জগন্নাথপুরে পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ী হলেন বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

জগন্নাথপুরে পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ী হলেন বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপিকে হারিয়ে মেয়র পদে নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপির বহিষ্কৃত উপজেলার সাবেক সভাপতি  আক্তারুজ্জামান আক্তার হোসেন।

তিনি চামচ প্রতীকে ৮ হাজার ৩ শত ৭৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র মিজানুর রশীদ ভূইয়া (নৌকা) প্রতীকে ৮ হাজার ১৮ ভোট ও বিএনপির মনোনীত প্রার্থী মো. হারুনুজ্জামান (ধান) প্রতীকে ৮শত ১৭ ভোট পেয়েছেন।

শনিবার রাতে নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করেন সুনামগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার।


মাধবপুরে মেয়র পদে বিএনপি প্রার্থীর জয়

নরসিংদীর মনোহরদী পৌরসভায় নৌকার প্রার্থী বিজয়ী

নওগাঁর নজিপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী নির্বাচিত

ছাতক পৌরসভার মেয়র হলেন আবুল কালাম


উল্লেখ্য, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে প্রথমবারের মতো ইভিএম পদ্ধতিতে জগন্নাথপুরে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখানে মোট ভোটার ২৮ হাজার, ৬শ’ ৪২ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৪ হাজার ৩৯২ এবং নারী ভোটার ১৪ হাজার ২৫০ জন।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

রংপুর করোনা হাসপাতালে বরাদ্দকৃত ৫০ আইসিইউ-এর মধ্যে বসেছে মাত্র ২৩টি

রেজাউল করিম মানিক, রংপুর

রংপুর করোনা হাসপাতালে বরাদ্দকৃত ৫০ আইসিইউ-এর মধ্যে বসেছে মাত্র ২৩টি

রংপুরের ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে ৫০টি আইসিইউ শয্যা স্থাপনের বরাদ্দ ঘোষণা হলেও তা কার্যকর হয়নি। গত বছরের এপ্রিলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওই ঘোষণার পরও মাত্র ১০টি আইসিইউ শয্যা দিয়ে ১০০ শয্যা বিশিষ্ট নবনির্মিত রংপুর শিশু হাসপাতালটিকে ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এ হাসপাতালে ১০টি আইসিইউ ও ৯০টি সাধারণ শয্যা স্থাপন করা হয়।

শুরুতে রংপুর ও দিনাজপুর মিলে ২৬টি আইসিইউ শয্যা দিয়ে বিভাগের আট জেলার করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা চললেও দ্বিতীয় টেউ মোকাবিলায় রংপুরে মাত্র ১৩টি শয্যা বাড়ানো হয়েছে। অর্থাৎ ৫০টি আইসিইউ শয্যা বরাদ্দ থাকলেও এপর্যন্ত বসেছে মাত্র ২৩টি।

তবে রোগীর স্বজনসহ বিশিষ্টজনরা বলছেন, একটি বিভাগে করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষু রোগীদের চিকিৎসা সেবার জন্য এই সংখ্যা একেবারেই অপ্রতুল। বিভাগের প্রতিটি জেলায়ই আইসিইউ সুবিধা নিশ্চিত করা না গেলে অনেকেই বিনা চিকিৎসায় মারা যাবেন। দ্রুত আইসিইউ শয্যা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত বছরের এপ্রিলে রংপুরে ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে ১০টি এবং ওই সময়ে দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৬টি শয্যা স্থাপনের মধ্য দিয়ে করোনা রোগীদের আইসিইউ সুবিধা দেওয়া শুরু হয়। স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে রংপুরের ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে ৫০টি আইসিইউ শয্যা স্থাপনের বরাদ্দ দিলেও প্রথম পর্যায়ে ১০টি স্থাপনের পর থেমে যায় বাকিগুলোর কাজ। একবছর পর আবার করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় আইসিইউ বেড বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। ফলে মাত্র ১৩টি শয্যা বাড়ানো হয়।

রংপুর বিভাগে প্রতিদিন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। সংক্রমণের সঙ্গে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। যতই দিন যাচ্ছে ততই করোনার ভয়ঙ্কর আঘাতে চিকিৎসা সেবা নিয়ে শঙ্কিত হচ্ছেন আক্রান্তরা। বিশেষ করে মুমূর্ষু রোগীদের জন্য সহসা মিলছে না আইসিইউ সুবিধা। চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল আইসিইউ শয্যা থাকায় কাঙ্খিত সেবা দিতে বেসামাল পরিস্থিতির সম্মুখীন হচ্ছেন চিকিৎসাকরা।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, বিভাগের আট জেলার করোনা রোগীদের জন্য প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল হলেও রংপুর ও দিনাজপুর ছাড়া বাকি ছয় জেলা পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, নীলফামারী, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধায় কোনো আইসিইউ সুবিধা নেই। এছাড়া রংপুর বিভাগের আট জেলায় বিশেষায়িত ১২টি হাসপাতাল রয়েছে। এসব হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য আইসোলেশন ওয়ার্ডে শয্যা রয়েছে ৫৩২টি। এর মধ্যে রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে ১০০টি, রংপুর বক্ষব্যাধি হাসপাতালে ২০টি, হারাগাছ হাসপাতালে ৩১টি, দিনাজপুরে এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৫০টি, পঞ্চগড় আধুনিক হাসপাতালে ২০টি, নীলফামারীর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে ১০০টি, কুড়িগ্রামে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ৫০টি, ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ৫০টি, গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে ২০টি, লালমনিরহাট নার্সিং কলেজে ১২টি, লালমনিরহাট  রেলওয়ে হাসপাতালে ১৫টি এবং লালমনিরহাট সরকারি কলেজের মহিলা হোস্টেলে ৬৪টি শয্যা রয়েছে।

আরও পড়ুন


উৎসব মুখর পরিবেশে সুনামগঞ্জের হাওরে ধান কাটা শুরু

রিমান্ডে যে সব গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন ‘শিশু বক্তা’

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে শীর্ষ পাঁচে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক

বান্দরবানে ভাল্লুকের আক্রমণে কৃষক আহত


এদিকে রংপুর বিভাগে মানুষের অসচেতনতা, অবহেলা ও উদাসীনতার কারণে করোনার ঝুঁকি বেড়ে গেছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর পর চলতি বছরের মার্চ মাসের শেষ দিকে সংক্রমণের হার বাড়তে থাকে।

রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এস এম নূরুন নবী বলেন, এখানে ১০টি আইসিইউ শয্যা রয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত সেখানে সাতজন এবং সাধারণ শয্যায় ৪৫ জন রোগী চিকিৎসাধীন। তিনি বলেন, পরিস্থিতি মোকাবিলায় আইসিইউ শয্যা বাড়ানোর বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

রংপুর করোনা প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক অধ্যক্ষ ফখরুল আনাম বেঞ্জু বলেন, রংপুর বিভাগে করোনা রোগীদের সংখ্যা বাড়ছে। সেই সঙ্গে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। এজন্য আইসিইউ সুবিধা বাড়ানো প্রয়োজন। বর্তমান সংকট মোকাবিলার জন্য বিভাগীয় নগরীতে নতুন ১৩টিসহ ২৩টি আইসিইউ শয্যা পর্যাপ্ত নয়।

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. আহাদ আলী জানান, গত বছর রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে ৫০টি আইসিইউ শয্যা বরাদ্দ দেয় স্বাস্থ্য বিভাগ। তবে প্রাথমিকভাবে ১০টি শয্যা প্রস্তুত করা হয়। করোনা সংক্রমণ ও ঝুঁকি বেশি একটা না থাকায় বাকি শয্যাগুলো স্থাপনের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়নি। তবে সম্প্রতি করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে। হাসপাতালে আসছেন আক্রান্ত  রোগীরা। ফলে আইসিইউ শয্যার সংকট সৃষ্টি হচ্ছে। আইসিইউ শয্যার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে শয্যা ১০০ থেকে বাড়িয়ে ১৫০ করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

উৎসব মুখর পরিবেশে সুনামগঞ্জের হাওরে ধান কাটা শুরু

মো. বুরহান উদ্দিন, সুনামগঞ্জ

উৎসব মুখর পরিবেশে সুনামগঞ্জের হাওরে ধান কাটা শুরু

সুনামগঞ্জের শতাধিক হাওরে বোরো ধানকাটা শুরু হয়েছে। ১১ উপজেলার প্রত্যেক হাওরেই কমবেশি ধান কাটছেন কৃষকরা। তবে কৃষকরা বলছেন, এবছর বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় ফলন কম হচ্ছে। অনেকে শ্রমিক সংকটের কথাও জানিয়েছেন।

হাওরের জেলা সুনামগঞ্জ খাদ্য উদ্ধৃত্ত জেলা হিসেবে দেশব্যাপী পরিচিত। স্থানীয় জনগণের খাদ্য চাহিদা মিটিয়ে আরো সমপরিমান ধান উদ্ধৃত্ত থাকে জেলায়। এখন হাওরের চারদিকে কাঁচা-পাকা ধানের সমারোহ। বাতাসে দুলছে বিস্তৃত ধান ক্ষেত। বোরো ক্ষেতের পাকা ধান কাটতে শুরু করেছেন কৃষকরা।

