কৃত্রিম হৃদপিন্ডের অনুমোদন দিলো ইউরোপীয় ইউনিয়ন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

কৃত্রিম হৃদপিন্ডের অনুমোদন দিলো ইউরোপীয় ইউনিয়ন

মানুষের শরীরের গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ হলো হৃদপিন্ড। আর অনেক উন্নত দেশেই হার্ট ট্রান্সপ্লানটেশন বেশ সহজ হলেও অনেক ক্ষেত্রেই রোগীর শরীরের সঙ্গে ম্যাচ করে না। আর এ কারণে কৃত্রিম হৃদপিন্ডের প্রয়োজন অনুভব করেন বিজ্ঞানীরা। 

এরইমধ্যে সফল হয়েছেন চীন, যু্ক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের বিজ্ঞানীরা। ফরাসি বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবিত আরো উন্নত আর্টিফিশিয়াল হার্ট এবার ইউরোপিয় ইউনিয়নের অনুমোদন পেলো। যাতে নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা হলো বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা। চলতি বছরই এই আর্টিফিশিয়াল হার্টমেকার ‘কারমেট’ এর বিক্রি শুরু করতে যাচ্ছে ফ্রান্স। হার্ট ডোনারের অভাব পূরণ করবে এই কৃত্রিম হৃদপিন্ড।

চীনে সোনার খনিতে ২২ শ্রমিক আটকা

ভাইরাসের উৎস সন্ধানে চীনে যাবে ডব্লিউএইচওর তদন্তকারী দল

অসুস্থ্য ও মৃতপ্রায় হৃদপিন্ডের রক্ত সরবরাহ করতে পাম্প করতে সহায়তা করার জন্য এই কারমেট নামের কৃত্রিম হার্টমেকার কাজ করবে। প্রাথমিকভাবে এই হার্টমেকারের দাম ধরা হয়েছে দেড় লাখ ইউরো। ইউরোপে বিভিন্ন দেশে আগে কৃত্রিম হৃদপিন্ডের সরবরাহ শেষে আগামী ২০২৪ সাল নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ঔষধ প্রশাসনের কাছে অনুমোদনের জন্য আবেদন জানাবে ফ্রান্স।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বিক্ষোভে উত্তাল মিয়ানমার, একদিনে নিহত ১০

চন্দ্রানী চন্দ্রা, আসমা তুলি

ফের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে মিয়ানমার। সেইসঙ্গে বেড়েছে জান্তা সরকারের দমনপীড়ন। পুলিশ-বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে রোববারও ১০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন। 

এদিকে, সেনা বিরোধী বক্তব্যের জেরে বরখাস্ত হয়েছেন জাতিসংঘে মিয়ানমারের স্থায়ী রাষ্ট্রদূত কিয়াও মোয়ে তুন। 

তিন সপ্তাহেরও বেশি সময় পেরিয়ে গেছে মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের। তবুও এখনও সমানভাবে ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ। রোববারও দাওয়েই শহরে অভ্যুত্থানবিরোধী মিছিলে পুলিশের গুলিতে ৩ জন নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

গ্রেফতার করা হয় অর্ধশতাধিক বিক্ষোভকারীকে। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম এই তথ্য জানিয়েছে বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে এপি। একইদিন পুলিশ পড়াও হন ইয়াঙ্গুণে বিক্ষোভকারীদের উপর। বিভিন্ন স্থানে পুলিশ ব্যারিক্যাড দিলে আন্দোলনকারীরা সেখানেই অবস্থান নেন।

শনিবারও গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবিতে বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ অব্যাহত ছিল। দাওয়েই শহরে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে এক নারী গুলিবিদ্ধ হন। এছাড়াও দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর ম্যান্দালেতে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে হয়। সেখানে যোগ দেন বৌদ্ধ ভিক্ষুরাও।


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


শুক্রবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের মিয়ানমারে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেন সংস্থাটিতে নিযুক্ত মিয়ানমারের স্থায়ী প্রতিনিধি কিয়াও মো।

পাশাপাশি সেনা সরকারকে কোন ধরনের সহায়তা না করতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান। এ ঘটনায় জান্তা সরকারের রোষানলে পড়েন কিয়াও মো। শনিবার  তাকে বরখাস্ত করে সেনা শাসক।  

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ইরানের ‌‘কনিষ্ঠা আঙুলের’ আঘাতেই ভূগর্ভে লুকায় মার্কিন সেনারা

অনলাইন ডেস্ক

ইরানের ‌‘কনিষ্ঠা আঙুলের’ আঘাতেই ভূগর্ভে লুকায় মার্কিন সেনারা

ইরাকে মার্কিন ঘাঁটি আইন আল আসাদে যে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা করা হয়েছে তা ইরানের কনিষ্ঠা আঙুলের আঘাত বলে মন্তব্য করেছে তেহরান।

ইরানের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বাসিজের শিক্ষক শাখার উপ-প্রধান ব্রিগেডিয়ার মেহরান তাহমাসেবি এমন মন্তব্য করেন।

তিনি বলেছেন, মুসলিম বিশ্বের মহাবীর জেনারেল কাসেম সোলাইমানির জানাজা অনুষ্ঠানে জনগণ কঠোর প্রতিশোধের যে দাবি জানিয়েছিল তারই কিয়দংশ ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করা হয়েছে, এটা ছিল ইরানের কনিষ্ঠা আঙুলের আঘাত।


গুলি ছুড়ে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করেছে সৌদি

জানা গেল আসল রহস্য, ১৩-১৪ বছরের দুই বোনের সঙ্গেই শরীরিক মেলামেশা ছিল তার

আবাহনীকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিল বসুন্ধরা কিংস

৬৬ নারীকে ধর্ষণ


ইরানের বাসিজের এই কর্মকর্তা বলেন, মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্রের সাহায্যে যে আঘাত হানা হয়েছিল তাতে মার্কিন সেনারা ভূগর্ভস্থ আশ্রয়কেন্দ্রে লুকাতে বাধ্য হয়। তারা প্রথমে বলেছিল কিছুই হয়নি, কিন্তু পরবর্তীতে ক্ষয়ক্ষতির কথা স্বীকার করেছে।

২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি ইরানের জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও তার ৯ সহযোগী ইরাকে মার্কিন কাপুরুষোচিত হামলায় নিহত হন।

জেনারেল সোলাইমানিকে কবর দেওয়ার আগেই মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী আইআরজিসি।

মার্কিন ঘাঁটি আইন আল আসাদে ১১টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে ইরান, এর প্রতিটি ক্ষেপণাস্ত্রের ওজন ছিল এক হাজার পাউন্ডের বেশি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এবার এক ডোজের ভ্যাকসিন অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক

এবার এক ডোজের ভ্যাকসিন ​মার্কিন কোম্পানি জনসন এন্ড জনসনের ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। শনিবার মার্কিন খাদ্য ও ঔষধ প্রশাসন-এফডিএ এই টিকার অনুমোদন দেয়।

এছাড়া মহামারীতে বিপাকে পড়া মার্কিনীদের সাহায্যে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ১ দশমিক ৯ ট্রিলিয়ন ডলারের ত্রাণ পরিকল্পনায় অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদ। 


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


শনিবার সকালে হওয়া ওই ভোটে বিলটি ২১৯-২১২ ব্যবধানে অনুমোদন পায়। বিলটি এখন অনুমোদনের জন্য উচ্চকক্ষ সেনেটে পাঠানো হবে। এদিকে গেলো সপ্তাহে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কিছুটা কমে আসলেও চলতি সপ্তাহের শুরুতেই আবারো কিছুটা বেড়েছে সংক্রমণের মাত্রা। 

এ পরিস্থিতিতে ভারতে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। এরইমধ্যে দেশটিতে মোট সংক্রমণ ছাড়িয়ে গেছে এক কোটি ১০ লাখ। এদিকে বিশ্বজুড়ে মোট শনাক্ত হয়েছে ১১ কোটি ৪৩ লাখ এবং মৃত্যু ছাড়িয়েছে ২৫ লাখ ৩৬ হাজার।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

গুলি ছুড়ে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করেছে সৌদি

অনলাইন ডেস্ক

গুলি ছুড়ে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করেছে সৌদি

সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের সশস্ত্র বাহিনী।

পাশাপাশি দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় একটি প্রদেশে ড্রোন হামলা চালিয়েছে বলে সৌদি সরকার শনিবার দাবি করেছে।

দেশটি বলছে, তাদের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রিয়াদের আকাশে ইয়েমেনি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রকে গুলি করে ভূপাতিত করতে সক্ষম হয়েছে।

সৌদি আরবের আল-ইখবারিয়া টেলিভিশনে প্রচারিত ফুটেজে দেখা গেছে, তাদের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা থেকে গুলি ছুড়ে একটি ক্ষেপণাস্ত্রকে আকাশেই ধ্বংস করে দেওয়া হচ্ছে।

ইয়েমেনের সেনাবাহিনী সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলীয় জিযান প্রদেশে বোমা-ভর্তি ড্রোন হামলা চালিয়েছে বলেও রিয়াদ জানিয়েছে। এসব ড্রোনের অন্তত তিনটি আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছে এবং বাকিগুলো হামলা চালিয়ে তাদের উৎসে ফিরে গেছে।

সৌদি সরকার দাবি করেছে এসব হামলার পেছনে আনসারুল্লাহ আন্দোলন জড়িত রয়েছে। যদিও হুথি আনসারুল্লাহ আন্দোলনের পক্ষ থেকে এ সম্পর্কে এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি। সৌদি আরবের পক্ষ থেকে এসব হামলায় তাদের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে দাবি করা হয়েছে।

সৌদি সরকার ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা নিশ্চিত করার কিছুক্ষণ আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই খবর ছড়িয়ে পড়ে যে, রাজধানী রিয়াদের অধিবাসীরা তাদের আকাশে বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পেয়েছেন।

ওমান সাগরে ইসরাইলি মালিকানাধীন একটি জাহাজে বিস্ফোরণের কারণে মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা বেড়ে যাওয়ার একই সময়ে সৌদি আরবে ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলার খবর এল। এখনো কেউ ওই বিস্ফোরণের দায়িত্ব স্বীকার করেনি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মিয়ানমারে পুলিশের গুলিতে ৫ বিক্ষোভকারী নিহত

অনলাইন ডেস্ক

মিয়ানমারে পুলিশের গুলিতে ৫ বিক্ষোভকারী নিহত

মিয়ানমারে বিক্ষোভকারীদের ওপর আবারও গুলি করেছে পুলিশ। এতে আজ রোববার কমপক্ষে ৫ বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন। 

স্থানীয় মিডিয়াকে উদ্ধৃত করে লন্ডনভিত্তিক প্রভাবশালী অনলাইন গার্ডিয়ান বলেছে, দক্ষিণের ডাউয়ি শহরে নিহত হয়েছেন তিনজন। একজন নিহত হয়েছেন ইয়াঙ্গুনে। এ নিয়ে মিয়ানমারে অভ্যুত্থানের পর মোট কমপক্ষে ৭ বিক্ষোভকারী নিহত হলেন। রোববার বিক্ষোভকারীদের ওপর পুলিশ সরাসরি গুলি, কাঁদানে গ্যাস, স্টান গ্রেনেড ছুড়েছে। অভ্যুত্থানের পর এটাই তাদের সবচেয়ে আগ্রাসী বিক্ষোভ বিরোধী দমনপীড়ন।

এর ফলে ডাউয়ি শহরে আহত হয়েছেন কমপক্ষে ২০ জন। বেশ কিছু মানুষ আহত হয়েছেন ইয়াঙ্গুনে। যেসব চিকিৎসক বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন, তারা ইয়াঙ্গুনে জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ফিরে গিয়েছেন আহতদের চিকিৎসা দিতে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যেসব ফুটেজ ছড়িয়ে পড়েছে তাতে দেখা যায় ইয়াঙ্গুনে লোকজন রক্তাক্ত ব্যক্তিদের নিরাপদে সরিয়ে নিচ্ছে। একজন মানুষকে রাস্তায় নিথর পড়ে থাকতে দেখা যায়। তার শরীরে সরাসরি বুলেটবিদ্ধ হয়েছে কিনা তা স্পষ্ট নয়। তবে হ্লেডান জংসনে সরাসরি গুলি করা হয়েছে। 


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


 news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর