হোয়াইট হাউজে পা রেখেই ট্রাম্পের নীতি বদলাবেন বাইডেন
হোয়াইট হাউজে পা রেখেই ট্রাম্পের নীতি বদলাবেন বাইডেন

হোয়াইট হাউজে পা রেখেই ট্রাম্পের নীতি বদলাবেন বাইডেন

অনলাইন ডেস্ক

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণ করবেন আগামী ২০ জানুয়ারি মঙ্গলবার। হোয়াইট হাউজে পা রেখেই তিনি কতগুলো নীতি পরিবর্তন করবেন। হাউজিং, স্টুডেন্ট লোন, জলবায়ু পরিবর্তন এবং অভিবাসন নীতিমালায় পরিবর্তন আসবে বলে ধারণা দিয়েছেন তার চীফ অব স্টাফ কেভিন লামার্ক। সংবাদমাধ্যম সিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয় এই তথ্য।

 

কেভিন লামার্ক আরো জানিয়েছেন, প্রথম ঘন্টাতেই প্রেসিডেন্ট কার্যনির্বাহী ক্ষমতা বলে কিছু বিতর্কিত বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন। পূর্বসূরি ট্রাম্পের নেওয়া বিতর্কিত সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবেন এবং করোনা মোকাবিলায় কার্যকরি পদক্ষেপ নিবেন। গত শনিবার এক বিবৃতিতে একথা জানান তার প্রধান সহকারি।  

কংগ্রেসের অপেক্ষা না করেই বাইডেন কার্যনির্বাহী ক্ষমতা বলে দেশকে ট্রাম্পের বিতর্কিত সিদ্ধান্ত থেকে বের করে আনার জন্য দশ দিনের পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।  

আগামী বুধবারই অভিবাসন নীতি থেকে ট্রাম্পের দেয়া নিষেধাজ্ঞা তুলে নিবেন। এসব নিষেধাজ্ঞার মধ্যে ছিলো মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ সম্পর্কিত।

এছাড়াও, প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে আবারো যোগদান। আন্তঃদেশিয় ভ্রমণ এবং ফেডারেল সম্পত্তিতে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক।  

হোয়াইট হাউজে প্রবেশ করেই ডেমোক্রাট দলের এই প্রেসিডেন্ট প্রথম দিনই যে প্রায় এক ডজন সিদ্ধান্ত নিবেন তার মধ্যে এগুলো অন্যতম। বলেছেন তার চিফ অব স্টাফ।

অন্যান্য পদক্ষেপগুলির মধ্যে আছে, স্টুডেন্ট লোন প্রদান এবং মহামারির মধ্যে উচ্ছেদ বন্ধ করা।  

"এই পদক্ষেপগুলি লাখ লাখ মার্কিনীদের করোনার এই সংকটের মধ্যে কষ্ট থেকে মুক্তি দিবে। বাইডেনের এসব সিদ্ধান্ত শুধু ট্রাম্পের ধ্বংসাত্মক নীতি থেকেই যুক্তরাষ্ট্রকে বের করে আনবে না বরং আমাদের দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে" এক স্মারকলিপিতে এমনটাই বলেছেন কেভিন লামার্ক।


বাইডেনের অভিষেক ঘিরে যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা


মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পঞ্চাশটি রাজ্য এবং কলাম্বিয়াতে একযোগে সতর্কতা জারি। নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আগামী মঙ্গলবার ক্ষমতা গ্রহণকে কেন্দ্র করে যেকোন ধরণের সহিংসতা রোধে এই পদক্ষেপ নেয় মার্কিন প্রশাসন।

এফবিআই এরই মধ্যে সতর্ক করেছে যে, ট্রাম্পের সমর্থকরা সশস্ত্র হামলা আবারো করতে পারে। যাহোক, বাইডেনের দল পরিকল্পনা করে ফেলেছে ট্রাম্পের পলিসির উল্টো জবাব দেওয়ার জন্য।  

অন্যদিকে, বাইডেনের দল থেকে মার্কিনীদের ওয়াশিংটনে প্রেসিডেন্টের অভিষেক উপলক্ষে ভ্রমণ করতে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। কারণ, করোনা মহামারীতে পরিস্তিতি আরো ভয়াবহ হতে পারে। স্থানীয় প্রশাসন বলেছে দূর থেকেই মানুষের অভিষেক অনুষ্ঠান দেখা উচিৎ।

সূত্র: সিবিসি থেকে অনুবাদকৃত।

news24bd.tv আয়শা