উত্তর ভারতে, সমকামী বিবাহকে স্বীকৃতি দেওয়া ও বৈধ করার আর্জি জানানো হয়েছিল।

আবেদনকারীদের দাবি ছিল, ইচ্ছুক সমকামীদের বিবাহের অধিকার থেকে বঞ্চিত করা আসলে সংবিধানের মৌলিক অধিকারকে খর্ব করা। দিল্লি হাইকোর্ট এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের মত জানতে চেয়ে বারবার নোটিস পাঠালেও, এর আগে সরকারের তরফে কোনও সদুত্তর দেওয়া হয়নি।


গণধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীর গায়ে আগুন

বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে রাতধর ধর্ষণের শিকার মেয়ে

৩০-৩২ গার্লফ্রেন্ড থাকার পরও আমাকে ভালোবাসত নাসির: তামিমা

আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি: কানাডিয়ান নারী


বৃহস্পতিবার অবশেষে সরকারের তরফে বলা হয়েছে, ৩৭৭ ধারা বাতিলের অর্থ এই নয় যে সমকামী বিবাহ বৈধতা পাবে।

তিন বছর আগে ৩৭৭ ধারা বাতিল করে দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

অর্থাৎ, সমকামী যুগলের একসঙ্গে থাকা আর দণ্ডনীয় অপরাধ নয়। সম্মতিক্রমে সমকামী সম্পর্ক অপরাধমূলক আচরণ নয়, সে কথা বলা হয়েছিল তখনই।

কিন্তু এ দিন সরকারের তরফে বলা হয়েছে, ভারতীয় সংস্কৃতিতে এ ধরনের বিয়ের জায়গা নেই। ভারতবর্ষে বিবাহের অধিকারী শুধু একজন ‘জন্মগত পুরুষ’ এবং ‘জন্মগত নারী’-র মধ্যেই থাকতে পারে।

কারণ, সে দাম্পত্যের ফলে সন্তান আসে। সমকামীদের মধ্যে বিয়ে হলে সন্তান আসে না। তাই এই বিয়েকে বৈধতা দেওয়া যাবে না। একই কথা বলা হয়েছে ‘লিভ ইন’ প্রসঙ্গেও।

হলফনামায় বলা হয়, ভারতীয় পরিবারের ধারণা বাবা-মা এবং সন্তানদের নিয়ে। সেখানে বিয়ে না করে একসঙ্গে থাকার মতো সম্পর্কের কোনও জায়গা এই পরিবারের ছবির মধ্যে নেই।

সরকারি তরফে ‘সামাজিক মূল্যবোধ’ এবং ‘জাতীয় গ্রহণযোগ্যতা’র কথাও বলা হয়েছে। কিছু মানুষের ‘বিশেষ ধরনের আচরণ’, যা আগে অপরাধ হিসেবে চিহ্নিত ছিল, ৩৭৭ ধারা বাতিল করে তাকে বেআইনি ঘোষণা করা থেকে বিরত রাখা হয়েছিল

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কাশ্মীর নিয়ে একমত পাক-ভারত

অনলাইন ডেস্ক

কাশ্মীর নিয়ে একমত পাক-ভারত

একমত হয়েছে ভারত ও পাকিস্তান। সংঘাতপূর্ণ কাশ্মীর সীমান্তে গুলিবিনিময় বন্ধে দুই দেশের সামরিক বাহিনী এমন সীদ্ধান্ত নিয়েছে বলে বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) জানা গেছে।

ভারত ও পাকিস্তানের সেনাবাহিনী এক যৌথ বিবৃতিতে বলেছে, দুই দেশের পারস্পরিক স্বার্থে এবং সীমান্তে টেকসই শান্তি বজায় রাখতে উভয় দেশের কর্মকর্তারা মতবিরোধ ও উদ্বেগের কেন্দ্রে থাকা বিষয়গুলো বিবেচনায় আনতে সম্মত হয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নয়াদিল্লির একজন কর্মকর্তা বলেন, যুদ্ধবিরতি ওই চুক্তির আংশিক লক্ষ্য ছিল, সীমান্তে যুদ্ধ পরিস্থিতি কমিয়ে এনে বেসামরিক লোকজনের মধ্যে হতাহত হওয়ার ঘটনার অবসান ঘটানো।


গণধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীর গায়ে আগুন

বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে রাতধর ধর্ষণের শিকার মেয়ে

