ভিসির কাণ্ডে ক্ষোভে ফুঁসছে বেরোবি

নিজস্ব প্রতিবেদক

ভিসির কাণ্ডে ক্ষোভে ফুঁসছে বেরোবি

অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ

ভিসি স্যার বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন না। ১৩০০ দিনের মধ্যে ১১০০ দিনই তিনি অনুপস্থিত। আজ হঠাৎ তার আগমনের খবর পেয়ে আমরা তার সঙ্গে দেখা করতে তার বাসভবনে গিয়েছিলাম। তবে কখন যে তিনি চলে গেলেন টের পেলাম না। একটা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি এভাবে তার কর্মস্থলে না আসলে বিশ্ববিদ্যালয়টা চলে কিভাবে?

কথাগুলো বলছিলেন রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি ড. তুহিন ওয়াদুদ।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়,  বেরোবির ভিসি অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ দীর্ঘ এক বছরেও বেশি সময় ধরে ক্যাম্পাসে আসেন না। হঠাৎ করে গোপনে ঢাকা থেকে শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে ক্যাম্পাসের মূল প্রবেশ পথ ব্যবহার না করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পেছনের পথ দিয়ে ক্যাম্পাসে আসেন তিনি। বিষয়টি জানাজানি হলে শিক্ষক-কর্মকর্তারা তার সঙ্গে দেখা করার জন্য বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেন।

এটাই ছিলো টিকা উৎপাদক কোম্পানির সুপারিশ

রাত পোহালে নির্বাচন, কে বেশি শক্তি দেখাচ্ছে?

শেষমেষ ভিসির বাসভবন ঘেরাও করে সাড়ে তিন ঘণ্টা অবস্থান করেও তার সাক্ষাৎ পাননি বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষকরা। শিক্ষকদের অভিযোগ ভিসি তাদের আসার খবর পেয়ে বাসভবনের পেছনের দরজা দিয়ে ক্যাম্পাস ছেড়েছেন। এ ঘটনায় শিক্ষক-কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে বেরোবির অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান বলেন, দীর্ঘ প্রায় এক বছর ধরে ভিসি ক্যাম্পাসে আসেন না। শুক্রবার সকালে গোপনে তিনি ঢাকা থেকে আসার খবর পেয়ে নিজেই ভিসির পিএস আমিনুর রহমানকে ফোন করি। পরে নিশ্চিত হই ভিসি সকাল ৯টার দিকে ঢাকা থেকে ক্যাম্পাসে এসেছেন এবং তার বাসভবনে অবস্থান করছেন। এ কথা জানার পর ভিসির সঙ্গে দেখা করার জন্য তাকে জানালে পিএস জানান বিষয়টি ভিসিকে জানিয়ে সময় জানানো হবে। তবে অনেকক্ষণ অপেক্ষা করার পরেও কোনও সাড়া না পেয়ে অধিকার সুরক্ষা পরিষদের নেতৃবৃন্দ শিক্ষক ও কর্মকর্তারা বেলা পৌনে এগারটার দিকে ভিসির বাসভবন ঘেরাও করে সেখানে অবস্থান নেন। সেখানে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত অবস্থান করার পর জানা যায় নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ শিক্ষকদের আসার খবর পেয়ে বাসভবনের পেছন গেট দিয়ে গোপনে পালিয়ে গেছেন।

এ খবর জানাজানি হলে শিক্ষক কর্মকর্তাদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। শিক্ষক নেতারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি দিনের পর দিন ও বছরের পর বছর বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন না। এমনকি রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস স্বাধীনতা দিবস, রোকেয়া দিবস, একুশে ফেব্রুয়ারিতেও আসেন না। তার দীর্ঘ অনুপস্থিতির কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম ধ্বংস হয়ে গেছে। তার ওপর দুর্নীতি-লুটপাট ও ক্ষমতার অপব্যবহার করেই চলেছেন ভিসি। আমরা এর সমাধান চাই।

বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বলেন, উনি এমন কি ক্ষমতাধর হয়েছেন যে তার কর্মস্থলে আসবেন না। তারপরেও এই পদে তিনি কিভাবে থাকেন? বিষয়টি সরকারের নীতি নির্ধারকদের দেখা উচিত।

পরে অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান বলেন, আমরা এক সপ্তাহের মধ্যে ভিসির অনিয়ম-দুর্নীতি ও লুটপাটের সব ফিরিস্তির শ্বেতপত্র প্রকাশ করবো।

এ বিষয়ে জানতে ভিসির সঙ্গে বেশ কয়েকবার যোগাযোগ করা হলেও তার মোবাইলফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বেরোবিতে নিয়োগের কথা বলে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মকর্তা কর্মচারী নিয়োগ দেয়ার কথা বলে লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে একটি চক্রের বিরুদ্ধে। 

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, সেকশন অফিসার গ্রেড-২ পদে চাকরি দেয়ার কথা বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন কর্মচারী মনিরুজ্জামান পলাশ, শেরে জামান সম্রাট ও গুলশান আহমেদ শাওন তাদের নিয়োগপত্রও দিয়েছেন। নিয়োগপত্রগুলো ভুয়া বলে প্রত্যাখ্যান করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এই ভিডিওটি চাকরি প্রত্যাশী মিঠাপুকুর উপজেলার বাসিন্দা রুবেল সাদীর মোবাইলে ধারণ করা।

ভিডিওতে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের সেকশন অফিসার মনিরুজ্জামান পলাশ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের কম্পিউটার অপারেটর শেরে জামান সম্রাট রুবেল সাদীর কাছ থেকে নগদ টাকা বুঝে নিচ্ছেন। 

রুবেল সাদির দাবি, বিশ্বাবিদ্যালয়ের সেকশন অফিসার গ্রেড- ২ পদে চাকরি দেয়ার কথা বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন কর্মচারী মনিরুজ্জামান পলাশ, শেরে জামান সম্রাট ও গুলশান আহমেদ শাওন কয়েক ধাপে তার কাছ থেকে সর্বমোট ১৩ লাখ দিয়েছেন।

বেশ কিছুদিন পর সিন্ডিকেটটি রুবেল সাদিকে একটি নিয়োগপত্রও দেয়। নিয়োগপত্রটি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কাছে গেলে এটিকে ভুয়া বলে প্রত্যাখান করে কর্তৃপক্ষ।


বিএনপির সমাবেশ ঘিরে খুলনায় পরিবহন চলাচল বন্ধ

১৩৮ বছরের পুরনো পরিত্যক্ত আদালত ভবনে চলে বিচার কাজ

নাইজেরিয়ায় হোস্টেল থেকে কয়েকশ ছাত্রীকে অপহরণ

কুয়েটে শর্টপিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু


চাকরি পাবার আশায় এই চক্রটিকে টাকা দিয়ে প্রতারণার শিকার করেছেন আরো বেশ কয়েকজন। চক্রটির নেতেৃত্বে থাকা শেরে জামান সম্রাটের দাবি, ব্যবসায়িক কারণে টাকা লেনদেন হয়েছে। নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ উদ্দেশ্যে প্রণোদিত।

ঘটনা তদন্তে সহকারি প্রক্টর মাসুদুর রহমানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য দপ্তরের কয়েকজন কর্মকর্তার যোগসাজশে চক্রটি বিভিন্ন অনিয়ম ‍ও দুর্নীতি করছে বলেও অভিযোগ পেয়েছে নিউজ টোয়েন্টিফোর।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কাল জানা যাবে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক খুলবে কিনা

অনলাইন ডেস্ক

কাল জানা যাবে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক খুলবে কিনা

মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে কিনা তা আগামীকাল শনিবার আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় পর্যালোচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

গতকাল বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে একটি অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা জানেন, আমরা এসএসসির জন্য ৬০ কর্ম দিবসের সিলেবাস এবং এইচএসসির জন্য ৮৪ কর্ম দিবসের সিলেবাস দিয়েছি। এর জন্য কত দ্রুত আমরা খুলে দিতে পারি এবং সেখানে স্বাস্থ্যবিধি কীভাবে মানা হবে তারও সব প্রস্তুতি নিয়েছি।’

এ বিষয়ে জাতীয় পরামর্শক কমিটির কাছ থেকে পরামর্শ নেয়া হচ্ছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এই শনিবারেই আন্তঃমন্ত্রণালয়ের সভা হবে। সেদিন সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে সিদ্ধান্ত নেব পহেলা মার্চ থেকেই মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে পারব নাকি আরো কয়েকদিন সময় নিতে হবে।’


হাতে নেই ছবি, তবুও বিলাসবহুল জীবনযাপন?

হৃদরোগে মৃত্যুর পরও ফাঁসিতে ঝুলানো হল নিথর দেহ

টিকা নেয়ার ১২ দিন পর করোনায় আক্রান্ত ত্রাণ সচিব

১৯ বছর পর অস্ত্রোপচার করে যমজ বোনে পরিণত হলেন যমজ দুই ভাই


শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি এখন অন্য দেশের চেয়ে আমদের দেশে অনেক ভালো আছে। সেটি যেন আমাদের কোনো ভুল সিদ্ধান্তের জন্য খারাপ দিকে না যায় সে জন্য গণমাধ্যমসহ সকলের সহযোগিতা চাই।’

উল্লেখ্য, গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর ১৭ মার্চ থেকে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করে সরকার। এই ছুটি আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পরীক্ষা স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে দিনাজপুরে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

ফখরুল হাসান পলাশ, দিনাজপুর

পরীক্ষা স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে দিনাজপুরে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান পরীক্ষা স্থগিতাদেশ অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবিতে দিনাজপুরে বিক্ষোভ র‌্যালি ও মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় দিনাজপুর সরকারি কলেজ থেকে শিক্ষার্থীদের একটি বিক্ষোভ র‌্যালি প্রেসক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়। পরে প্রেসক্লাবের সম্মুখ সড়কে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে একটি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 


হাতে নেই ছবি, তবুও বিলাসবহুল জীবনযাপন?

হৃদরোগে মৃত্যুর পরও ফাঁসিতে ঝুলানো হল নিথর দেহ

টিকা নেয়ার ১২ দিন পর করোনায় আক্রান্ত ত্রাণ সচিব

যমজ ভাই অস্ত্রোপচার করে পরিণত হলেন যমজ বোনে


এসময় কলেজ ছাত্র-ছাত্রীরা চলমান পরীক্ষা স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল শিক্ষা কার্যক্রম চালু করার জোড় দাবি জানান। সাত কলেজে ফুলের মালা আমাদের কেন অবহেলা, শিক্ষার্থীদের জীবন নিয়ে আর নয় ছিনিমিনিসহ মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্লোগানের প্ল্যাকার্ড হতে নিয়ে শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ জানায়।

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নেত্রকোনায় জাতীয় বিশ্বিবদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে পুলিশি বাধা

সোহান আহমেদ কাকন, নেত্রকোনা

নেত্রকোনায় জাতীয় বিশ্বিবদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে পুলিশি বাধা

জাতীয় বিশ্বিবদ্যালয়ের স্থগিতকৃত সকল পরীক্ষা দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রহণ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে নেত্রকোনায় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের পৌর সভার সামনের সড়কে কয়েকশ শিক্ষার্থী রাস্তার পাশে দাড়িঁয়ে এ কর্মসূচি পালন করে।


হাতে নেই ছবি, তবুও বিলাসবহুল জীবনযাপন?

হৃদরোগে মৃত্যুর পরও ফাঁসিতে ঝুলানো হল নিথর দেহ

টিকা নেয়ার ১২ দিন পর করোনায় আক্রান্ত ত্রাণ সচিব

যমজ ভাই অস্ত্রোপচার করে পরিণত হলেন যমজ বোনে


পরে মানববন্ধনে বেশ কয়েকজন বক্তৃতা দিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের দিকে যেতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয় ও লাঠিচার্জ করে। এ সময় শিক্ষার্থীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে গেলে সড়কের পাশে থাকা ল্যাম্পপোস্ট ভেঙে নিউজ টুয়েন্টিফোরের সাংবাদিক সোহান আহমেদসহ বেশ ক'জন শিক্ষার্থী আহত হয়।

পরে আবার বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের দিকে এগিয়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে।

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

পরীক্ষা গ্রহনের দাবিতে বরিশাল বিএম কলেজ শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

রাহাত খান, বরিশাল

পরীক্ষা গ্রহনের দাবিতে বরিশাল বিএম কলেজ শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভূক্ত অনার্স চতুর্থ বর্ষের মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষা এবং মাস্টার্সের লিখিত পরীক্ষা সহ সকল বর্ষের পরীক্ষা গ্রহণের দাবীতে বরিশালে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজের শিক্ষার্থীরা। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় ব্রজমোহন কলেজের সামনের সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে তারা। এ সময় কলেজের সামনের সড়কে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল করে শিক্ষার্থীরা। 

সড়ক অবরোধকালে তারা প্রশ্ন তোলেন হাটবাজার, সিনেমা হল, অফিস আদালত সব চলছে। অথচ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে।  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ৭ কলেজের পরীক্ষার সূচি ঘোষনা করা হয়েছে। কিন্তু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ন্তভুক্ত কলেজগুলোর পরীক্ষার সূচি ঘোষনা করা হয়নি। 

এতে তারা শিক্ষা জীবন থেকে পিছিয়ে পড়ছেন। অনার্স এবং মাস্টার্স পরীক্ষা শেষ না হওয়ায় তারা বিসিএস সহ বিভিন্ন সরকারী দপ্তরে চাকুরীর আবেদন করতে পারছেন না তারা। তারা দ্রুত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবীতে বিভিন্ন শ্লোগান দেন। 

শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধের কারনে গুরুত্বপূর্ন ওই সড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত থাকলেও অবরোধকারী শিক্ষার্থীদের সড়ক থেকে সরাতে পারেননি। 


যে শর্ত মানলে ইরানের পরমাণু স্থাপনা পরিদর্শনের সুযোগ পাবে আইএইএ

যে সূরা নিয়মিত পাঠ করলে কখনই দরিদ্রতা স্পর্শ করবে না

বঙ্গবন্ধুর খুনিকে ফেরত চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে আবারও অনুরোধ

নিউজিল্যান্ডে পৌঁছেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল


বেলা সাড়ে ১২ দিকে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. গোলাম কিবরিয়া আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের নানা আশ্বাস দিলেও পরীক্ষার সময় সূচি ঘোষনা না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার কথা বলেন শিক্ষার্থীরা। 

পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, শিক্ষার্থীদের আন্দোলন এবং সড়ক অবরোধের বিষয়টি কলেজ প্রশাসন সহ সংশ্লিস্ট কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। শিক্ষার্থীরা যাতে বিচ্ছৃংখলা করতে না পারে এবং জনদুর্ভোগ যাতে কম হয় সে লক্ষ্যে সতর্ক রয়েছেন তারা। 

বিএম কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. গোলাম কিবরিয়া জানান, সার্বিক পরিস্থিতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তারা যে সিদ্ধান্ত নেবেন সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন তারা। তবে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারনে যাতে জনদুর্ভোগ না হয় সেই চেস্টা করছেন তারা। 

news24bd.tv আয়শা

মন্তব্য

পরবর্তী খবর