বাইডেনের জয় নিশ্চিত করলো মার্কিন কংগ্রেস

অনলাইন ডেস্ক

বাইডেনের জয় নিশ্চিত করলো মার্কিন কংগ্রেস

মার্কিন কংগ্রেস আনুষ্ঠানিকভাবে জো বাইডেনের জয় সুনিশ্চিত করেছে। বুধবার ডোনল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা ওয়াশিংটনের ক্যাপিটল ভবনে হামলা চালায়। এসময় আইনজীবী এবং সিনেটরদের কক্ষ ত্যাগে বাধ্য করে ট্রাম্প সমর্থকরা। পরে আজ এই ঘোষণা আসে সিনেট থেকে। এর মাধ্যমে ২০ জানুয়ারি বাইডেনের ক্ষমতা গ্রহনে আর কোন বাধা থাকলো না।

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) ওয়াশিংটন ডিসির ক্যাপটল হিলে ট্রাম্পপন্থীদের হামলার পর কংগ্রেসের অধিবেশনে বাইডেনের জয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পাশাপাশি ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের জয় চূড়ান্ত করেছে কংগ্রেস।


যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবনে সংঘর্ষে নিহত বেড়ে চার

জো বাইডেনের সাথেই আছি : কমলা হ্যারিস


একইসঙ্গে জর্জিয়া ও পেনসিলভানিয়ায় জো বাইডেনের পাওয়া ইলেকটোরাল ভোট নিয়ে ট্রাম্পের চ্যালেঞ্জ খারিজ করে দিয়েছে কংগ্রেস। ট্রাম্পপন্থীদের হামলার কারণে থমকে গিয়েছিল কংগ্রেস অধিবেশন।

এ ঘটনায় ৪ জন নিহত হয়। নিহতদের মধ্যে একজন নারী আছেন। নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ তাকে গুলি করলে তিনি মারা যান। বাকি ৩ জন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। হামলার ঘটনার প্রতিবাদে বিশ্ব জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে। বিশ্বনেতারা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। ক্যাপিটল হিলে হামলা মার্কিন গণতন্তের জন্য চরম অসম্মানের। ক্যাপিটলহিল যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্রের প্রতিমূর্তি।

ews24bd.tv /আয়শা

 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিলেন মোদি

অনলাইন ডেস্ক

করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

আজ সকাল ৬টা ২৫ মিনিটে দিল্লিতে টিকা নেন নরেন্দ্র মোদি। টিকা নেওয়ার পর নরেন্দ্র মোদি জানান, কোভিডের বিরুদ্ধে যেভাবে চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীরা লড়েছেন, তা অভাবনীয়। 


পুলিশকে কেন প্রতিপক্ষ বানানো হয়, প্রশ্ন আইজিপির

আমাকে ‘বলির পাঁঠা’ বানানো হয়েছে: সামিয়া রহমান


যারা টিকা নেওয়ার যোগ্য, তাদেরকে টিকা কেন্দ্রে আসার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মুখোমুখি ইরান-তুরস্ক, উভয় দেশের রাস্ট্রদূতকে তলব

অনলাইন ডেস্ক

মুখোমুখি ইরান-তুরস্ক, উভয় দেশের রাস্ট্রদূতকে তলব

কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী পিকেকে’র অবস্থান নিয়ে দেওয়া তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগ্লুর বক্তব্যকে কেন্দ্র করে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে ইরান-তুরস্ক। এই ঘটনায় তেহরানে নিযুক্ত তুর্কি রাস্ট্রদূতকে তলব করা হয়েছে।

গত রোববার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশটিতে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত দারিয়া উরুসকে তলব করে। এরপরই আঙ্কারায় নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূতকেও ডেকে পাঠিয়েছে তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

তুরস্কের কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী পিকেকে’র গেরিলারা ইরানের মাটিতে আশ্রয় নিয়েছে বলে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগ্লু এক বক্তব্যে দাবি করেছেন।   

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তুর্কি রাষ্ট্রদূতকে তলব করে এই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে ইরান। একইসঙ্গে ইরাকে নিযুক্তি তুর্কি রাষ্ট্রদূতের এ সংক্রান্ত বক্তব্যকে অগ্রহণযোগ্য বলে উল্লেখ করা হয়।  


আবারও মামলা সু চির বিরুদ্ধে

পরবর্তী নির্বাচনে আবারও অংশ নিবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

ইরানের সমঝোতা প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানে হতাশ যুক্তরাষ্ট্র

খাশোগি হত্যাকান্ড: রহস্যজনকভাবে বদলে গেল প্রতিবেদনে অভিযুক্তের নাম


এদিকে ইরাকের উত্তরাঞ্চলে তুর্কি সেনাবাহিনীর বিমান হামলার সমালোচনা করে ইরাকে নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূত ইরাজ মাসজেদি বক্তব্য দেয়ায় ইরানি রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে আঙ্কারা।

তুরস্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন পিকেকেকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসাবে তালিকাভুক্ত করেছে। ২০১৫ সালের জুলাই থেকে তুরস্কের বিরুদ্ধে সশস্ত্র অভিযান শুরু করে তারা।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ইরানের সমঝোতা প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানে হতাশ যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক

ইরানের সমঝোতা প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানে হতাশ যুক্তরাষ্ট্র

পরমাণু সমঝোতা নিয়ে ইরানকে আমেরিকার সঙ্গে আলোচনায় বসার প্রস্তাব দিয়েছিল ইউরোপ। এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় হতাশা প্রকাশ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে জানা যায়, বিষয়টি নিয়ে কূটনৈতিক তৎপরতা চালানোর জন্য প্রস্তুত রয়েছে ওয়াশিংটন।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদেহ ইউরোপীয় প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করার পর পরই মার্কিন সরকার তার এ অবস্থান ঘোষণা করল।

খাতিবজাদেহ রোববার বলেছেন, পরমাণু সমঝোতার ব্যাপারে ইউরোপ সম্প্রতি যে অনানুষ্ঠানিক বৈঠকের প্রস্তাব দিয়েছে, তার জন্য বর্তমান সময়কে উপযুক্ত মনে করছে না তেহরান। সমঝোতার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র ও তিন ইউরোপীয় দেশের সাম্প্রতিক অবস্থান বিবেচনায় নিয়ে ইরান আলোচনায় না বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেও তিনি মন্তব্য করেছেন।


আবারও মামলা সু চির বিরুদ্ধে

পরবর্তী নির্বাচনে আবারও অংশ নিবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

৯৯৯ এ ফোন এক ঘন্টায় চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার

খাশোগি হত্যাকান্ড: রহস্যজনকভাবে বদলে গেল প্রতিবেদনে অভিযুক্তের নাম


এদিকে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি বলেন, বিষয়টি নিয়ে ওয়াশিংটন পরমাণু সমঝোতার বাকি পাঁচ দেশ চীন, ফ্রান্স, রাশিয়া, ব্রিটেন ও জার্মানির সঙ্গে আলোচনা করবে ওয়াশিংটন।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খাশোগি হত্যাকান্ড: রহস্যজনকভাবে বদলে গেল প্রতিবেদনে অভিযুক্তের নাম

অনলাইন ডেস্ক

খাশোগি হত্যাকান্ড: রহস্যজনকভাবে বদলে গেল প্রতিবেদনে অভিযুক্তের নাম

সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে সম্প্রতি একটি গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এই প্রতিবেদনে দায়ী করা হয়েছে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে। দীর্ঘদিন অপেক্ষার পর গত শুক্রবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে আসে।

প্রতিবেদনে খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত ব্যক্তিদের নাম উল্লেখ করা হলেও রহস্যজনকভাবে ওই প্রতিবেদনের বদলে নতুন আরও একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। আগের প্রতিবেদনে থাকা লোকজনের মধ্যে তিনজনের নাম নতুন প্রতিবেদন থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।

হুট করেই তাদের নাম কেন সরিয়ে দেয়া হলো তা এখনও পরিষ্কার নয়। এ বিষয়ে কোনো ব্যাখ্যাও দেয়া হয়নি। অথচ আগের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল যে, ওই তিন ব্যক্তিও হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিলেন।


আবারও মামলা সু চির বিরুদ্ধে

পরবর্তী নির্বাচনে আবারও অংশ নিবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

ইয়াবার টাকা না পেয়ে কাঁচি দিয়ে মাকে হত্যা

৯৯৯ এ ফোন এক ঘন্টায় চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার


সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত ৭৬ সৌদি নাগরিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা ও ভিসা নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও সেই তালিকায় নেই হত্যার ‘নির্দেশদাতা’ সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। সৌদি আরবের ‘শীর্ষ নেতা’ হওয়ার কারণেই তার ওপর কোনও ধরনের বিধিনিষেধ আরোপ করা হবে না বলে জানিয়েছে মার্কিন প্রশাসন।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ডাক পাকিস্তানি কৃষকদের

অনলাইন ডেস্ক

সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ডাক পাকিস্তানি কৃষকদের

মূল্যস্ফীতিসহ বিভিন্ন ইস্যুতে ইমরান খানের সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন পাকিস্তানের কৃষকেরা।

দ্য ডিপ্লোম্যাটের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ২১ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান কিষাণ ইত্তেহাদ (পাকিস্তান ফারমার্স ইউনিটি) এর কৃষকনেতারা একটি বৈঠক করেন। সেখানে তারা মার্চে বিক্ষোভ করার পরিকল্পনা নেন।

দ্য ডিপ্লোম্যাটকে পাকিস্তান কিষাণ ইত্তেহাদের সভাপতি জুলফিকার আওয়ান বলেছেন, ‘বীজ নিয়ন্ত্রণ মূল্য সাড়ে সাত হাজার রুপি থেকে বেড়ে ১৪ হাজার রুপি হয়েছে। গমের ন্যূনতম সহায়তা মূল্য এক হাজার চারশ’ রুপি ছিল, যা আমরা কখনও পাইনি। সারের দাম ছিল আড়াই হাজার রুপি, যা এখন সাড়ে চার হাজার রুপি। এক হাজার তিনশ’ টাকার ইউরিয়া এখন এক হাজার আটশ’ রুপি। ইনপুট-আউটপুটের পার্থক্য এত বেশি যে অন্য দেশের উৎপাদিত পণ্যের সঙ্গে পাকিস্তানি কৃষকদের পণ্যের কোনো প্রতিযোগিতা হতে পারে না। ’

গত এক বছর কঠিন সময় পার করেছেন পাকিস্তানি কৃষকরা। গম এবং আখের নজিরবিহীন সংকট দেখা দেওয়ায় কৃষকের দুর্দশার দিকে নজর না দেওয়ার অভিযোগে ইমরান খান নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান তেহরীক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সরকার বিরোধী দলীয় জোট পাকিস্তান ডেমোক্র্যাটিক মুভমেন্ট (পিডিএম)-এর সমালোচনার শিকার হয়েছে।


আবারও মামলা সু চির বিরুদ্ধে

পরবর্তী নির্বাচনে আবারও অংশ নিবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

ইয়াবার টাকা না পেয়ে কাঁচি দিয়ে মাকে হত্যা

৯৯৯ এ ফোন এক ঘন্টায় চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার


কৃষি উৎপাদন প্রয়োজনের চেয়ে অনেক কম হওয়ায়, দেশটিকে খাবার তেল, গম, চিনি, চা এবং ডালসহ অনেক প্রধান খাদ্য আমদানি করতে হচ্ছে। এতে পাকিস্তানের খাদ্য নিরাপত্তা ঝুঁকির মুখে পড়েছে। এছাড়া গত ২৯ মাসে পাকিস্তানে খাদ্যপণ্যের দাম গড়ে ৩১ শতাংশ বেড়েছে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর