সরকার ডেটা প্রোটেকশন ল' নিয়ে কাজ করছে : পলক

অনলাইন ডেস্ক

সরকার ডেটা প্রোটেকশন ল' নিয়ে কাজ করছে : পলক

সোশ্যাল মিডিয়া আইন করার ব্যাপারে কোন উদ্যোগ গ্রহন করা হয়নি, সরকার ডেটা প্রোটেকশন ল' নিয়ে কাজ করছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি বলেন, তথ্য প্রযুক্তি এখন সকল খাতে অক্সিজেনে পরিনত হয়েছে। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এর কোন বিকল্প নেই। ২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে ২০ লাখ তরুন-তরুনীদের কর্ম সংস্থান করবে আইসিটি বিভাগ বলেও জানান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রী।

news24bd.tv / আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আসছে বিবাহ ও বিচ্ছেদের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম

অনলাইন ডেস্ক

আসছে বিবাহ ও বিচ্ছেদের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম

অনলাইনে বিয়ে ও বিচ্ছেদের নিবন্ধন ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ নিয়েছে আইসিটি বিভাগ। এজন্য তৈরি করতে যাচ্ছে বন্ধন নামে একটি অ্যাপ্লিকেশন। এর পাশাপাশি প্রস্তুত হচ্ছে ডিজিটাল সিগনেচার ডেটাবেজ স্বাক্ষর

নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ১৮ এপ্রিল তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের প্রোগ্রামারদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সিং প্লাটফর্ম বৈঠকে এ বিষয়ে মতবিনিময় করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বৈঠকে আলোচিত বিয়ে ইস্যুর ডিজিটাল সমাধান হিসেবে বন্ধন অ্যাপ্লিকেশনের ফিচার সম্পর্কে অবগত করা হয় আইসিট প্রতিমন্ত্রীকে। এই অ্যাপ্লিকেশনটিতে রয়েছে অপ্রাপ্ত বয়স্কদের বিয়ে সনাক্তকরণ, বিয়ে প্রতারণা, একাধিক বিয়ের ক্ষেত্রে পূর্বানুমতি গ্রহণের বাধ্যবাধকতা এবং কাজীর পরিচয় নির্ধারণ ফিচার। আর সব কিছু করা যাবে মোবাইলে ওটিপি, এনআইডি, ফিঙ্গার প্রিন্ট ও ফেসিয়াল ভেরিফিকেশন সুবিধায়।


আরও পড়ুনঃ


বাইডেনের প্রস্তাবে রাজি পুতিন

গালি ভেবে গ্রামের নাম মুছে দিলো ফেসবুক

একজন মিডিওকার যুবকের ১৮+ জীবনের গল্প এবং অন্যান্য

মৃত্যুতে যারা আলহামদুলিল্লাহ বলে তারা কী মানুষ?


অ্যাপটি এখনো প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। দু-একদিনের মধ্যেই অ্যাপটির ডেমো সহ প্রস্তাবনা পাঠানো হবে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নতুন ডেটিং অ্যাপ আনছে ফেসবুক

অনলাইন ডেস্ক

নতুন ডেটিং অ্যাপ আনছে ফেসবুক

মেসেজিংয়ের পরিবর্তে ছোট ভিডিওয়ের মাধ্যমে ডেটিং করার নতুন একটি অ্যাপ নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম কোম্পানি ফেসবুক।

স্পার্কড নামে এই অ্যাপ্লিকেশন থেকে চার মিনিটের ভিডিও করা যাবে বলে জানিয়েছে প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জ।

বাজারে অন্য যে ডেটিং অ্যাপ আছে তাদের থেকে এটি সম্পূর্ণ আলাদা হবে এটি। এখানে কোন পাবলিক প্রোফাইল থাকবে না।

পাবলিক প্রোফাইল না থাকায় নিবন্ধনের সময় ব্যবহারকারীকে কিছু প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। কোন ধরনের মানুষের সঙ্গে তিনি ডেট করতে চান তা উল্লেখ করতে হবে।


আরও পড়ুনঃ


বাইডেনের প্রস্তাবে রাজি পুতিন

২৮ হাজার লিটার দুধ নিয়ে নদীতে ট্যাঙ্কার!

গালি ভেবে গ্রামের নাম মুছে দিলো ফেসবুক

মৃত্যুতে যারা আলহামদুলিল্লাহ বলে তারা কী মানুষ?


কারো সঙ্গে ডেটের শিডিউল পেলে পরবর্তীতে ১০ মিনিটের ভিডিও তৈরি করা যাবে।

আপাতত যুক্তরাষ্ট্রে ৪৭ জন মানুষকে নিয়ে অ্যাপটি পরীক্ষা করা হচ্ছে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

স্মার্টফোন বাজারে অপোকে ছাড়িয়ে শীর্ষে ভিভো

অনলাইন ডেস্ক

স্মার্টফোন বাজারে অপোকে ছাড়িয়ে শীর্ষে ভিভো

চীনের স্মার্টফোন বাজারে অপোকে পেছনে ফেলে শীর্ষস্থান দখল করেছে ভিভো।

কাউন্টারপয়েন্টের সাপ্তাহিক এক পরিসংখ্যানে এ তথ্য জানা যায়। মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহে ভিভো ২৪ শতাংশ বাজার শেয়ার নিয়ে অপোকে ছাড়িয়ে যায়, যেখানে অপোর বাজার শেয়ার ২১ শতাংশ।

মূলত দুটি বাজেট ফোন ওয়াই ৩ এবং এস ৯ দিয়েই শীর্ষস্থানে উঠে আসে ভিভো।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা এবং চিপ সংকটের মধ্যেও ১৫ শতাংশ বাজার শেয়ার নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে আছে হুয়াওয়ে।


আরও পড়ুনঃ


২৮ হাজার লিটার দুধ নিয়ে নদীতে ট্যাঙ্কার!