৩০-৩২ গার্লফ্রেন্ড থাকার পরও আমাকে ভালোবাসত নাসির: তামিমা

আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি: কানাডিয়ান নারী


তিনি বলেন, ‘আমরা এখনো আশাবাদী, নিয়ন্ত্রণ রেখাজুড়ে সহিংসতা ও উত্তেজনা কমে আসবে। তবে অনুপ্রবেশ ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড থামাতে এই রেখা থেকে মোতায়েন করা সেনাসদস্য কমিয়ে আনা হচ্ছে না। 

এ খবর নিঃসন্দেহে কাশ্মীরীদের জন্য সুখবর। কারণ বিরোধপূর্ণ এই অঞ্চলে লেগেই থাকতো গোলাগুলি আর সংঘর্ষ।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি: কানাডিয়ান নারী

অনলাইন ডেস্ক

আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি: কানাডিয়ান নারী

ইসলাম সম্পর্কে পড়াশুনা করতে করতে আকৃষ্ট হয়ে ইসলামগ্রহণ করলেন কানাডিয়ান নারী জেনি মোলেন্ডিক ডিভলিলি, যিনি কানাডা বংশোদ্ভূত একজন ইংরেজি শিক্ষিকা।

মূলত অনলাইনে শিশুদের জন্য ইসলাম শিক্ষা প্রসারে ব্যাপক ভূমিকা পালন করছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পাঁচ সন্তান নিয়ে তিনি শিশুদের জন্য শিক্ষা প্রদান করে আসছেন।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর খবর অনুযায়ী, ভাষাতত্ত্ব ও সাংকেতিক ভাষা নিয়ে গবেষণার কাজে ইসলামের সঙ্গে পরিচয় হয়। পরে ২০০৬ সালে মোলেন্ডিক ডিভলিলি দীর্ঘ পড়াশোনা শেষে ইসলাম গ্রহণ করেন। এরপর থেকে এক দশক ধরে তিনি তুরস্কের ইস্তাম্বুল নগরীতে বসবাস করছেন এবং ইংরেজি ভাষা শেখাচ্ছেন।

মোলেন্ডিক বলেন, ‘আমি মুসলিমদের সম্পর্কে কিছুই জানতাম না। ইসলাম নিয়ে আমি পড়াশোনা শুরু করি। সপ্তাহে একদিন আমাকে মসজিদে সাংকেতিক বা ইশারা ভাষা অনুবাদের কাজ করতে হত। তখন থেকে আমি ইসলাম সম্পর্কে পড়াশোনা শুরু করি।’


তামিমার পাসপোর্ট আসল কিনা মুখ খুললেন নাসিরের সাবেক প্রেমিকা

একসাথে রাম চরণ ও কোরিয়ান নায়িকা সুজি!

রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না আজ

পিলখানা হত্যা: শহীদদের সমাধিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা


তিনি আরও বলেন, ‘দীর্ঘ অনুসন্ধানের পর আমার সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে পেয়েছি। অবশেষে ২০০৬ সালের ১৪ মে আমি ইসলাম গ্রহণ করি। তা ছিল আমার জীবনের সর্বোত্তম সিদ্ধান্ত। আমার জন্য নতুন এক জগত উম্মুক্ত হয় এবং নতুন জীবন শুরু করি। আমি উপলব্ধি করি যে ইসলামই সর্বোত্তম জীবন ব্যবস্থা।’

উল্লেখ্য, কানাডার একটি খ্রিস্টান পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন মোলেন্ডিক। তার বাবা ছিলেন একজন পুলিশ অফিসার আর মা ছিলেন একজন নার্স।

ভাষাতত্ত্বে স্নাতককালে ও আমেরিকার সাংকেতিক ভাষার অনুবাদের সময় তিনি বিভিন্ন বিষয়ে অনুসন্ধান শুরু করেন। সে থেকে ইসলাম গ্রহণ করেন।

তবে প্রথম দিকে মোলেন্ডিকের বাবা তার ইসলাম গ্রহণের বিরোধিতা করেন এবং তার সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের আহ্বান জানান। কিন্তু মোলেন্ডিক নিজের সিদ্ধান্তে অবিচল ছিলেন।

২০১২ সালে তুরস্কের সামি ডিভলিলির সঙ্গে তার সাক্ষাৎ হয়। এরপর তার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন ও সেদিন থেকেই হিজাব পরিধান শুরু করেন।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মঞ্চে বক্তব্য দিচ্ছেন বিজেপি নেতা, মাঠে দর্শক ফাঁকা!

অনলাইন ডেস্ক

মঞ্চে বক্তব্য দিচ্ছেন বিজেপি নেতা, মাঠে দর্শক ফাঁকা!

মঞ্চে বক্তব্য দিচ্ছেন বিজেপির এক নেতা। তার পাশে আরও অনেক নেতা। কিন্তু যাদের উদ্দেশে বক্তব্য তারা নেই। চেয়ারগুলো ফাঁকা। গোটা মাঠে একজন মাত্র দর্শক। আরেকজন মঞ্চের নিচে। তিনি মাইক সার্ভিসের লোক। আলোচিত এই ভিডিওটি পশ্চিমবঙ্গে ভাইরাল হয়েছে। 

তৃণমূল কংগ্রেসের সংসদ সদস্য নুসরাত জাহান গেরুয়া শিবিরকে লক্ষ করে এ দৃশ্য শেয়ার করেন। ছবির ক্যাপশনে জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী লেখেন, ‘ইয়ে বিজেপি ফর বেঙ্গল হ্যায়। ইয়ে উনকি জনসভা হ্যায়। ঔর ইঁহা ইনকি পাওরি হো রহি হ্যায়।’

হিন্দিতে ক্যাপশন লেখার কারণ হলো- অধিকাংশ বিজেপিই হিন্দি ভাষার লোক।কিছু দিন আগে পাকিস্তানি মডেল দানানীর একটি ভিডিওতে একদম বিদেশি উচ্চারণে পার্টিকে ‘পাওরি’ উচ্চারণ করে বলেছিলেন, ‘এই আমি। এটা আমার গাড়ি। আর এখানে পার্টি চলছে।’


সেই দুই ভাইয়ের সাড়ে ৫ হাজার বিঘা জমি, ৫৫টি বাস ক্রোকের নির্দেশ

দেশে করোনার সর্বশেষ মৃত্যু-শনাক্তের তথ্য

টিকা নেয়ার ১২ দিন পর ত্রাণ সচিবের করোনা শনাক্ত

চাকায় ওড়না পেঁচিয়ে রাস্তায় পড়ে মারা গেলো মেয়েটি


রাতারাতি ভাইরাল সেই ভিডিওতে ইউটিউবার যশরাজ মুখাটে ‘ফান এলিমেন্ট’ যোগ করতেই রমরমিয়ে চলছে ‘পাওরি ভার্সান’।

যুব সম্প্রদায়ের নজর টানতে তাই শাসকদলের হাতিয়ার নয়া ‘পাওরি ভার্সান’। ঠিক যেভাবে বাম দল ২৮ ফেব্রুয়ারির বিগ্রেড মিটিংয়ের প্রচারে দ্বারস্থ হয়েছে ‘টুম্পা সোনা’র। সূত্র: আনন্দবাজার

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছেন নির্যাতিত পাকিস্তানি সাংবাদিক

অনলাইন ডেস্ক

বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছেন নির্যাতিত পাকিস্তানি সাংবাদিক

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) নেতাদের হাতে যে অত্যাচার ও অপমানের বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছেন পাকিস্তানের চারসাদ্দা প্রেসক্লাবের গভর্নিং বডির সদস্য সাইফুল্লাহ জান।

গত শুক্রবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি দাবি করেন, পিটিআই নেতা আবদুল্লাহ, তার ভাই ফাহিম, জাকাত কমিটির চেয়ারম্যান ইফতিখার এবং অন্য অস্ত্রধারী পুরুষরা তাকে জোরপূর্বক চারসাদ্দা বাজার পিটিআই কার্যালয়ে নিয়ে যান।

দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল সাইফুল্লাহ জানকে উদ্ধৃত করে জানায়, সেখানে তাকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন করা হয়। বিবস্ত্র করে তার ভিডিও ধারণ করে রাখেন পিটিআই নেতারা। জনগণের চাপে পরে তাকে সেখান থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।


হাতে নেই ছবি, তবুও বিলাসবহুল জীবনযাপন?

হৃদরোগে মৃত্যুর পরও ফাঁসিতে ঝুলানো হল নিথর দেহ

টিকা নেয়ার ১২ দিন পর করোনায় আক্রান্ত ত্রাণ সচিব

১৯ বছর পর অস্ত্রোপচার করে যমজ বোনে পরিণত হলেন যমজ দুই ভাই


ওই সাংবাদিক আরো বলেছেন, জেলা পুলিশ কর্মকর্তা মুহাম্মদ শোয়াইব সরদারি পুলিশ স্টেশনের পুলিশদের আইনিভাবে এ ব্যাপারে মামলা নেওয়ার নির্দেশ দেন।

তবে পুলিশ অভিযোগ নিতে দেরি করে এবং আইনের ধারাগুলো যুক্ত করেনি। সূত্র : এএনআই।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর