কোনো দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধের চিন্তা নেই: বিমান প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

কোনো দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধের চিন্তা নেই: বিমান প্রতিমন্ত্রী

কোনো দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধের কোনো সিদ্ধান্ত আপাতত নেই বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী।

তিনি বলেন, সৌদি আরবসহ অন্য যেসব দেশ করোনা ভাইরাসের কারণে কারণে আপাতত বিমান চলাচল বন্ধ রেখেছে, তারা তাদের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমরা আমাদের দেশ থেকে বিমান চালানো শুরু করব। কোনো দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধের কোনো সিদ্ধান্ত আপাতত নেই। স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিমান যোগাযোগ অব্যাহত থাকবে।

রোববার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের সদর দপ্তরে আয়োজিত  অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। পর্যটন ভবনের খোলা ছাদে ছয় হাজার ৬০০ বর্গফুট আয়তনের ১৫০ আসনবিশিষ্ট অত্যাধুনিক সাজে সজ্জিত রেস্টুরেন্ট উদ্বোধন উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রতিমন্ত্রী রেস্টুরেন্টের উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গ্রাহক সেবায় বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন একটি ব্র্যান্ডের নাম। এই সংস্থার খাবারের গুণগত মান অত্যন্ত উন্নত। তবে বর্তমান সময় প্রতিযোগিতার যুগ। প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের সেবার মান আরো বৃদ্ধি করে গ্রাহকদের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করতে হবে। সেবার মান বৃদ্ধি করে গ্রাহক সন্তুষ্টি অর্জনের কোনো বিকল্প নেই।

মাহবুব আলী বলেন, রেস্টুরেন্টে সুলভ মূল্যে দেশি-বিদেশি খাবারের ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ, ইভিনিং স্নাক্স আইটেম, ফাস্টফুড ও ডিনারের সুব্যবস্থা রয়েছে। বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের মালিকানাধীন এই রেস্টুরেন্টে গ্রাহকদের জন্য সার্বক্ষণিক লিফট ও গাড়ির বেইজমেন্ট পার্কিংয়ের সুবিধা রয়েছে।

পর্যটন প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব গ্রহণের পর বাংলাদেশের অন্য খাতের মতো পর্যটন শিল্পও নির্দিষ্ট উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড ও বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন পর্যটন উন্নয়নে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এ সব উদ্যোগ বাস্তবায়নের মাধ্যমে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ হয়ে উঠবে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্য।

ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে করণীয়

শীতে হাত-পায়ের কোমলতা ধরে রাখতে যা করবেন

সমাজের উচ্চশ্রেণির জন্য ভ্যাকসিনের তালিকা করা হচ্ছে: অভিযোগ ফখরুলের

সৌরভের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া গেছে 

মাহবুব আলী বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে পর্যটন শিল্পকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। সরকারি ও বেসরকারি সব পর্যটন অংশীজনের সমন্বয়ে টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রায় পর্যটন শিল্পের জন্য নির্ধারিত লক্ষ্যসমূহ নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আমরা অর্জন করব ইনশা আল্লাহ। এ লক্ষ্যে আমাদের সবাইকে যার যার নিজ জায়গা থেকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।

বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান রাম চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মহিবুল হক ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাবেদ আহমেদ।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মুশতাকের ‘মৃত্যু স্বাভাবিক’ বলছে তদন্ত কমিটি

অনলাইন ডেস্ক

মুশতাকের ‘মৃত্যু স্বাভাবিক’ বলছে তদন্ত   কমিটি

কারাগারে বন্দি অবস্থায় লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, গাজীপুরের জেলা প্রশাসন ও কারা অধিদফতরের গঠিত কমিটির তদন্ত প্রতিবেদনে এই মৃত্যুকে ‘ন্যাচারাল ডেথ (স্বাভাবিক মৃত্যু)’ উল্লেখ করা হয়েছে বলে জনিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

আজ বৃহস্পতিবার (০৪ মার্চ) দুপুরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ময়নাতদন্তে যেটা আসছে, সেটাতেও কোনও আঘাতের চিহ্ন তার গায়ে পায়নি। এবং পোস্টমর্টেমে প্রাথমিকভাবে ডাক্তাররা যেসব অভিমতগুলো করেছেন, এগুলো কিন্তু লিখিত অভিমত নয়। পোস্টমর্টেমের রিপোর্টটা আসলে আমরা চূড়ান্তভাবে জানতে পারবো।

গত বছরের মে মাসে লেখক মুশতাক আহমেদ, কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর, রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল ইসলাম ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের পরিচালক মিনহাজ মান্নানকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।


গুপ্তচরবৃত্তির ইসরাইলি জাহাজে ইরানের হামলা!

ওটিটি প্ল্যাটফর্মেও ডাবল ব্লকবাস্টার দৃশ্যম টু!

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে মুখোমুখি অবস্থানে পাক-ভারত!

অপো নতুন ফোনে থাকছে ১২ জিবি র‌্যাম


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কথাবার্তা ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে এ সময় মোট ১১ জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে র‌্যাব। সেই মামলায় দুজন জামিনে মুক্তি পেলেও মুশতাক ও কিশোরের জামিন আবেদন ছয় বার নাকচ হয়েছিলো। ১০ মাস পর জামিনে আজ বৃহস্পতিবার কিশোর মুক্তি পান।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি গাজীপুরের কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি অবস্থায় লেখক মুশতাক মারা যান। এই মৃত্যু নিয়ে সারাদেশে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

মুশতাক আহমেদের মৃত্যুতে কারা কর্তৃপক্ষের কোনো ধরনের গাফিলতি ছিল কি-না, যদি থাকে তবে দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ।

এছাড়া গাজীপুর জেলা প্রশাসন ও কারা অধিদফতরের পক্ষ থেকেও তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সবগুলো কমিটিই ইতোমধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক

‌‘আমরা একসঙ্গে সীমান্ত হত্যা বন্ধে সফল হবো’

অনলাইন ডেস্ক

‌‘আমরা একসঙ্গে সীমান্ত হত্যা বন্ধে সফল হবো’

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বৃহস্পতিবার এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করছেন এস জয়শঙ্কর ।

এ দেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং মুজিববর্ষ আমাদের দেশের জন্যও অত্যধিক গুরুত্বপূর্ণ জানিয়ে বাংলাদেশে সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেছেন, আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে অনেক অগ্রগতি হয়েছে। বাংলাদেশ আমাদের কাছে শুধু একজন প্রতিনিধি না বরং সারাবিশ্বের মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক অংশীদার। আমাদের সম্পর্ক এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে আমরা শুধু আলোচনার মাধ্যমেই যেকোনো সংকটের সমাধান করতে পারি।

বৃহস্পতিবার (০৪ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান বাংলাদেশে  সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা একসঙ্গে সীমান্ত হত্যা বন্ধে সফল হবো- এ বিষয়ে আমাদের আলোচনা চলছে।

তিস্তা নদীর পানি বন্টনের বিষয়ে শিগগিরই বাংলাদেশ ও ভারতের পানি সম্পদ সচিবদের মধ্যে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর।


১০ মাস পর জামিনে মুক্ত কার্টুনিস্ট কিশোর

আইফোনে ১ টেরা স্টোরেজ!

বোমা আতঙ্ক তাজমহলে

আমি শিক্ষামন্ত্রীর ষড়যন্ত্র ও রাজনীতির শিকার: ভিসি কলিমুল্লাহ


সংবাদ সম্মেলনে ড. এস জয়শঙ্কর বলেন, শুধু কৌশলগত নয় গভীর জায়গায় পৌঁছেছে ভারত বাংলাদেশের সম্পর্ক। করোনার মধ্যেও বাংলাদেশ-ভারতের বন্ধুত্ব আরও জোরালো হয়েছে। বিশ্বস্ত ও পরীক্ষিত বন্ধু হিসেবে ভারত সবসময় বাংলাদেশের থাকবে।

এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে একম ঢাকা-দিল্লি। বাণিজ্য, অভিন্ন নদীর পানিরবন্টনসহ বিভিন্ন ইস্যুতে ভারত পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

এক দিনের সফরে আজ সকাল ১০টার দিকে ঢাকায় এসেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ভারতীয় বিমানবাহিনীর একটি বিশেষ ফ্লাইটে এস জয়শংকর আজ সকালে দিল্লি থেকে ঢাকায় আসেন।  তাঁকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকী, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশ-ভারত কূটনৈতিক সম্পর্কের পঞ্চাশতম বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আগামী ২৬-২৭ মার্চ বাংলাদেশ সফরে আসার কথা রয়েছে। মূলত, নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরের সূচি চূড়ান্ত করতে ঢাকায় এলেন এস জয়শংকর।

সফরকালে এস জয়শংকর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে গতকাল বুধবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে এস জয়শংকরের সফর সম্পর্কে দেওয়া তথ্যে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আমন্ত্রণেই ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বৃহস্পতিবার ঢাকা আসছেন। গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর দুদেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল বৈঠকের সিদ্ধান্তগুলোর বাস্তবায়নের অগ্রগতি পর্যালোচনা এবং দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও এগিয়ে নেওয়ার বিষয়ে আলোচনা করতে এস জয়শংকরের এ সফর।

আজ রাতেই এস জয়শংকরের দিল্লি ফিরে যাওয়ার কথা রয়েছে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কম বেতন ও কাজের চাপে পেশা বদলাতে চান ৭১ শতাংশ সাংবাদিক

অনলাইন ডেস্ক

কম বেতন ও কাজের চাপে পেশা বদলাতে চান ৭১ শতাংশ সাংবাদিক

একটা সময় তরুণ-তরুণীদের স্বপ্নের পেশা ছিল সাংবাদিকতা। সাহসী ও চ্যালেঞ্জিং পেশা হিসেবে সাংবাদিকতাকেই বেছে নিতেন তারা। পড়াশোনা শেষে যারা এই পেশায় এসেছেন, তাদের অনেকেই এই পেশা ছেড়েছেন, আর যারা আছেন, তাদের কেউ কেউ ছাড়ার অপেক্ষায় আছেন। সুযোগ পেলেই অন্য কোনও চাকরিতে চলে যাচ্ছেন তারা। বাংলাদেশের ৪২.০৯ শতাংশ সাংবাদিকই তার পেশা নিয়ে বিষণ্নতায় ভুগছেন। আর ৭১.০৭ শতাংশ সাংবাদিক এ পেশা ছেড়ে দিতে চান। 

সম্প্রতি দেশের সংবাদপত্র, স্যাটেলাইট টেলিভিশন ও অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোতে কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে পরিচালিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এমন ভয়াবহ তথ্য উঠে এসেছে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের (ইউল্যাব) জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে সম্প্রতি ‘অ্যান ইনভেস্টিগেশন ইনটু রিস্ক টু মেন্টাল হেলথ অব বাংলাদেশি জার্নালিস্টস’ শীর্ষক এ গবেষণা পরিচালিত হয়। গবেষক দলে আরও ছিলেন একই বিভাগের শিক্ষক ড. সরকার বারবাক কারমাল ও সাবেক শিক্ষার্থী আপন দাস।


১০ মাস পর জামিনে মুক্ত কার্টুনিস্ট কিশোর

আইফোনে ১ টেরা স্টোরেজ!