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত ৩০ ভাগ ধান কাটা শেষ হয়েছে। চলতি বছর জেলায় ২ লাখ ১৯ হাজার ৩০০ হেক্টর বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও আবাদ হয়েছে ২ লাখ ২৩ হাজার ৩৩০ হেক্টর। এর মধ্যে বিআর ২৮ ধান ৬৭ হাজার হেক্টর এবং বিআর ২৯ ধান ৬৩ হাজার হেক্টর জমিতে আবাদ হয়েছে। বাকি জমিতে হাইব্রিডসহ কিছু দেশীয় প্রজাতির ধান রয়েছে।

চলতি মৌসুমে হাওরে ধান লাগানোর পর কোন বৃষ্টিপাত হয়নি। যে কারণে ধান কম হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কৃষকরা। এ কারণে ফলনে কিছুটা প্রভাব পড়তে পারে বলেও মনে করছেন তারা।

আরও পড়ুন


রিমান্ডে যে সব গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন ‘শিশু বক্তা’

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে শীর্ষ পাঁচে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক

বান্দরবানে ভাল্লুকের আক্রমণে কৃষক আহত

খুলনা সিটি মেয়রের আইসিটি মামলায় সাংবাদিক আবু তৈয়ব গ্রেপ্তার


তবে কৃষি বিভাগ বলছে, ফলনে তেমন তারতম্য হবেনা। কৃষকরা জানিয়েছেন হাওরের বোরো ধান পাকতে শুরু করেছে। কিন্তু বরাবরের মতো এবারও শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। প্রশাসন ইতোমধ্যে ১০৭টি ধান কাটার যন্ত্র ভর্তুকিতে কৃষকদের দিয়েছে। সেই যন্ত্র দিয়েও অনেক স্থানে ধান কাটা চলছে। তাছাড়া সরকারিভাবে পাবনা, সিরাজগঞ্জ, হবিগঞ্জ, নেত্রকোণা, কিশোরগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থান থেকে ধান কাটার জন্য শ্রমিক নিয়ে আসা হচ্ছে। এই মাসের মধ্যেই প্রায় শতভাগ ধান কাটা শেষ হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. ফরিদুল হাসান বলছেন, ধানকাটা শুরু হয়ে গেছে। শ্রমিক সংকট দূর করতে সরকার ধান কাটার যন্ত্র দিয়েছে। বিশেষ ব্যবস্থায় নিয়ে আসা হচ্ছে বাইরের জেলার শ্রমিকদের। মৌসুমে বৃষ্টিপাত না হলেও ধানের ফলনে তারতম্য হবেনা বলেও জানান তিনি।

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, আবহাওয়া যদি আমাদের অনুকুলে থাকে তাহলে আগামী ৩০ তারিখের মধ্যে হাওরের সর্ম্পূণ ধান আমরা কেটে ফেলতে পারব। কারণ ধান কাটার জন্য পর্যাপ্ত শ্রমিক এবং প্রত্যেকটি হাওরের ধান কাটার মেশিন দেওয়া হয়েছে। যদি হাওরের ধান কটার জন্য আরো শ্রমিক প্রয়োজন হয় তাহলে আমরা সেটা ব্যবস্থা করে দিব।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

রিমান্ডে যে সব গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন ‘শিশু বক্তা’

শেখ সফিউদ্দিন জিন্নাহ্, গাজীপুর

রিমান্ডে যে সব গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন ‘শিশু বক্তা’

রাষ্ট্রবিরোধী, উস্কানিমূলক ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে ‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানীকে দুই দিনের পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের পর মঙ্গলবার দুপুরে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইসমাইল হোসেন জানান, পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত রোববার দুপুর দেড়টার দিকে রফিকুল ইসলামকে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার পার্ট-২ থেকে মহানগরীর গাছা থানায় আনা হয়।

আদালতের অনুমতিতে দুইদিনের পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদে মাদানী অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন। তিনি হেফাজতকে সংঘটিত করতে হেফাজতের নানা কর্মসূচী ও সরকার বিরোধী কর্মের নানা পরিকল্পনা করার কথা বলেছেন। এর মধ্যে একটি ছিল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশে আগমন প্রতিহত করার কর্মসূচী। ওই কর্মে জড়িত স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় অনেক নেতার নামও বলেছেন তিনি। গুরুত্বপূর্ণ ও গোপনীয় আরো অনেক তথ্য তদন্তের স্বার্থে বলতে চাননি ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার পার্ট-২-এর সিনিয়র জেল সুপার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, ‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানীকে গাছা থানার একটি মামলায় গত রোববার দুপুর দেড়টার দিকে পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে রিমান্ড শেষে তাকে গাছা থানা থেকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার পার্ট-২ এ পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন


বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে শীর্ষ পাঁচে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক

বান্দরবানে ভাল্লুকের আক্রমণে কৃষক আহত

খুলনা সিটি মেয়রের আইসিটি মামলায় সাংবাদিক আবু তৈয়ব গ্রেপ্তার

সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া করলেন সাইফ, ফিরলেন সাজঘরে


গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মো. জাকির হাসান জানান, রাষ্ট্রবিরোধী ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ায় ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ৮ এপ্রিল র‌্যাবের করা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। র‌্যাবের নায়েক সুবেদার আবদুল খালেক বাদী হয়ে গাজীপুরের গাছা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করেন। তার বিরুদ্ধে একই আইনে বাসন থানাও একটি মামলা হয়েছে।

এছাড়া গাছা থানার মামলার সঙ্গে পরে পর্ণ ভিডিও ধারণের অভিযোগে একটি বিশেষ ধারাও যুক্ত করা হয়েছে। মাদানী গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে রয়েছেন।

গাজীপুর সিটি পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (প্রসিকিউশন) শুভাশীষ ধর বলেন, গত ১৩ এপ্রিল গাছা থানা পুলিশ মাদানীকে সাত দিনের হেফাজতে চেয়ে গাজীপুরের আদালতে আবেদন করে। পরে ১৫এপ্রিল ভার্চুয়ালী শুনানি শেষে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

১০ ফেব্রুয়ারি গাছা থানা এলাকায় এক ওয়াজ মাহফিলে উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে গাছা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়। পরে তার বিরুদ্ধে ওই মামলায় পর্ণগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১২ এর ৮ (৫)(ক) ধারা যুক্ত করে পুলিশ।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বান্দরবানে ভাল্লুকের আক্রমণে কৃষক আহত

অনলাইন ডেস্ক

বান্দরবানে ভাল্লুকের আক্রমণে কৃষক আহত

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় বন্য ভাল্লুকের হামলায় তংতং ম্রো (৩৫) নামের এক কৃষক আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গালেঙ্গ্যা ইউনিয়নের আবুপাড়া এলাকায় পাহাড়ে এ ঘটনা ঘটে।

আহত কৃষক ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের আবুপাড়ার বাসিন্দা রিতু ম্রোর ছেলে।

স্থানীয় ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গালেঙ্গ্যা ইউনিয়নের আবুপাড়া এলাকায় পাহাড়ে জুম ক্ষেতে কাজ করে ফেরার সময় বন্য ভাল্লুকের আক্রমণের শিকার হন তংতং ম্রো। আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রুমা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

আরও পড়ুন


খুলনা সিটি মেয়রের আইসিটি মামলায় সাংবাদিক আবু তৈয়ব গ্রেপ্তার

সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া করলেন সাইফ, ফিরলেন সাজঘরে

করোনা: আসলে আমরা কেউ কারো নই!

‘আইনগত কোনো জটিলতা নেই সুপার লিগ আয়োজনে’


প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রুমা থেকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাসেম জানান, বন্য ভাল্লুকের আক্রমণে এক কৃষক আহত হয়েছেন। প্রাথমিক চিকিৎসার পর আহত কৃষককে রাতে বান্দরবান পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

খুলনা সিটি মেয়রের আইসিটি মামলায় সাংবাদিক আবু তৈয়ব গ্রেপ্তার

সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা

খুলনা সিটি মেয়রের আইসিটি মামলায় সাংবাদিক আবু তৈয়ব গ্রেপ্তার

খুলনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় বেসরকারি টিভি চ্যানেল এনটিভি’র খুলনা ব্যুরো প্রধান মুহাম্মদ আবু তৈয়ব মুন্সিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর নূরনগরের বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। মামলার বাদি খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। মামলা নং-২৫। খুলনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন


সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া করলেন সাইফ, ফিরলেন সাজঘরে

করোনা: আসলে আমরা কেউ কারো নই!

‘আইনগত কোনো জটিলতা নেই সুপার লিগ আয়োজনে’

কষ্টটা ডায়রির পাতায় শব্দে শব্দে বুনে রেখেছিলাম


পুলিশ জানায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কেসিসি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি তালুকদার আব্দুল খালেককে জড়িয়ে অসত্য ও  বিভ্রান্তিকর সংবাদ দেয় তৈয়ব মুন্সি। এই সংবাদের কারণে সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের সম্মান ক্ষুন্ন হয়েছে বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। তৈয়ব মুন্সিসহ দু’জনকে এই মামলায় আসামী করা হয়েছে।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর