দামি মোবাইল চুরি আর বিয়ে তার নেশা

অনলাইন ডেস্ক

দামি মোবাইল চুরি আর বিয়ে তার নেশা

ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার বাবু শেখের দুটি নেশা। দামি মোবাইল ফোন চুরি করা আর বিয়ে করা। একে একে ২৭টি বিয়ে করেছেন ৩৭ বছর বয়সী বাবু।

২৭তম বিয়ের দিন ঠিক হয়েছিল বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি)। কিন্তু তার আগে ধরা পড়লেন পুলিশের হাতে।

তার সহযোগী আবুল খায়ের মাতুব্বরকে (৩২) আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে আটক দুই যুবককে তিন দিনের রিমান্ড চেয়ে ফরিদপুর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার দিনগত রাতে ভাঙ্গা ও সদরপুর থানা-পুলিশের যৌথ অভিযানে প্রথমে উপজেলার জান্দী গ্রাম থেকে আবুল খায়ের ও পরে সদরপুর উপজেলার আকোটের চর গ্রাম থেকে বাবু শেখকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

একে একে ২৬ বিয়ে, ২৭তম করতে গিয়ে ধরা বাবু

আটক আবুল খায়ের মাতুব্বর ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার জান্দী গ্রামের আবু বক্করের ছেলে ও বাবু শেখ সদরপুর উপজেলার আকোটেরচর গ্রামের দলিল উদ্দিন শেখের ছেলে। তারা সম্পর্কে ভায়রা ভাই।

পুলিশ জানিয়েছে, গত ৩ জানুয়ারি ভাঙ্গা উপজেলায় পর পর কয়েকটি চুরির ঘটনায় মামলা হয়। মামলার সূত্র ধরে প্রথমে জান্দী গ্রাম থেকে আবুল খায়েরকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে পুলিশ চোরের সরদার বাবুকে (বাবু চোরা) গ্রেফতার করে।

দিহান যৌনবর্ধক ওষুধ খেয়েছিলেন কি-না পরীক্ষা করা হবে

প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে ‘রাত্রিযাপনকালে যৌন উত্তেজক ট্যাবলেটসহ’ ধরা কৃষকলীগ নেতা

বাবুর দেওয়া স্বীকারোক্তির বরাতে ভাঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক মো. আজাদ জানান, অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের মেয়েদের বিয়ে করাই ছিল চোরা বাবুর টার্গেট। তার দুইটি নেশা। প্রথমটি হল- দামি মোবাইল ফোন চুরি করা এবং দ্বিতীয়টি হল- নতুন নতুন বিয়ে করা। সে দামি মোবাইল ফোন চুরি করে আইইএমই নম্বর পরিবর্তন করে ফেলত। তারপর তা  বিক্রি করতো। আর সেই চুরির টাকাতেই বিয়ে করে বেড়াতো।

উপ-পরিদর্শক মো. আজাদ আরো জানান, গ্রামের দরিদ্র পরিবারগুলোর অভাবের সুযোগ নিতো বাবু। পরিবারগুলোকে টাকার প্রলোভন দেখিয়ে মেয়েদের বিয়ে করত সে। বিয়ের সুবাদে বিভিন্ন এলাকায় চুরির ঘটনা ঘটিয়ে সে পালিয়ে অনত্র গাঁ ঢাকা দিতো।

তিনি আরো জানান, সম্প্রতি দিন-দুপুরে সর্বশেষ চুরির ঘটনা ছিল ভাঙ্গা উপজেলার ছিলাধরচর গ্রামের পৌরসভায় মিজানুরের বাড়িতে। সেখান থেকে একটি মোটরসাইকেল, কয়েকটি দামি মোবাইল, ল্যাপটপসহ বেশ কিছু মালামাল চুরি করে বাবু। এছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি বড় চুরির ঘটনা সে ঘটায়। ঘটনার ১০ দিন পর বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) ভাঙ্গার জান্দি গ্রামের এক দরিদ্র পরিবারের মেয়ের সঙ্গে বাবুর বিয়ের দিন ঠিক হয়। এর আগে সে ২৬টি বিয়ে করেছে।

বাবুকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে চুরির ঘটনায় তার সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছে বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা। তিনি জানান, সে বিভিন্ন কৌশলে প্রতারণা করে এ পর্যন্ত ২৬ টি বিয়ে করেছে বলে জানিয়েছে।

বুধবার দুপুরে দুই যুবককে তিন দিনের রিমান্ড চেয়ে ফরিদপুর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে তাদের আটক করতে পারলেও মালামাল উদ্ধার করতে পারিনি। মালামাল উদ্ধারের চেষ্টা চলছে বলে জানান মো. আজাদ।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কার্টুন দেখানোর কথা বলে সিরাজগঞ্জে শিশু ধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

কার্টুন দেখানোর কথা বলে সিরাজগঞ্জে শিশু ধর্ষণ

প্রতীকী ছবি

মোবাইল ফোনে কার্টুন দেখানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে সিরাজগঞ্জে তিন বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে সদর উপজেলার বিয়াড়াঘাট দক্ষিনপাড়ার আব্দুল মমিন তালুকদার নামে এক স্কুলছাত্র এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। 

পুলিশ খবর পেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিললাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে শুক্রবার বিকেলে সদর থানায় মামলা দায়ের করেছে। ঘটনার পর থেকে ওই স্কুলছাত্র ও তার পরিবারের সদস্যরা পলাতক রয়েছে। 


 ফেঁসে যাচ্ছেন নাসিরের স্ত্রী তামিমা!

অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু- শনাক্তের সর্বশেষ তথ্য

মুরগির দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ টাকা


সিরাজগঞ্জ সদর থানার উপ-পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম জানান, বিয়ারাঘাট দক্ষিনপাড়া গ্রামের আলম তালুকদারের ছেলে মমিন তালুকদার বাড়ির পার্শ্ববর্তী এক শিশুকে মোবাইল ফোনে কার্টন দেখার কথা বলে তার ঘরে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর মমিন তালুকদার শিশুকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। পরে শিশুটি চিৎকার করলে শিশুটির বাবা ও বাড়ির আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে স্কুলছাত্র মমিন তালুকদার পালিয়ে যায়। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দুলাভাইয়ের বাড়িতে শ্যালিকা, বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

দুলাভাইয়ের বাড়িতে শ্যালিকা, বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ

ঝিনাইদহের কোটচাদঁপুর উপজেলার সিঙ্গীয়া মাঠ পাড় গ্রামে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পবিরারের পক্ষ থেকে কোটচাঁদপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, মহেশপুর উপজেলার খালিশপুর গ্রাম থেকে কোটচাঁদপুর উপজেলার সিংগীয়া মাঠপাড়া গ্রামের দুলাভাইয়ের বাড়িতে বেড়াতে যায় শিশুটি। গত বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে দুলাভায়ের বাড়ির পাশে খেলা করছিল শিশুটি। এ সময় পাশের বাড়ির মৃত বুরাক মন্ডলের ছেলে আব্দুল খালেক (৪৫) বিস্কুট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি পরিবারের লোকেরা জানতে পেরে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনাটি জানাজানি হলে গ্রামের মেম্বার সহ খালেকের পরিবার মীমাংসার জন্য চেষ্টা করে ভুক্তভোগীর পরিবারের সাথে।


আবাসিক হোটেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ড, ধরা ২০ নারী

চুমু দিয়ে নারীদের সব রোগ সারিয়ে দেন ‘চুমুবাবা’

বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ


কিন্তু পরিবারের লোকেরা কোটচাঁদপুর থানায় অভিযোগ দিলে বৃহস্পতিবার রাতে মামলা রেকর্ড করা হয়।

এ বিষয়ে কোটচাঁদপুর থানার ওসি মাহবুবুল আলম বলেন, সিঙ্গীয়া মাঠ পাড়া গ্রামে শিশু ধর্ষণের বিষয়ে একটি মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খুলনায় জীবিত হরিণসহ একজন আটক