বোমা আতঙ্ক তাজমহলে

আমি শিক্ষামন্ত্রীর ষড়যন্ত্র ও রাজনীতির শিকার: ভিসি কলিমুল্লাহ


সাংবাদিকদের এমন বিষণ্নতা আর চাকরিবিমুখতার পেছনে সবচেয়ে বড় কারণ হিসেবে উঠে এসেছে চাকরির অনিশ্চয়তা। যার হার ৮৫ শতাংশ। এছাড়া অন্যান্য কারণের মধ্যে রয়েছে সময়মতো প্রমোশন না পাওয়া, কম বেতন এবং অত্যাধিক কাজের চাপ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত ১৯১ জন সাংবাদিকের ওপর এ গবেষণা পরিচালিত হয়েছে। অংশগ্রহণকারী সাংবাদিকদের ৭৯.১ শতাংশই নিজের পেশা নিয়ে সন্তুষ্ট নয়। আর বিষণ্নতায় ভুগছেন ৪২.৯ শতাংশ সাংবাদিক। তাদের মধ্যে নারী ৪৮.৪৮ আর পুরুষ ৪১.৭৭ শতাংশ। 

গবেষণায় আরও বলা হয়েছে, সাব-এডিটর বা কপি এডিটরদের থেকে বাইরে কাজ করা রিপোর্টারদের মধ্যে বিষণ্নতা বেশি। তবে রিপোর্টার ও সাব-এডিটরের থেকে নিউজ এডিটর তুলনামূলকভাবে কম বিষণ্নতায় ভোগেন। এ হারে রিপোর্টার ৪৪.৩২, কপি এডিটর ৩৪ এবং নিউজ এডিটর ২৮.৫৭ শতাংশ।

এ প্রসঙ্গে গবেষক দলের প্রধান আমিনুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, সাংবাদিকদের মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। তবে এ নিয়ে দেশে সচেতনতার মাত্রা খুবই কম। সাংবাদিকতা পেশা ও সাংবাদিকদের জীবনমান উন্নয়ন প্রশ্নে কর্মক্ষেত্রে তাদের মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টি অবশ্যই গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানগুলোকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করতে হবে।

সংসদে দেওয়া তথ্যমন্ত্রীর তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন দৈনিক পত্রিকা রয়েছে এক হাজার ২৪৮টি, এরমধ্যে ঢাকায় ৫০২টি এবং সারাদেশে ৭৪৬টি। টেলিভিশন চ্যানেল রয়েছে ৩২টি। এছাড়া সারাদেশে সাপ্তাহিক পত্রিকা রয়েছে এক হাজার ১৯২টি, মাসিক ৪১৪টি। এর বাইরে ২ হাজার ২১৭টি অনলাইন মিডিয়া রয়েছে। আরও আছে, অনলাইন পত্রিকা, অনলাইন টেলিভিশন ও রেডিও। 

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

১০ মাস পর জামিনে মুক্ত কার্টুনিস্ট কিশোর

অনলাইন ডেস্ক

১০ মাস পর জামিনে মুক্ত কার্টুনিস্ট কিশোর

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের হওয়া মামলায় ১০ মাস কারাগারে থেকে জামিনে মুক্ত হয়েছেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির।  

বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে কাশিমপুর কারাগার (পার্ট-২) থেকে কিশোরকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। সাড়ে ১২টার দিকে তিনি একটি সাদা রঙের গাড়িতে চড়ে কারাগার এলাকা ত্যাগ করেন। এ সময় কিশোর কারও সঙ্গে কথা বলেননি।

কিশোরকে মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাশিমপুর কারাগার-২-এর জেল সুপার আবদুল জলিল।


আইফোনে ১ টেরা স্টোরেজ!

