সাপ চলাচলের নতুন এক পদ্ধতি আবিস্কার বিজ্ঞানীদের

অনলাইন ডেস্ক

প্রিন্ট করুন printer
সাপ চলাচলের নতুন এক পদ্ধতি আবিস্কার বিজ্ঞানীদের

পা না থাকলেও সাপ যে শুধু পিছলে যেতে পারে তাই নয়, জলের উপর দিয়ে সাঁতার কাটতে পারে, ঝাঁপিয়ে পড়তে পারে এবং গাছের মাঝে গ্লাইড করতে পারে তাই নয়- বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি সাপের চলাচলের আরও একটি নতুন উপায় আবিষ্কার করেছেন। সাপ কোন সিলিন্ডার আকৃতির বস্তুকে ফাঁসির দড়ির মত পেঁচিয়ে উপরেও উঠতে পারে।

কলোরাডো স্টেট ইউনিভার্সিটি ও ইউনিভার্সিটি অফ সিনসিনাটির একদল গবেষক, গুয়ামে সাপের শিকারে এক বন্য পাখি মাইক্রোনেশিয়ান স্টারলিংয়ের বিলুপ্তি নিয়ে গবেষণা করার সময় অসাবধানতা বশত এই তথ্য আবিস্কার করেন।

সিবার্ট নামের একজন গবেষক বলেন, তিনি ও তার সহকর্মী গবেষণার সময় চার ঘন্টার একটি ভিডিও দেখছিলেন। এসময় তারা দেখেন, একটি সাপ ফাঁসের দড়ির মত করে পেঁচিয়ে খুব ধীরে ধীরে গাছ বেয়ে উঠে যাচ্ছে।

"আমরা কমপক্ষে ১৫ বার ঘটনাটি দেখেছি। এটি এতোটাই আশ্চর্য যে কোনকিছুকেই এর সাথে তুলনা করা যায় না।" বলেন তিনি।


জরুরি অবস্থা ঘোষণার অনুমোদন ট্রাম্পের

ট্যাটুর বিল দিতে না পারায় যুবককে পলিথিনে মুড়ে ‘শাস্তি’


বাদামি এই গেছো সাপটি মূলত অস্ট্রেলিয়া, পাপুয়া নিউগিনি, পূর্ব ইন্দোনেশিয়া এবং বেশ কয়েকটি প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপে দেখা যায়। এটি ১৯৪০ এর দশকের শেষের দিকে বা ১৯৫০ এর দশকের গোড়ার দিকে দুর্ঘটনাক্রমে গুয়ামে আবিষ্কৃত হয়। সরীসৃপগুলি দ্বীপে বনজ পাখির সংখ্যা প্রায় ধ্বংস করে ফেলেছে এবং এটি প্রায়ই বিদ্যুৎ এর লাইনে বিভ্রাট ঘটায়।

news24bd.tv / nakib

মন্তব্য