অনলাইন ডেস্ক

খুলনায় জীবিত হরিণসহ একজন আটক

খুলনায় হরিণ শিকারের ফাঁদ ও একটি জীবিত হরিণসহ শাকিল সরদার (১৯) নামে এক শিকারিকে আটক করেছে কোস্ট গার্ড। শুক্রবার (৫ মার্চ) ওই শিকারিকে ডাংমারী ফরেস্ট অফিসে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) মধ্যরাতে দাকোপ উপজেলার সুন্দরবন সংলগ্ন লাউডোব ঘাট সংলগ্ন এলাকায় কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের (মোংলা) একটি টহল দল বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে তাকে আটক করে। শাকিল দাকোপ উপজেলার ভোজনখালী গ্রামের ইমাদুল সরদারের ছেলে।

আরও পড়ুন:


ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় থাকছে ৭ নির্দেশনা

তুরস্কে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, ১১ সৈন্য নিহত

সাতক্ষীরায় প্রশিক্ষণের প্রাইভেটকার নদীতে, নিহত ২

দীঘির সিনেমার ট্রেইলার প্রকাশ, হতাশ সিনেমা প্রেমিরা (ভিডিও)


কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট বিএন এম মাজহারুল হক জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে দাকোপ উপজেলার সুন্দরবন সংলগ্ন লাউডোব ঘাট সংলগ্ন এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে হরিণ শিকারের ফাঁদ ও জীবিত একটি হরিণসহ শিকারি শাকিলকে আটক করা হয়। 

শিকারি শাকিলকে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ডাংমারী ফরেস্ট অফিসে হস্তান্তর করা হয়েছে। একইসাথে জব্দকৃত হরিণও ফরেস্ট অফিসে হস্তান্তর করা হয়েছে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নেরর মাঝাপাড়া গ্রামে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত বুধবার (৩ মার্চ) দুপুরে সদর উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের কিসমত শুখানপুকুরী মাঝপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, একই গ্রামের বাসিন্দা ইসারুল ইসলামের ছেলে রায়হান (১৮) বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। মেয়েটি ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচার জন্য চেষ্টা করলে তাকে দেশীয় অস্ত্র (ছুরি) দিয়ে জবাই করে হত্যার ভয় দেখায়। এরপর স্থানীয় এক বাসিন্দা বিষয়টি টের পেয়ে মেয়ের বাবাকে খবর দেয়। পরে তার বাবা এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

মেয়ে বাবা বাতিনুর রহমান জানান, বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে রায়হান আমার মেয়েকে গলায় ছুরি ঠেকিয়ে ধর্ষণ করে। আমি খবর পেয়ে বাড়িতে গিয়ে দেখি আমার মেয়ে রায়হানের ঘরে অসুস্থ্য অবস্থায় পরে আছে। আমি প্রশাসনের কাছে ধর্ষক রায়হানের সর্ব্বোচ্চ শাস্তি চাই।


জিয়ার অবদান অস্বীকার করার অর্থই হল স্বাধীনতাকে অস্বীকার: ফখরুল

সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে রাজনীতিতে সুযোগ দিয়েছিলেন জিয়া: কাদের

বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের রিটেইলার মিট প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

খুলনায় বিএনপির অফিস ঘিরে রেখেছে পুলিশ, তীব্র উত্তেজনা


অভিযোগের বিষয়ে অভিযুক্ত রায়হানের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা হলে কথা বলতে কেউ রাজী হননি।

এ বিষয়ে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তানভীরুল ইসলাম নিউজ টোয়েন্টিফোরকে জানান, মেয়ের বাবা থানায় একটি  মামলা করেছেন। আসামিকে ধরতে আমাদের অভিযান চলছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রেমের ফাঁদে ফেলে অর্থ আদায় করত এই প্রতারক চক্র

অনলাইন ডেস্ক

প্রেমের ফাঁদে ফেলে অর্থ আদায় করত এই প্রতারক চক্র

প্রেমের ফাঁদে ফেলে আটকের পর চাঁদা দাবি এবং মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে অর্থ আদায়ের সঙ্গে জড়িত সংঘবদ্ধ চক্রের ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে রংপুর মহানগরীর ধাপ গাইবান্ধা বিআরটিসি বাস কাউন্টার সংলগ্ন একটি ভাড়াবাসাসহ শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

শুক্রবার দুপুরে মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানায় আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ।

তিনি জানান, নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার শৈলমারী আমচারহাট গ্রামের নজম উদ্দিনের ছেলে রিয়াজুল ইসলাম পেশায় একজন ব্যবসায়ী। রিয়াজুল গত ৩ মার্চ দুপুর ২টার দিকে সময় ব্যবসায়ীক কাজে রংপুর শহরের মেডিকেল মোড়ে পৌঁছালে অজ্ঞাতনামা একজন তাকে প্রতারণার মাধ্যমে জানায় যে, তিনি তাকে চেনেন এবং কৌশলে তাকে এবং তার সঙ্গে থাকা একজনকে নগরীর নুরপুর কবরস্থানের পাশে ৪ তলা ভবনের একটি রুমে নিয়ে আটকে রাখে। পরে মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে মারপিট ও তার কাছ থেকে নগদ আড়াই লাখ টাকা কেড়ে নেয় এবং রিয়াজুলের বন্ধুর গলায় চাকু ধরে চাঁদা দাবি করে। একপর্যায়ে বিকাশের মাধ্যমে ৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় চক্রটি। এ ঘটনায় রিয়াজুল বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ ওই চক্রটিকে ধরতে অভিযানে নামে এতে অপরাধচক্রের মূলহোতা বীনা রানী ওরফে মুক্তা ওরফে সুমীকে রংপুর মহানগরীর ধাপ গাইবান্ধা বিআরটিসি বাস কাউন্টার সংলগ্ন ভাড়াবাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।


আবাসিক হোটেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ড, ধরা ২০ নারী

চুমু দিয়ে নারীদের সব রোগ সারিয়ে দেন ‘চুমুবাবা’

বুবলিকে ধাক্কা দেওয়া গাড়িটি ছিল ব্ল্যাক পেপারে মোড়ানো, ছিল না নম্বর প্লেট

অস্ত্রের মুখে ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের পর দফায় দফায় ধর্ষণ


পরে সুমীর দেওয়া তথ্য মতে রংপুর মহানগরীর নুরপুরসহ শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ চক্রের অপর সদস্য জাহাঙ্গীর আলম কচি, আহসান হাবিব, শ্রী বিষ্ণু রায় আকাশ, সেকেন্দার রাজা রাজা, শ্যামল ওরফে নুর ইসলাম, সোহাগী ওরফে রাজিয়া, জোনাকি ওরফে তিশা, জান্নাতুল ফেরদৌস জান্নাতী, শাহনাজ এবং লিজা মনিকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তল্লাশিকালে এ ঘটনায় ব্যবহৃত ১৩টি মোবাইল ফোন, ৩টি এটিএম কার্ড, নগদ ২২হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

ওসি আরও জানান, সংঘবদ্ধ চক্রটি অভিনব কৌশলের মাধ্যমে দীর্ঘদিন হতে গ্রামের সহজ সরল লোকজনদের প্রতারণার ফাঁদে ফেলে টাকা আদায় করতো। গত ১১ ফেব্রুয়ারি আলমনগর ঘোড়াপীর মাজার এলাকায় একই কায়দায় গঙ্গাচড়া উপজেলা পরিষদের এক কর্মকর্তাকে জিম্মি করে ডাচবাংলা ব্যাংকের এটিএম কার্ড ছিনিয়ে নিয়ে বুথ হতে কার্ড পাঞ্চ করে ৫০ হাজার টাকা উত্তোলন করে।

এছাড়াও তার পরিবারের কাছ থেকে বিকাশ ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ৩০ হাজার টাকা ও নগদ ৫ হাজার টাকাসহ মোট ৮৫ হাজার টাকা আদায় করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

দুটি ঘটনায় গ্রেপ্তার আসামিরা জিজ্ঞাসাবাদে প্রতারণার চক্রটির বিষয়ে গুরুতপূর্ণ তথ্য প্রদান করেছে। যেগুলো যাচাই বাছাইসহ উদ্ধার ও গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান ওসি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর