পিরিয়ডের কতদিন পর নামাজ-রোজা করা যাবে?
পিরিয়ডের কতদিন পর নামাজ-রোজা করা যাবে?

পিরিয়ডের কতদিন পর নামাজ-রোজা করা যাবে?

অনলাইন ডেস্ক

আমাদের অনেকেরই পিরিয়ড সম্পর্কে সঠিক ধারণা নেই। অনেকেই এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে লজ্জা পান। অনেকেই জানেন না পিরিয়ড হলে কতদিন পর্যন্ত নামাজ-রোজা করা থেকে বিরত থাকতে হয়। ইসলাম এ সম্পর্কে সুষ্টু ও সঠিক ধারণা দিয়েছেন।

শরীয়তের পরিভাষায় পিরিয়ডকে হায়েয বলা হয়। পিরিয়ডের সময়সীমা সর্বনিম্ন ৩দিন ৩ রাত এবং সর্বাধিক ১০দিন ১০ রাত। এ সময়গুলোতে নামাজ পড়া নিষেধ। নামাজ পুরোপুরি মাফ হয়ে যায় এবং পরে কাজা নামাজও পড়তে হয় না। কিন্তু রোজা সাময়িকভাবে বাদ হয় এবং পরে রোজার কাজা আদায় করে নিতে হয়।

এছাড়া ওয়াক্তের নামাজ এখনো আদায় করেননি কিন্তু নামাজ পড়ার সময় এখনো আছে এই অবস্থায় পিরিয়ড শুরু হলে সেই ওয়াক্তের নামাজ মাফ হয়ে যাবে। নামাজের শেষ ওয়াক্তে পিরিয়ড হয়েছে কিন্তু এখনও যদি নামাজ না পড়ে থাকেন তাহলে সেটারও ক্বাযা পরতে হবে না।


আরও পড়ুন: প্রচলিত হিলা বিয়ে কি ইসলামে নিষিদ্ধ?


যদি কারো ১০দিন এর কম স্রাব হয় এবং এমন সময়ে গিয়ে পিরিয়ড শেষ হয় যে খুব তাড়াতাড়ি ফরজ গোসল করে নেয়ার পর একবার আল্লাহু আকবর বলার সময় থাকে, তবে সেই ওয়াক্তের নামাজ পড়তে হবে। এমন অবস্থায় নামাজ শুরু করার পর ওয়াক্ত শেষ হয়ে গেলেও নামাজ শেষ করতে হবে। তবে ফজরের ওয়াক্ত হলে যদি নামাজ শুরু করার পর সূর্য উদিত হয়ে যায় তবে সে নামাজ কাজা করতে হবে। (সূত্র: হেদায়া, হায়েজ অধ্যায়। )

আল্লাহ তা‘আলা বলছেন, “তারা তোমাকে নারীদের ঋতুস্রাব সম্পর্কে জিজ্ঞেস করে; তুমি বলে দাও, সেটা হচ্ছে কষ্টদায়ক বস্তু”। (সূরা বাকারা: ২২২)

news24bd.tv আহমেদ

;