গালি ভেবে গ্রামের নাম মুছে দিলো ফেসবুক

ভারতে যেতে আর বাধা নেই পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের

করোনায় কাজ না থাকলেও কর্মীদের পুরো বেতন দিচ্ছেন নেইমার


২০১৯ সালের আগস্টে নেক্স ৩ ফাইভজি এবং সেপ্টেম্বরে আইকিওও প্রো ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারজাত শুরু করে ভিভো। এ দুটো ফোনের মাধ্যমে নতুন করে জনপ্রিয়তা লাভ করে ভিভো।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব গুগল আর্থে

অনলাইন ডেস্ক

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব গুগল আর্থে

গত চার দশকের জলবায়ু পরিবর্তনের দৃশ্য নিজের চোখে দেখতে পাচ্ছেন গুগল আর্থ ব্যবহারকারীরা। টাইমল্যাপস ফিচারের মাধ্যমে ১৯৮৪ থেকে ২০২০ পর্যন্ত তোলা ছবি একসাথে করে দেখা যাচ্ছে চার দশকের এই পরিবর্তন।

ফিচারটি আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা হয়। আগে যে ‘টাইম ট্র্যাভেলিং টাইম ল্যাপস’ ফিচার ছিল, সেটারই উন্নত সংস্করণ এটি।

মোট ২ কোটি ৪০ লাখ স্যাটেলাইটের ছবি একত্র করে সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করা হয়েছে।

কোন একটি জায়গায় নতুন করে নির্মাণের পরিকল্পনার ক্ষেত্রে বিশেষভাবে সাহায্য করবে এই ফিচার। সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের অতীত জানা গেলে, ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করা অনেক সহজ হবে।


আরও পড়ুনঃ


চীনে সন্তান নেয়ার প্রবণতা কমছে, কমছে জন্মহার

গালি ভেবে গ্রামের নাম মুছে দিলো ফেসবুক

‘রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট’ ধারা রেখে ফ্রান্সে ধর্ষণের নতুন আইন

প্রকৃত কোন মুসলমান আওয়ামী লীগ করতে পারে না: ভিপি নুর


গুগল আর্থের টাইমল্যাপস ফিচার ব্যবহার করতে, ব্যবহারকারীকে সার্চ বারে কোন জায়গার নাম লিখে সার্চ দিতে হবে।  গুগল তাদের অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে মেঘ, ছায়া ইত্যাদি ছবি থেকে সরিয়ে প্রতিটি পিক্সেল মিলিয়ে অতীতের সাথে জলবায়ুর তুলনা দেখানো হবে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মিডরেঞ্জের ফোনের দিকে মনোযোগ বাড়াচ্ছে স্যামসাং

অনলাইন ডেস্ক

মিডরেঞ্জের ফোনের দিকে মনোযোগ বাড়াচ্ছে স্যামসাং

আবারও প্রকট আকার ধারণ করছে করোনাভাইরাস। এই মহামারিতে অনেকেরই আয় রোজগার কমে গেছে। ফলে দামি লাক্সারি ফোন বাদ দিয়ে সাশ্রয়ী ফোন কেনার দিকেই ঝুঁকছেন অনেকে।

মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোও তাই নজর দিচ্ছে মিডরেঞ্জের ফোনের দিকেই।

স্যামসাং বুধবার জানিয়েছে, প্রতিষ্ঠানটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যম-রেঞ্জের গ্যালাক্সি এ সিরিজের স্মার্টফোন লাইনআপ দ্বিগুণ করছে। আর এর ফলে ৩০০ ডলার মূল্যের নিচে চলে আসছে ৫জি ফোন।

আইডিসির প্রতিবেদন বলছে, ২০২০ সালে মহামারীতে অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তার মধ্যে স্বাশ্রয়ী ফোনের বিক্রি কোম্পানির মোট স্মার্টফোন বিক্রির শতকরা ৭০ ভাগে চলে এসেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই হার ছিল ৬০ ভাগ।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে গত বছর স্বাশ্রয়ী মূল্যের ফোন লাইনআপের বিক্রি ১৬৯ শতাংশ বেড়েছে বলে জানায় স্যামসাং। সে কারণেই স্যাংমসাং এই খাতে এখন আরও উদ্যোগী হয়েছে।

গত মাসেই স্যামসাং একটি আনপ্যাকড ইভেন্ট আয়োজন করেছে তারা, যেটি সাধারণত তাদের ফ্ল্যাগশিপ ফোনের জন্য তারা করে থাকে। এর মধ্যে তিনটি নতুন ৫জি ডিভাইস গ্যালাক্সি এ৫২ ৫জি (৪৯৯ ডলার), এ৪২ ৫জি (৩৯৯ ডলার) এবং এ৩২ ৫জি (২৭৯ ডলার) এবং দুটি ৪জি মডেল, এ১২ (১৭৯ ডলার) এবং এ০২ এস (১০৯ ডলার) রয়েছে।

তবে মাঝারি দামের ফোনের দিকে নজর দেওয়া হলেও এই করোনা মহামারির মধ্যে ব্যাপক সংখ্যক গ্রাহকের জন্যই এটি হাই এন্ড ফোন বলে বিবেচিত হবে বলে মনে করেন আইডিসির বিশ্লেষক রামন ল্ল্যামাস।

মন্তব্য

পরবর্তী খবর