বোমা আতঙ্ক তাজমহলে

আমি শিক্ষামন্ত্রীর ষড়যন্ত্র ও রাজনীতির শিকার: ভিসি কলিমুল্লাহ


জেল সুপার জানান, আহমেদ কবির কিশোরের জামিনের কাগজ বেলা ১১টার দিকে কাশিমপুর কারাগারে পৌঁছায়। পরে তা যাচাই-বাছাই শেষে কিশোরকে মুক্তি দেওয়া হয়। এ সময় কারাফটকে কিশোরের স্বজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে কিশোরের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে গতকাল বুধবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ জামিনাদেশ দেন।

মুশতাক আহমেদ ও কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরকে গত বছরের মে মাসে গ্রেফতার করে র‌্যাব। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কথাবার্তা ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে তারাসহ মোট ১১ জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়।

একই মামলায় একসঙ্গে গ্রেপ্তার হওয়া কারাবন্দী লেখক মুশতাক আহমেদ (৫৩) গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মারা যান। তিনি গাজীপুরের কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারে ছিলেন।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীরাই দেশকে অস্থিতিশীল করে: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীরাই দেশকে অস্থিতিশীল করে: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, গণতন্ত্র ধ্বংস করে যারা অবৈধভাবে ক্ষমতায় বসে তারাই দেশকে অস্থিতিশীল করে। বৃহস্পতিবার (০৪ মার্চ) ‘বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ফেলোশিপ’, এনএসটি ফেলোশিপ এবং গবেষণা-অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন।

এসময় তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বে এখন আমরা মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত। আমাদের অগ্রযাত্রা কেউ থামিয়ে দিতে পারবে না। করোনাভাইরাস যখন পারেনি, কেউ আর পারবে না। এটাই আমার বিশ্বাস।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রত্যেক বিভাগে নভোথিয়েটার করে দেব। যাতে প্রতিটি শিক্ষার্থী বিজ্ঞান জানতে পারে। আমরা গবেষণার ওপর জোর দিচ্ছি। এর মাধ্যমে ব্যয় কমানো, উৎপাদনশীলতা বাড়ানো ও বাজারজাতকরণ সহজ হয়। নতুন নতুন পণ্য সৃষ্টি বা উদ্ভাবন করা যায়।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আজকে জলমগ্ন ধান গবেষণা হচ্ছে। স্ট্রবেরিসহ বিভিন্ন ফলের উৎপাদন দেশে হয়। এগুলো সবই গবেষণার ফসল। আমাদের মানুষ ও উর্বর মাটি আছে। সেগুলোকে কাজে লাগিয়ে উন্নত দেশ গড়বো।’

তিনি আরও বলেন, ‘পঁচাত্তরের পর যারা ক্ষমতায় ছিল তারা শিক্ষার উন্নতির পরিবর্তে অবনতি করেছে। শিক্ষাঙ্গণে অস্ত্রের ঝনঝনানি, শিক্ষার্থীদের হাতে অস্ত্র ও টাকা তুলে দিয়ে তাদের বিপথগামী করেছে। ক্ষমতা ধরে রাখতে তাদের ব্যবহার করেছে।’

আরও পড়ুন:


আইটেম গার্ল জেরিন খান এখন ড. জেরিন খান

রাজধানীর খিলক্ষেতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১

সিরাজগঞ্জে এইচ টি ইমামের প্রথম জানাজা সম্পন্ন

মা হচ্ছেন শ্রেয়া ঘোষাল, বেবি বাম্পের ছবি ভাইরাল


শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা জাতির পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করে শিক্ষানীতি করে শিক্ষাকে বহুমুখী করেছি। দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলছি। আমাদের সময়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হয়নি। শুধু করোনা মহামারি পরিস্থিতির কারণে গত বছর এ সমস্যা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের সুস্থতার জন্য বন্ধ রাখতে হয়েছে। অবশ্য মার্চের শেষে খুলে দেয়া হবে।’

৯৮৬ গবেষককে বৃত্তি ও ফেলোশিপ দেয়া হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ফেলোশিপের টাকা জনগণের। এটা যেন জনগণের কাজে লাগে, মাথায় রাখতে হবে।’

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর